প্রকাশ : ২১ মার্চ, ২০১৭ ০০:৩২:৪৩
কৃষিতে সু’খবর : গোপালগঞ্জে বারি ২ জাতের সূর্য্যমুখি চাষে ব্যাপক সাফল্য
বাংলাদেশ বাণী, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জে কৃষি গবেষণা ইনষ্টিউিট উদ্ভাবিত বারি ২ জাতের সূর্য্যমুখি ট্রায়েলে সাফল্য এসেছে। এ সূর্য্যমুখির বীজ সংরক্ষণ করে কৃষক আগামী আবাদ করতে পারবেন। হাইব্রীড সূর্য্যমুখির মতোই এ সূর্য্যমুখি বিঘায় ১৮ মন উৎপাদিত হয়। আগে হাইব্রীড সূর্যমুখি ছাড়া অন্য কোন জাতের সূর্য্যমুখি ছিলোনা। ফলে, কৃষক পরবর্তী বছরের চাষাবাদে জন্য বীজ রাখতে পারতে না। প্রতি কেজি হাইব্রীড বীজ ১৬শ’ টাকায় ক্রয় করতে হতো। এ কারণে কৃষক সূর্য্যমুখি চাষ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিলো।

বারি ২ জাতের সূর্য্যমুখির বীজ সহজ লভ্য। প্রতিকেজি বীজের মূল্য ২ শ’ ৫০ টাকা। এছাড়া কৃষক এ সূর্য্যমুখি আবাদ করে পরবর্তী বছরের জন্য এ বীজ সংরক্ষণ করতে পারেন। ফলে আগামীতে সূর্য্যমুখি চাষ সম্প্রসারিত হবে বলে কৃষি বিভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করেছে।

বারি ২ জাতের সূর্য্যমুখি চাষাবাদের উন্নত প্রযুক্তির উপর কৃষক মাঠ দিবস  থেকে কৃষি বিশেষজ্ঞরা এ সব তথ্য জানান।

সোমবার  গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার গোবরা গ্রামে পিরোজপুর-গোপালগঞ্জ-বাগেরহাট সমন্বিত কৃষি উন্নয়ন প্রকল্প আয়োজিত এ মাঠ দিবসে প্রধান অতিথির বক্তব্য  দেন  গোপালগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণের ডিডি সমীর কুমার  গোস্বামী।
প্রকল্পের উর্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এইচ, এম খায়রুল বাসারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মাঠ দিবসে  গোপালগঞ্জ হর্টি কালচার সেন্টারের ডিডি মোঃ আব্দুল মজিদ, জেলা বীজ প্রত্যয়ন কর্মকর্তা  রমেশ চন্দ্র ব্রক্ষ, জেলা প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা হরলাল মধু, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান, বৈজ্ঞানিক সহকারী ওয়ালিউর রহমান, কৃষক মোঃ আমজাদ ফকির,  মোঃ জাফরউল্লাহ  মোল্লা বক্তব্য রাখেন।

গোবরা গ্রামের কৃষক  মোঃ আমজাদ  হোসেন বলেন, এ জাতের সূর্য্য মুখি বিঘায় ১৮ মন ফলেছে। কলাই ফসলের তুলনায় এ ফসল চাষাবাদ লাভজনক। আগে হাইব্রিড সূর্য্যমুখির চাষ করেছি। সে সুর্য্যমুখির বীজ রাখা  যেত না। পরিবর্তী বছর ১৬ শ’ টাকা দিয়ে প্রতি কেজি বীজ কিনে এনে আবাদ করতে হতো। হাইব্রিডের তুলনায় এ সূয্যমুখির ফলন  বেশি। নতুন এ সূর্য্যমুখির বীজ রাখা যায়। ফলে আমাদের এলাকায় এ সূর্য্যমুখির চাষ সম্প্রসারিত হবে।

পিরাজপুর-গোপালগঞ্জ-বাগেরহাট সমন্বিত কৃষি উন্নয়ন প্রকল্পের উর্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এইচ, এম খায়রুল বাসার বলেন, ভোজ্য তেল হিসেবে সূর্য্যমুখির তেল মানব দেহের জন্য সবচেয়ে নিরাপদ। এর চাষাবাদ সম্প্রসারিত করতে কৃষি গবেষণা ইনষ্টিউট বারি ২ সূর্য্যমুখি জাত উদ্ভাবন করেছে। গোপালগঞ্জে এ বছর প্রথম এ জাতের ট্রায়েলে সাফল্য এসেছে। সূর্য্যমুখি চাষ সম্প্রসারিত হলে ভোজ্য তৈলের আমদানী নির্ভরতা কমিয়ে দেশ বৈদেশিক মুদ্রা  সাশ্রয় করে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।
সর্বশেষ সংবাদ
  • সুন্দরবনের ৩ কুখ্যাত জলদস্যুবাহিনীর প্রধানসহ ৩৮ জনের আত্মসমর্পণজাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণ : ভবিষ্যতে বাংলাদেশে জাতীয় ঐক্যের দাবি প্রধানমন্ত্রী'ররাজধানী'র জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের সফল অভিযান : ৩ মৃতদেহ ও বিস্ফোরক উদ্ধারপদোন্নতি পেলেন বঙ্গবন্ধু'র খুনিদের গ্রেফতারকারী প্রথম পুলিশ অফিসারবিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণীআম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বরাজধানীতে তীব্র গ্যাস সংকট : জনমনে ক্ষোভ জঙ্গি ও অন্যান্য অপরাধ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল হয়েছে : আইজিপিঅর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি'র সভায় ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনপুলিশকে আমি সব সময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই : প্রধানমন্ত্রীফারমার্স ব্যাংক কর্তৃক-জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিলসহ আমানতকারীদের অর্থ ফেরত না দেয়ায় টিআইবি’র উদ্বেগসুন্দরগঞ্জের আসনটি ছিনিয়ে নিয়েছে আওয়ামী লীগ : এইচ. এম. এরশাদজঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দমনে পুলিশের সাফল্য দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীমাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ এ মাসেই শুরু হচ্ছেযশোরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী পালসার বাবু নিহতদেশজুড়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ উৎসব২০১৭'র বিদায় : নতুন বছর ২০১৮ কে বরণ করে নিল জাতিঅগ্রগতি ৫০ শতাংশের বেশি ॥ যথা সময়ে শেষ হবে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ : কাদেররাবির স্নাতক প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু ২১ জানুয়ারিগাইবান্ধা-১ : আসন শুন্য না হতেই সুন্দরগঞ্জে সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ শুরু
  • সুন্দরবনের ৩ কুখ্যাত জলদস্যুবাহিনীর প্রধানসহ ৩৮ জনের আত্মসমর্পণজাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণ : ভবিষ্যতে বাংলাদেশে জাতীয় ঐক্যের দাবি প্রধানমন্ত্রী'ররাজধানী'র জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের সফল অভিযান : ৩ মৃতদেহ ও বিস্ফোরক উদ্ধারপদোন্নতি পেলেন বঙ্গবন্ধু'র খুনিদের গ্রেফতারকারী প্রথম পুলিশ অফিসারবিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণীআম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বরাজধানীতে তীব্র গ্যাস সংকট : জনমনে ক্ষোভ জঙ্গি ও অন্যান্য অপরাধ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল হয়েছে : আইজিপিঅর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি'র সভায় ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনপুলিশকে আমি সব সময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই : প্রধানমন্ত্রীফারমার্স ব্যাংক কর্তৃক-জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিলসহ আমানতকারীদের অর্থ ফেরত না দেয়ায় টিআইবি’র উদ্বেগসুন্দরগঞ্জের আসনটি ছিনিয়ে নিয়েছে আওয়ামী লীগ : এইচ. এম. এরশাদজঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দমনে পুলিশের সাফল্য দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীমাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ এ মাসেই শুরু হচ্ছেযশোরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী পালসার বাবু নিহতদেশজুড়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ উৎসব২০১৭'র বিদায় : নতুন বছর ২০১৮ কে বরণ করে নিল জাতিঅগ্রগতি ৫০ শতাংশের বেশি ॥ যথা সময়ে শেষ হবে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ : কাদেররাবির স্নাতক প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু ২১ জানুয়ারিগাইবান্ধা-১ : আসন শুন্য না হতেই সুন্দরগঞ্জে সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ শুরু
উপরে