প্রকাশ : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১৩:৩২:০৭
তালা উপজেলার মাঠের পর মাঠ সরিষার আবাদ, চারিদিকে মৌ মৌ গন্ধ
বাংলাদেশ বাণী, মীর ইমরান মাহমুদ, তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : মাঠের পর মাঠ সরিষার আবাদ করা হয়েছে। সরিষা ফুলের মৌ মৌ গন্ধে যেন গোটা উপজেলা সুশোভিত হয়ে উঠেছে। শত শত ছেলে মেয়ে সরিষা ফুলের ক্ষেতে বসে ছবিও তুলছে। এই ছবি তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দিচ্ছে। আর আবহওয়া যদি এভাবে অনূকুলে থাকে তাহলে এ বছর সরিষার চাষে বাম্পার ফলনে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সরিষা ক্ষেত নিয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার সামছুল আলম জানান, চলতি মৌসুমে উপজেলায় সরিষা চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩ শত ৯০ হেক্টর। তবে এ বছর লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে ৪ শত ৮৯ হেক্টর জমিতে চাষ হয়েছে।
গত বছর লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৩ শত ৫০ হেক্টর জমিতে, কিন্তু লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে ৩ শত ৫৫ হেক্টর জমিতে চাষ হয়েছিলো। যা গত বছরের তুলনায় এবছর লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে দেড়গুণ হয়েছে। এ বছর ভাল ফলনের জন্য টরি - ৭, বারি - ১৪, ১৫ জাতের সরিষা চাষ করেছেন শতকরা ৯৯ ভাগ কৃষক। বাকি ১ ভাগ চাষ হয়েছে দেশী সরিষাসহ অন্যান্য জাতের। সরিষা চাষ করতে প্রধানতঃ ৪টি জিনিষ প্রয়োজন হয়।
তার মধ্যে রয়েছে ভাল বীজ, সার, সেচ ও যতœ। বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গেলে উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের শাহাপুর গ্রামের কৃষক রফিকুল ইসলাম বলেন, জমিতে চাষ দিয়ে বীজ বপনের উপযুক্ত হলে ১ বিঘা জমিতে ১৪ কেজি ইউরিয়া সার, ৮.৫ কেজি পটাশ, টিএসপি ১৮ কেজি, জিপসাম ১২.৫ কেজি, ম্যাগনেসিয়াম সালফেট ২ কেজি, জিংক সালফেট ৩.৭৫ কেজি, বরিক এসিড ৭.৭৩ কেজি ও প্রয়োজন মত গোবর সার মিশিয়ে জমিতে ছড়িয়ে দিয়ে সরিষার বীজ বপন করেন।
পরে আরেকবার প্রয়োজন মত সার ওষুধ ও সেচ দিয়েছেন। এতে তিনি ভাল ফলনের আশা করছেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা পরিতোষ বাবু আরো বলেন, সরিষার ফলন প্রতি বিঘায় অর্থাৎ ৩৩ শতাংশ জমিতে ৫ থেকে ৬ মন পর্যন্ত ফলন পাওয়া যাবে।
ফলে কৃষকরা এ বছর টরি- ৭, বারি - ১৪, ১৫ জাতের সরিষার বীজ বেশী চাষ করেছেন। এ ছাড়া তিনি উপজেলা বিভিন্ন গ্রামে ব¬ক বা ক্ষেত পরিদর্শনসহ ভাল ফলন পেতে চাষাবাদের জন্য কৃষকদের পরামর্শ দিয়েছেন।
এসময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, মৌমাছি সরিষার কোন ক্ষতি করে না। তারা সরিষার ফুলে বসে পরাগায়ন ছড়ায় বিধায় বিঘা প্রতি শতকরা ২৫ থেকে ৩০ ভাগ ফলন বেশী হয়। এ বছর আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় সরিষার ভাল ফলন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি আশাবাদি।
সর্বশেষ সংবাদ
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
উপরে