প্রকাশ : ০১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০২:০৯:২৬
‘ফসলের রোগ দমনে বিনা জৈব-ছত্রাক নাশক পরিবেশ বান্ধব প্রযুক্তি আবিস্কার’
বাংলাদেশ বাণী, নকলা (শেরপুর) থেকে ইউসুফ আলী মন্ডল : বিনা জৈব-ছত্রাক নাশক ফসলের রোগ বালাই ধ্বংসকারী একটি জীবানু গঠিত ছত্রাক নাশক প্রযুক্তি আবিস্কার করেছেন। প্রযুক্তিটি কৃষি বৈজ্ঞানিকরা ২০০৮ সালে বিভিন্ন জেলার ফসলের জমি থেকে ২’শ টির উপরে ট্রাইকোডারমা ছত্রাক আহরিত করে পরীক্ষাগারে এন্টাগোনেস্টিক ক্ষমতা যাচাই করে শক্তিশালী টিআরডি-১০ নামের একটি আইসোলেট নির্বাচনের মাধ্যমে এ আইসোলেটে ৫০, ১০০, ১৫০, ২০০, ৩০০, ৩৫০ গ্রে মাত্রায় রেডিয়েশন প্রয়োগ করে প্রাপ্ত শক্তিশালী আইসোলেটটি টিআরডি-১০ এম উক্ত জৈব ছত্রাক নাশক ফরমুলেশনে ব্যবহার করা হচ্ছে।

বিভিন্ন ফসলের গোড়া পঁচা ও ঢলে পড়া রোগ দমনে এটি অধিক কার্যকরী। এটি কৃষিজ উচ্ছিস্টে জন্মানো একটি পেস্টিসাইড। তবে পিট মাটি বা ট্যালকল পাওডারেও ফরমোলেট তৈরি করা যায়। এটি জীবানু গঠিত তাই ব্যবহার ও প্রয়োগ পদ্ধতি অন্যান্য রাসায়নিক পেস্টিসাইট থেকে একটু ভিন্ন।

এটির ব্যবহারের কৌশলীর উপর রোগদমনে কার্যকারিতা অনেকাংশে নির্ভর করে। বিভিন্ন গবেষনায় মসুর, ছোলা, সয়াবিন, টমেটো ও ঢেড়সের গোড়া পচা রোগ এমনকি ধানের খোলপোড়া রোগ দমনে অধিক কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়েছে। বিনা উদ্ভাবিত ছত্রাক নাশক জৈব ব্যবহার করে কৃষকদের ফসল অনুযায়ী রোগ দমন করা অনেকাংশে নিশ্চিত হয়।

নিদির্ষ্ট পদ্ধতিতে ইহা ব্যবহার করলে ধানের গোড়া পচা রোগ ৬০% কমে যায়। ফসলের কোন উপকারী অনুজীবকে ধ্বংস করে না। তাই এর ব্যবহার পরিবেশের ক্ষতি হয় না। মাটি ও ফসলের গুনাগুন অক্ষুন্ন রাখে। কোন কোন ফসলের বৃদ্ধিতেও সহায়তা করে। সংক্ষিপ্ত প্রশিক্ষণ দিয়েই কৃষক ছত্রাকনাশক খুব সহযেই ব্যবহার করতে পারে।

এটি পরিবেশ বান্ধব রাসায়নিক ছত্রাক নাশকের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা যায়। রাসায়নিক ছত্রাক নাশক বার বার ব্যবহারে মাটির গুণাগুন নষ্ট হয়। কিন্তু জৈব ছত্রাক নাশক ব্যবহার করলে মাটির গুণাগুণ আরো বহু অংশে বেড়ে যায়। এটি বাড়ির আঙ্গিনায় জৈব পদার্থ দ্রুত পচনে সহায়তা করে। তাই জৈব সার তৈরিতেও সহায়তা করে।

মাটি ও বীজ শোধন পদ্ধতি যে মাটিতে প্রতি বছর ফসলের গোড়া পচা রোগ দেখা যায় সেই মাটিতে প্রতি বছর জো-কন্ডিশনে বীজ রোপন বা রোপনের ৭দিন পূর্বে উক্ত ছত্রাক নাশক ১০০ কেজি প্রতি হেক্টরে মাটির সাথে মিশিয়ে দিতে হবে। ২০ দিন পর পর ৫০ কেজি করে প্রয়োগ করতে হবে। টবের মাটিতে ব্যবহার করতে হলে ৬ইঞ্চি গভীর পর্যন্ত প্রতি ১ কেজি মাটিতে ২ গ্রাম হিসেবে দিতে হবে।

বীজ তলাতে ও অনুরোপভাবে ব্যবহার করা যায়।  তবে বীজ বা চারা রোপনের ৭দিন পূর্বে প্রয়োগ করতে হবে। বীজ শোধনে ওজনের ৩% উক্ত ছত্রাক নাশক ব্যবহার করতে হবে। ব্যবহার কারীর সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

বাংলাদেশ পরমানু কৃষি গবেষনা ইনস্টিটিউট (বিনা) এর উদ্ভিদ রোগতত্ব বিভাগ এর ব্যবস্থাপনায় বেশ কয়েকজন কৃষি বৈজ্ঞানিক ড. আবুল কাশেম, ড. হোসনে আরা বেগম, ড. মাহবুবা কার্নিজ হাসনা, ড. মোঃ ইব্রাহিম খলিল, ড. এম রইসুল হায়দার, ও ড. মোঃ জাহাঙ্গীর আলম পরিবর্তিত আবহাওয়ায় উপযোগী বিভিন্ন ফসল ও ফলের জাত উন্নয়ন কর্মসূচির অর্থায়নে এ প্রযুক্তিটি কৃষকদের মাঝে ছড়িয়ে দিচ্ছেন।   
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • তাজিকিস্তান রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশকে সব রকম সহযোগিতা দেবেসাম্প্রদায়িক ও অশুভ শক্তিকে রুখে দেবার অঙ্গীকার নিয়ে বাংলা বর্ষ বরণউন্নয়নশীল দেশের যোগ্যতা অর্জনের ঘোষণায় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে ধন্যবাদ প্রস্তাব গ্রহণআজ বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস : নানা কর্মসূচি গ্রহণ একনেকের সভায় ৩,৪১৭ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০ প্রকল্প অনুমোদনপ্রশ্নপত্র ফাঁসের সাথে জড়িতরা জাতির শত্রু : বেনজির আহমেদপ্রশ্ন ফাঁসমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠানে আমরা সব ব্যবস্থা নিয়েছি : শিক্ষামন্ত্রীগাইবান্ধায় নবজাতককে আঁছড়িয়ে দিয়ে হত্যা করলো পাষণ্ড পিতা!গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশনের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা : ১৫ মে ভোট আমি কী পাগল ? প্রধান শিক্ষককে লাঞ্চিত করবো ! ফের সমালোচনা ও শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে সরকার দলীয় এমপি রতন !আজ গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া পৌরসভা নির্বাচনযশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার গদখালীতে ছেলের হাতে বাবা খুন।সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনআজ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস : জাতির বিনম্র শ্রদ্ধাকাঠমান্ডুতে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত পিয়াস রায়কে অশ্রুসিক্ত নয়নে শেষ বিদায় ভিয়েতনামে'র হোচিমিন সিটি'র একটি বহুতল ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড : নিহত ১৩ভারতে রাজ্যসভার জন্য ৭টি রাজ্যে ২৬টি আসনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছেমৌসুমি পাখিদেরকে দলে আশ্রয় প্রশ্রয় দেবেন না : ওবায়দুল কাদেরকাঠমান্ডুতে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত আরো ৩ জনের মরদেহ ঢাকায় : পরিবারের কাছে হস্তান্তর একনেকে'র সভায় সীমান্ত সড়ক নির্মাণসহ ১৬টি প্রকল্প অনুমোদন
  • তাজিকিস্তান রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশকে সব রকম সহযোগিতা দেবেসাম্প্রদায়িক ও অশুভ শক্তিকে রুখে দেবার অঙ্গীকার নিয়ে বাংলা বর্ষ বরণউন্নয়নশীল দেশের যোগ্যতা অর্জনের ঘোষণায় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে ধন্যবাদ প্রস্তাব গ্রহণআজ বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস : নানা কর্মসূচি গ্রহণ একনেকের সভায় ৩,৪১৭ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০ প্রকল্প অনুমোদনপ্রশ্নপত্র ফাঁসের সাথে জড়িতরা জাতির শত্রু : বেনজির আহমেদপ্রশ্ন ফাঁসমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠানে আমরা সব ব্যবস্থা নিয়েছি : শিক্ষামন্ত্রীগাইবান্ধায় নবজাতককে আঁছড়িয়ে দিয়ে হত্যা করলো পাষণ্ড পিতা!গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশনের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা : ১৫ মে ভোট আমি কী পাগল ? প্রধান শিক্ষককে লাঞ্চিত করবো ! ফের সমালোচনা ও শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে সরকার দলীয় এমপি রতন !আজ গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া পৌরসভা নির্বাচনযশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার গদখালীতে ছেলের হাতে বাবা খুন।সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনআজ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস : জাতির বিনম্র শ্রদ্ধাকাঠমান্ডুতে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত পিয়াস রায়কে অশ্রুসিক্ত নয়নে শেষ বিদায় ভিয়েতনামে'র হোচিমিন সিটি'র একটি বহুতল ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড : নিহত ১৩ভারতে রাজ্যসভার জন্য ৭টি রাজ্যে ২৬টি আসনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছেমৌসুমি পাখিদেরকে দলে আশ্রয় প্রশ্রয় দেবেন না : ওবায়দুল কাদেরকাঠমান্ডুতে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত আরো ৩ জনের মরদেহ ঢাকায় : পরিবারের কাছে হস্তান্তর একনেকে'র সভায় সীমান্ত সড়ক নির্মাণসহ ১৬টি প্রকল্প অনুমোদন
উপরে