প্রকাশ : ১৮ মার্চ, ২০১৭ ২৩:২৩:১৬
বাজারজাত ও চাঁদা নিয়ে শঙ্কায়
খাগড়াছড়িতে আম্রপালি মুকুলের রেকর্ডে কৃষকেরা খুশি
বাংলাদেশ বাণী, মোঃ মাসুদ রানা, খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : খাগড়াছড়িতে আমের মুকুল অতীতের সকল রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। প্রতিটি আম গাছ মুকুলে ভরপুর। আম গাছ গুলো যেন টুপি পড়েছে। গাছে প্রচুর মুকুল আসায় কৃষকও খুশি। তবে ভালো ফলন হলেও বাজার ব্যবস্থাপনার অভাব ও ব্যাপক চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অতিরিক্ত ট্যাক্স আদায়ের কারণে ন্যায্য মূল্য পাওয়া নিয়ে সঙ্কিত কৃষক। অপর দিকে হঠাৎ বৃষ্টিতে কৃষক ক্ষতির আশঙ্কা করলেও কৃষি কর্মকর্তারা বলছে, যত্ম নিলে আম টিকে যাবে এবং আম আকারে বড় হবে।

খাগড়াছড়ির সু-স্বাদু আম্রপালি আমের সারাদেশে সুনাম রয়েছে। এবার  প্রতিটি আম্রপালি আম গাছে মুকুল বা ফুল এসেছে ব্যাপক। যা অতীতে সকল রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। তাই চাষীরা এখন মুকুল রক্ষাসহ গাছের পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছে। প্রাকৃতিক দূর্যোগ না হলে বাম্পার ফলনের আশা করছে কৃষক। তবে সুষ্ঠ বাজার ব্যবস্থাপনা না থাকার পাশাপাশি সরকারী ট্যাক্স ও পথে পথে চাঁদাবাজির কারণে ন্যায্যমূল্য বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কা করছে চাষীরা।

খাগড়াছড়ির বড়পিলাক এলাকার আম চাষী বাবুল গাজী জানান, তিনি এ বছর ২৫ একর জমিকে আম্রপালি সহ বিভিন্ন প্রকারে আম চাষ করেছেন। আম গাছে বিগত বছরগুলোর চেয়ে এ বছর ভালো মুকুল এসেছে। তবে হঠাৎ বৃষ্টির কারণে আম বাগানে বাড়তি খরচ বেড়ে যাবে।

জালিয়াপাড়ার আম চাষী মো. শাহাজ উদ্দিন জানান, গত বছর প্রায় ৩০লাখ টাকার আম বিক্রি করেছে। এ বছর মুকুল অনুযায়ী ফল আসলে দ্বিগুন আম বিক্রি করা যাবে।

খাগড়াছড়ি জেলা সদরে আম চাষী অনিমেষ চাকমা রিংক জানান, হঠাৎ বৃষ্টিতে আমের মকুলের কিছুটা ক্ষতি হয়েছে। সে সাথে ব্যয়ও বেড়ে যাচ্ছে। তবে কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ বলছে, এতে আমের ক্ষতি হবে না। বরং আমের আকার বড় হবে।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে জনৈক আম চাষী বলেন, খাগড়াছড়িতে আম চাষ দিন দিন বৃদ্ধি পেলেও বাজার ব্যবস্থাপনা অভাব ও আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলোর ব্যাপক চাঁদাবাজি রয়েছে। পাশাপাশি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অতিরিক্ত ট্যাক্স আদায়ের কারণে বাইরে ব্যবসায়ীরা না আসার কারণে কৃষকেরা ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না।

খাগড়াছড়ি জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা মো. আবুল কাশেম জানান, আম ও লিচু চাষীরা যাতে সুফল পায় এ জন্যে তারা নিয়মিত মাঠ পর্যায়ে কৃষক প্রশিক্ষণ করে নানাভাবে পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন। তার মতে, খাগড়াছড়ি জেলায় চলতি বছরে প্রায় ২হাজার ৭শ হেক্টর জমিতে আম্রপালি আমের পাশাপাশি রাংগুয়া, হীম সাগর, রত্না, মল্লিকা, গোপালভোগ যা গত বছরের চেয়ে প্রায় এক হাজার হেক্টর বেশি। সে সাথে আম্রপালি আম চাষি গত বছরের চেয়ে ৫০টি পরিবার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫শ পরিবারে। মুকুল অনুযায়ী যদি ফল টিকে যায়, তাহলে প্রতি কেজি আম ৫০ টাকা করে বিক্রি করলেও কৃষক প্রায় দেড়শ কোটি টাকার আম্রপালি আম বিক্রি করতে পারবে।

খাগড়াছড়িতে উৎপাদিত আম্রপালি আম বদলে দিতে পারে দেশের অর্থনৈতিক চিত্র। তবে প্রয়োজন সুষ্ঠ বাজার ব্যবস্থাপনা ও ব্যাপক চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অতিরিক্ত চাঁদাবাজি বন্ধ।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • একুশের গ্রন্থমেলায় মেলায় প্রতিদিনই বই বিক্রি বাড়ছেআন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে যাতায়াতের রুটম্যাপ প্রণয়নবিশ্ব ভালবাসা দিবসে অমর একুশের গ্রন্থমেলায় দর্শনার্থীদের ঢলশেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ নির্ধারিত সময়ের আগেই উন্নত দেশে পরিণত হবে : সরকারি দলরোহিঙ্গা শরণার্থী সমস্যা নিরসনে ইইউ বাংলাদেশের প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখবে টাঙ্গাইলের মধুপুরে চাঞ্চল্যকর রূপা ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় ৪ জনের ফাঁসি’র আদেশআদালতের আদেশ অনুযায়ী কারাগারে ডিভিশন পেলেন খালেদা জিয়াভারতীয় গণমাধ্যমের মন্তব্য খালেদার দণ্ড হাসিনাকে শক্তিশালী করেছেএকুশের বই মেলায় প্রাণ এসেছে : বেড়েছে বিক্রি জনগণের জানমাল রক্ষায় যতদিন প্রয়োজন ততদিনই পুলিশি নিরাপত্তা থাকবে : আইজিপি‘রায়ের কপি হাতে পেলেই হাইকোর্টে আপিল করা হবে’তারেকসহ অন্যদের ১০ বছর কারাদন্ড-জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় রায় : সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার ৫ বছর জেল ভীত হবেন না : আশ্বস্ত করছি ৮ ফেব্রুয়ারি কিছু হবে না : আইজিপি রাষ্ট্রপতি পদে এ্যাড. মো. আবদুল হামিদের পক্ষে মনোনয়নপত্র দাখিলবিএডিসি ও পিআইবি আইনের খসড়া অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভাবিএনপিসহ সবদল একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে : সিইসি'র আশাবাদরাষ্ট্রপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনকে প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ চূড়ান্ত করেছেনরক্তঋনে কেনা, কারো দানে নয় ! ‘অমর একুশের সিঁড়ি বেয়ে আমার বাংলা মায়ের কোল’শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন জনগণের দোরগোড়ায় পৌছে যাচ্ছে : বাহাদুর বেপারীশুরু হলো বাংলা একাডেমিতে মাসব্যাপী অমর একুশে গ্রন্থমেলা
  • একুশের গ্রন্থমেলায় মেলায় প্রতিদিনই বই বিক্রি বাড়ছেআন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে যাতায়াতের রুটম্যাপ প্রণয়নবিশ্ব ভালবাসা দিবসে অমর একুশের গ্রন্থমেলায় দর্শনার্থীদের ঢলশেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ নির্ধারিত সময়ের আগেই উন্নত দেশে পরিণত হবে : সরকারি দলরোহিঙ্গা শরণার্থী সমস্যা নিরসনে ইইউ বাংলাদেশের প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখবে টাঙ্গাইলের মধুপুরে চাঞ্চল্যকর রূপা ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় ৪ জনের ফাঁসি’র আদেশআদালতের আদেশ অনুযায়ী কারাগারে ডিভিশন পেলেন খালেদা জিয়াভারতীয় গণমাধ্যমের মন্তব্য খালেদার দণ্ড হাসিনাকে শক্তিশালী করেছেএকুশের বই মেলায় প্রাণ এসেছে : বেড়েছে বিক্রি জনগণের জানমাল রক্ষায় যতদিন প্রয়োজন ততদিনই পুলিশি নিরাপত্তা থাকবে : আইজিপি‘রায়ের কপি হাতে পেলেই হাইকোর্টে আপিল করা হবে’তারেকসহ অন্যদের ১০ বছর কারাদন্ড-জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় রায় : সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার ৫ বছর জেল ভীত হবেন না : আশ্বস্ত করছি ৮ ফেব্রুয়ারি কিছু হবে না : আইজিপি রাষ্ট্রপতি পদে এ্যাড. মো. আবদুল হামিদের পক্ষে মনোনয়নপত্র দাখিলবিএডিসি ও পিআইবি আইনের খসড়া অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভাবিএনপিসহ সবদল একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে : সিইসি'র আশাবাদরাষ্ট্রপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনকে প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ চূড়ান্ত করেছেনরক্তঋনে কেনা, কারো দানে নয় ! ‘অমর একুশের সিঁড়ি বেয়ে আমার বাংলা মায়ের কোল’শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন জনগণের দোরগোড়ায় পৌছে যাচ্ছে : বাহাদুর বেপারীশুরু হলো বাংলা একাডেমিতে মাসব্যাপী অমর একুশে গ্রন্থমেলা
উপরে