প্রকাশ : ০৯ জুলাই, ২০১৭ ০২:২৭:৪৯
আমতলী ও তালতলীতে বীজের জন্য হাহাকার : বিএডিসি’র বীজ দ্বিগুণ দামে বিক্রি
বাংলাদেশ বাণী, আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি : বরগুনার আমতলী ও তালতলী উপজেলায় আমন উচ্চ ফলনশীল বীজের জন্য কৃষকরা হাহাকার করছে। ডিলারদের দোকানে দোকানে ধরনা দিয়েও বীজ পাচ্ছে না কৃষকরা। আবার কোথাও ভীজ পাওয়া গেলেও ডিলার কিংবা খুচরা বিক্রেতারা দ্বিগুন এর চেয়েও বেশী দাম নিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সময়মত বীজ পাওয়া না গেলে অনেক জমি অনাবাধী থাকার অশঙ্কা করছেন কৃষকরা।

আমতলী ও তালতলী উপজেলায় বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএডিসি) মাধ্যমে সরবরাহ করা উচ্চ ফলনশীল আমন বীজ নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে দ্বিগুণ দামে বিক্রি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ডিপো থেকে চাহিদার তুলনায় বরাদ্দ কম দেওয়ার অজুহাতে কৃত্রিম সংকট তৈরি করে সরকার নির্ধারিত সাড়ে ৩ শ’ টাকা থেকে ৪ শ’ টাকা মূল্যের বীজ ৬’শ থেকে সাড়ে ৭’শ টাকায় বিক্রি করছেন ডিলাররা।

এদিকে, সময়মতো বীজতলা তৈরি করতে না পারলে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কায় বাধ্য হয়ে কৃষকরা চড়া দামে বীজ  কিনে নিতে বাধ্য হচ্ছে কৃষকদের। আবার অনেকে চড়া দাম দিয়েও বীজ পাচ্ছেন না। কোনো রকম দামাদামি করলে বীজ নেই বলেও ফেরত দেওয়া হচ্ছে অনেককে। উপজেলা কৃষি বিভাগের দাবি, বীজের কোনো সংটক নেই। কৃষকদের হতাশ হওয়ারও কিছু নেই। কৃত্রিম সংকট তৈরি হলেও আমনের লক্ষ্যমাত্রা ব্যাহত হবে না।

উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, চলতি আমন মৌসুমে আমতলী  উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে ২০ হাজার ২৩০ হেক্টর জমিতে আমন  চাষের লক্ষমাত্রা রয়েছে এর মধ্যে উচ্চ ফলনশীল চাষযোগ্য জমি রয়েছে ১০ হাজার হেক্টর। এর জন্য ৪০ মেট্রিক টন উচ্চ ফলনশীল বীজের চাহিদা রয়েছে।

তালতলী উপজেলায় ১৫ হাজার হেক্টর জমিতে আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে। এর মধ্যে ৫ হাজার হেক্টর জমিতে উচ্চ ফলন শীল চাষযোগ্য জমি রয়েছে। এর জন্য ২০ মেট্রিক টন বীজের চাহিদা রয়েছে। দুই উপজেলায়  ৬০ মেট্রিক টন উচ্চ ফলনশীল বীজের চাহিদার বিপরীতে ৭০ মেট্রিক টন বীজ সরবরাহ করেছে বলে কৃষি অফিস জানিয়েছে।

এতে এলাকায় বীজের ঘাটতি থাকার কথা নয়। ডিলাররা বলছেন কৃষি বিভাগের হিসাবের সাথে মাঠ পর্যায়ে হিসাবের কোন মিল নেই। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ডিলার জানান, আমতলী ও তালতলী উপজেলায় ১শ’ মেট্রিক টন এর বেশী উচ্চ ফলনশীল বীজের চাহিদা রয়েছে। সে অনুযায়ী সরবরাহ কম।  যে কারনে বীজের সংকট দেখা দিয়েছে।

কৃষকদের বীজ সংকট নিরসন ও উচ্চ ফলনশীল (উফশী) ধান চাষাবাদের জন্য আমতলী ও তালতলী উজেলায়  বিআর-১১, ব্রি-৫২, ব্রি-৪৯, বিআর-২৩, বিআর-২২, বিআর-৪৪, বিআর-৪০, ব্রিধান-৪৯ জাতের ধানবীজের চাহিদা থাকায়  বিএডিসির মাধ্যমে কৃষকদের মাঝে সরকার নির্ধারিত মূল্যে সরবারহ করা হয়। এ জন্য গত ১ জুন থেকে উপজেলায় ১০ জন  ডিলারের মাধ্যমে ধান সরবরাহ করে।

মৌসুমের শুরু থেকেই এলাকার চাহিদা অনুযায়ী ডিপো থেকে বীজ উত্তোলন করেন ডিলাররা। তবে বীজের কৃত্রিম সংকট তৈরি করে দরিদ্র কৃষকের কাছে তা দ্বিগুণ দামে বিক্রি করে অধিক মুনাফার লুফে নিচ্ছেন ডিলাররা।
আরপাঙ্গাশিয়া গ্রামের নিজাম হাওলাদার অভিযোগ করে বলেন, আরপাঙ্গাশিয়া বাজারের খুচরা বিক্রেতা রুহুল আমিন বিশ্বাস ৩শ’ ৫০ টাকার  বিআর-২৩ বীজ বিক্রি করছেন ৬’শ ৫০ টাকা দরে।  ওই একই গ্রামের শিউলী বেগম জানান, শনিবার সকালে আমতলী এসছিলাম বীজ ক্রয়ের জন্য। কিন্ত ১ ছটাক বীজও ক্রয় করতে পারি নাই। তিনি জানান, তার ৬ বিঘা জমি রয়েছে। বীজের চাহিদা রয়েছে ২০ কেজি।  বীজ না পেলে জমি অনাবাধী থাকার আশঙ্কা করছেন এই নারী কৃষক।

আমতলী ও তালতলী উপজেলার অনেক চাষী  অভিযোগ করেন বলেন, ১০ কেজি ওজনের ধানের বস্তার দাম সরকারিভাবে সাড়ে ৩ শ’ তৈকে ৪০০ টাকা নির্ধারণ করা। অথচ ডিলাররা বীজ সংকটের কথা বলে তাদের কাছ থকে ৬০০ থেকে ৮০০ টাকা পর্যন্ত রাখছেন। তবে কৃত্রিম সংকট তৈরি ও অতিরিক্ত দামে বিক্রির বিষয়টি অস্বীকার করেন ডিলাররা।

আমতলী পৌরশহরের এসবি ট্রেডার্স এর মালিক মো: ইউনুছ মিয়া জানান, সরকার নির্ধারিত মূল্যেই বীজ বিক্রি করছি। তবে এলাকয় চাহিদা বেশী থাকায় বীজ আসার সাথে সাথে শেষ হয়ে যাচ্ছে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, বিএডিসি পটুয়াখালী থেকে আমাকে ১৮টন বীজের মেমো দিলেও সেখানে ২ টন  বীজ কম দিয়েছে। হাসপাতাল সড়কের মামুন এন্টার প্রাইজ এর মালিক মো: মামুন অভিযোগ করে বলেন, আমার নামে বিএডিসি পটুয়াখালী থেকে সরবরাহ করা বীজের মেমোতে ২৬ টন দেখানো হয়েছে অথচ আমি বীজ পেয়েছি ১৬ টন।
বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএডিসি) পটুয়াখালীর বীজ বিপনন  উপ-পরিচালক মো: আছাদুজ্জামান ডিলারদের বীজ কম দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, মোমো অনুযায়ী সকলের বীজ সঠিক ভাবে দেওয়া হয়েছে। তিনি আরো জানান, উচ্চ ফলনশীল ধান চাষে কৃষকের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় বীজ সংকট তৈরী হয়েছে। এটা রাতারাতি মেটানো সম্ভব নয়। কারন পূর্ব থেকে যে চাহিদা দেওয়া হয়েছে সে অনুযায়ী আমতলী ও তালতলী উপজেলা বীজ সরবরাহ করা হয়েছে।

আমতলী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা  এসএম বদরুল আলম জানান, ডিলাররা কৃত্রিম সংকট তৈরী করে সরকার নির্ধরিত মূল্যের চেয়ে বেশি দামে বীজ বিক্রি করছেন। প্রকৃত পক্ষে বাজারে কোন বীজের সংকট নেই।

আমতলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মূশফিকুর রহমান জানান, কিছু অসাধু বীজ ডিলাররা কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে বীজর দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। এ বিষয়ে বীজ বিক্রির মনিটরিং ব্যবস্থা জোর দার করা হয়েছে। শনিবার সকালে হাসপাতাল সড়কের মামুন এন্টারপ্রাইজ এবং জাহিদ এন্টার প্রইজে অভিযান পরিচালনা করে এর মালিকদ্বয়কে অতিরিক্ত মূল্যে বীজ বিক্রি করায় ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, সরকার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে যাতে কেউ দাম বেশী না রাখতে পারে সে বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসন সজাগ রয়েছে।

 
সর্বশেষ সংবাদ
  • ‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ : বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি, সোমবার শাহবাগে ‘আনন্দ উৎসব ও স্মৃতিচারণ’ আজ বসছে দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন বঙ্গবন্ধু'র ৭ মার্চের ভাষণ : ২৫ নভেম্বর দেশব্যাপী আনন্দ শোভাযাত্রা দ. কোরিয়ার যুদ্ধজাহাজ মার্কিন বিমানবাহী রণতরীর যৌথ সামরিক মহড়ায় যোগ দেবেঢাকা-কলকাতা মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের ‘কাস্টমস এন্ড ইমিগ্রেশন সার্ভিস’ চালু২০২৪ সালের মধ্যে ঘরে ঘরে শতভাগ বিদ্যুত পৌঁছে দেয়া হবে : বানিজ্যমন্ত্রীরোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়া নিশ্চিত করতে যুক্তরাজ্যের সহযোগীতা চাইলো ঢাকা খুলনা-কলকাতা চলাচলকারী মৈত্রী ট্রেনের আজ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন
  • ‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ : বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি, সোমবার শাহবাগে ‘আনন্দ উৎসব ও স্মৃতিচারণ’ আজ বসছে দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন বঙ্গবন্ধু'র ৭ মার্চের ভাষণ : ২৫ নভেম্বর দেশব্যাপী আনন্দ শোভাযাত্রা দ. কোরিয়ার যুদ্ধজাহাজ মার্কিন বিমানবাহী রণতরীর যৌথ সামরিক মহড়ায় যোগ দেবেঢাকা-কলকাতা মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের ‘কাস্টমস এন্ড ইমিগ্রেশন সার্ভিস’ চালু২০২৪ সালের মধ্যে ঘরে ঘরে শতভাগ বিদ্যুত পৌঁছে দেয়া হবে : বানিজ্যমন্ত্রীরোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়া নিশ্চিত করতে যুক্তরাজ্যের সহযোগীতা চাইলো ঢাকা খুলনা-কলকাতা চলাচলকারী মৈত্রী ট্রেনের আজ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন
উপরে