প্রকাশ : ১০ জুলাই, ২০১৭ ০২:১৬:৫১
চিকুনগুনিয়া রোগ ব্যাপক বিস্তারের ‘অসচেতনতাকে’ দায়ী করলেন বিশেষজ্ঞরা
বাংলাদেশ বাণী, নিজস্ব প্রতিবেদক : চিকুনগুনিয়া রোগের ব্যাপক বিস্তারের ব্যাপারে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা পারিবারিক পর্যায়ের অসচেতনতাকে দায়ী করেছেন। পাশাপাশি মশার উৎপত্তিস্থল ধ্বংসে নগরবাসী তেমন সচেতন নয় বলেও মন্তব্য করেছেন তারা।

সংক্রামক ব্যাধি নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা (আইইডিসিআর) কেন্দ্রের পরিচালক প্রফেসর ডা. মীরজাদী সাবরিনা ফ্লোরা আজ বাসসকে বলেন, ‘চিকুনগুনিয়া রোগ প্রতিরোধে ঢাকাবাসীর উচিৎ তাদের বাড়িঘর পরিচ্ছন্ন রাখা এবং মশার প্রজননস্থল ধ্বংস করা।’
তিনি বলেন, ‘আমরা লক্ষ্য করছি নগরীর বাসিন্দারা এডিস মশা ধ্বংসে অবহেলা করছেন। চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে সরকারের গৃহীত কর্মসূচিতে তাদের সহায়তা করা উচিৎ।’

প্রফেসর ফ্লোরা বলেন, ‘আমরা ধারণা করছি, ধীরে ধীরে এই রোগের প্রকোপ কমে যাবে। এ জন্য পরবর্তী কয়েকটি দিন আমাদের দেখতে হবে, তাহলে এই রোগের প্রকৃত অবস্থা বুঝা যাবে।’
তিনি জানান, আইইডিসিআরে গত ৩ জুলাই থেকে চিকুনগুনিয়া রোগের জন্য একটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে এবং যে কেউ এই রোগের ব্যাপারে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে পারেন।

প্রফেসর ফ্লোরা বলেন, ‘রাজধানীতে মশাবাহিত চিকুনগুনিয়া রোগে ৫৬৬ জনের মতো আক্রান্ত হয়েছেন বলে সনাক্ত করা হয়েছে। এই রোগ সম্পর্কে জানার জন্য প্রতিদিন গড়ে ৩০ থেকে ৩৫ জন ব্যক্তি আইইডিসিআর-এ আসছেন।’

আইইডিসিআর-এর মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. এসএম আলমগীর বাসসকে বলেন, এডিস এজিপ্টি ও এডিস আলবোপিকটাস নামক দুই প্রজাতির মশা চিকুনগুনিয়া রোগের কারণ। এই রোগের বিশেষ কোন চিকিৎসা না থাকায় মশার প্রজননস্থল ধ্বংসের পাশাপাশি এই রোগ প্রতিরোধে জনগণকে জানতে হবে।
স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা জানান, চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত ব্যক্তিকে প্রচুর পরিমাণ পানীয় পান করতে হবে এবং বিশ্রামে থাকতে হবে। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে রোগ নিয়ন্ত্রণ ইউনিটের পরিচালক ও স্বাস্থ্যসেবা অধিদফতরের (ডিজিএইচএস) লাইন পরিচালক প্রফেসর ডা. সানিয়া তাহমিনা বলেন,‘ আমরা ঢাকা মহানগরীর ৪৭ টি ওয়ার্ডের ৫০ টি স্থানে চিকুনগুনিয়া রোগের ঝঁকিপূর্ণ স্থান নির্ধারণে একটি জরিপ পরিচালনা করেছি।’

তিনি বলেন, চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধ ও গাইডলাইন নিয়ন্ত্রণে পাঁচ শয়ের মতো চিকিৎসক ও নার্সকে বিভিন্ন হাসপাতালে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। এছাড়া বিভাগ, ঝেলা ও উপজেলা পর্যায়ে চিকিৎসক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মশার প্রজননকেন্দ্র বিনষ্টে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। প্রফেসর সানিয়া বলেন, ‘আমরা গত ১৭ জুন ঢাকা মহানগরীর ৯২ টি ওয়ার্ডের দুইশটিরও বেশি স্থানে চিকুনগুনিয়া সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য প্রচারাভিযান চালিয়েছি। এতে বিভিন্ন সরকারি ও প্রাইভেট মেডিকেল কলেজে, ডেন্টাল কলেজ ও নার্সিং ইন্সটিটিউটের প্রায় এক হাজারের মতো ছাত্রছাত্রী অংশ নেন।’ চিকুনগুনিয়া একটি ভাইরাস রোগ, যা মশার মাধ্যমে মানবদেহে ছড়ায়।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
উপরে