প্রকাশ : ০১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০২:০৯:২৬
‘ফসলের রোগ দমনে বিনা জৈব-ছত্রাক নাশক পরিবেশ বান্ধব প্রযুক্তি আবিস্কার’
বাংলাদেশ বাণী, নকলা (শেরপুর) থেকে ইউসুফ আলী মন্ডল : বিনা জৈব-ছত্রাক নাশক ফসলের রোগ বালাই ধ্বংসকারী একটি জীবানু গঠিত ছত্রাক নাশক প্রযুক্তি আবিস্কার করেছেন। প্রযুক্তিটি কৃষি বৈজ্ঞানিকরা ২০০৮ সালে বিভিন্ন জেলার ফসলের জমি থেকে ২’শ টির উপরে ট্রাইকোডারমা ছত্রাক আহরিত করে পরীক্ষাগারে এন্টাগোনেস্টিক ক্ষমতা যাচাই করে শক্তিশালী টিআরডি-১০ নামের একটি আইসোলেট নির্বাচনের মাধ্যমে এ আইসোলেটে ৫০, ১০০, ১৫০, ২০০, ৩০০, ৩৫০ গ্রে মাত্রায় রেডিয়েশন প্রয়োগ করে প্রাপ্ত শক্তিশালী আইসোলেটটি টিআরডি-১০ এম উক্ত জৈব ছত্রাক নাশক ফরমুলেশনে ব্যবহার করা হচ্ছে।

বিভিন্ন ফসলের গোড়া পঁচা ও ঢলে পড়া রোগ দমনে এটি অধিক কার্যকরী। এটি কৃষিজ উচ্ছিস্টে জন্মানো একটি পেস্টিসাইড। তবে পিট মাটি বা ট্যালকল পাওডারেও ফরমোলেট তৈরি করা যায়। এটি জীবানু গঠিত তাই ব্যবহার ও প্রয়োগ পদ্ধতি অন্যান্য রাসায়নিক পেস্টিসাইট থেকে একটু ভিন্ন।

এটির ব্যবহারের কৌশলীর উপর রোগদমনে কার্যকারিতা অনেকাংশে নির্ভর করে। বিভিন্ন গবেষনায় মসুর, ছোলা, সয়াবিন, টমেটো ও ঢেড়সের গোড়া পচা রোগ এমনকি ধানের খোলপোড়া রোগ দমনে অধিক কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়েছে। বিনা উদ্ভাবিত ছত্রাক নাশক জৈব ব্যবহার করে কৃষকদের ফসল অনুযায়ী রোগ দমন করা অনেকাংশে নিশ্চিত হয়।

নিদির্ষ্ট পদ্ধতিতে ইহা ব্যবহার করলে ধানের গোড়া পচা রোগ ৬০% কমে যায়। ফসলের কোন উপকারী অনুজীবকে ধ্বংস করে না। তাই এর ব্যবহার পরিবেশের ক্ষতি হয় না। মাটি ও ফসলের গুনাগুন অক্ষুন্ন রাখে। কোন কোন ফসলের বৃদ্ধিতেও সহায়তা করে। সংক্ষিপ্ত প্রশিক্ষণ দিয়েই কৃষক ছত্রাকনাশক খুব সহযেই ব্যবহার করতে পারে।

এটি পরিবেশ বান্ধব রাসায়নিক ছত্রাক নাশকের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা যায়। রাসায়নিক ছত্রাক নাশক বার বার ব্যবহারে মাটির গুণাগুন নষ্ট হয়। কিন্তু জৈব ছত্রাক নাশক ব্যবহার করলে মাটির গুণাগুণ আরো বহু অংশে বেড়ে যায়। এটি বাড়ির আঙ্গিনায় জৈব পদার্থ দ্রুত পচনে সহায়তা করে। তাই জৈব সার তৈরিতেও সহায়তা করে।

মাটি ও বীজ শোধন পদ্ধতি যে মাটিতে প্রতি বছর ফসলের গোড়া পচা রোগ দেখা যায় সেই মাটিতে প্রতি বছর জো-কন্ডিশনে বীজ রোপন বা রোপনের ৭দিন পূর্বে উক্ত ছত্রাক নাশক ১০০ কেজি প্রতি হেক্টরে মাটির সাথে মিশিয়ে দিতে হবে। ২০ দিন পর পর ৫০ কেজি করে প্রয়োগ করতে হবে। টবের মাটিতে ব্যবহার করতে হলে ৬ইঞ্চি গভীর পর্যন্ত প্রতি ১ কেজি মাটিতে ২ গ্রাম হিসেবে দিতে হবে।

বীজ তলাতে ও অনুরোপভাবে ব্যবহার করা যায়।  তবে বীজ বা চারা রোপনের ৭দিন পূর্বে প্রয়োগ করতে হবে। বীজ শোধনে ওজনের ৩% উক্ত ছত্রাক নাশক ব্যবহার করতে হবে। ব্যবহার কারীর সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

বাংলাদেশ পরমানু কৃষি গবেষনা ইনস্টিটিউট (বিনা) এর উদ্ভিদ রোগতত্ব বিভাগ এর ব্যবস্থাপনায় বেশ কয়েকজন কৃষি বৈজ্ঞানিক ড. আবুল কাশেম, ড. হোসনে আরা বেগম, ড. মাহবুবা কার্নিজ হাসনা, ড. মোঃ ইব্রাহিম খলিল, ড. এম রইসুল হায়দার, ও ড. মোঃ জাহাঙ্গীর আলম পরিবর্তিত আবহাওয়ায় উপযোগী বিভিন্ন ফসল ও ফলের জাত উন্নয়ন কর্মসূচির অর্থায়নে এ প্রযুক্তিটি কৃষকদের মাঝে ছড়িয়ে দিচ্ছেন।   
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জঙ্গিবাদ কোন প্রভাব ফেলতে পারবে না : আইজিপি সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকারবাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে ৫টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরএনটিআরসিএ'র নতুন চেয়ারম্যান পদে আশফাক হোসেনকে নিয়োগ দিয়েছে সরকারমানুষের স্বচ্ছতা বাড়ায় প্রতিবছর দেশে পূজা মণ্ডপ বাড়ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী“দেশে কোন সংখ্যালঘু নেই” : র‌্যাবের মহাপরিচালক নির্বাচন কমিশনারদের মধ্যে-মতবিরোধ থাকলেও জাতীয় নির্বাচন পরিচালনায় প্রভাব পড়বে না : সিইসিবাসাবাড়ি'র গ্যাসের মূল্য আপাতত বাড়ছে না : বিইআরসিঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরের জন্য দেড় বিঘা জমি প্রদান করলেন প্রধানমন্ত্রী‘পদ্মাসেতু রেল সংযোগ নির্মাণ প্রকল্পের’ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রীবাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা আজ শুরু সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে‘তিতলি’'র প্রভাবে ভারি বৃষ্টিপাতের আভাস : ভূমিধসের আশঙ্কাপ্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ভিডিও কনফারেন্সে নড়াইলের ‘শেখ রাসেল সেতু’ উদ্বোধনভারতের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’র আঘাতে ৮ জনের প্রাণহানি : ক্রমশ: দুর্বল হচ্ছেএকুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় : বাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদন্ড ❏ তারেকসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনইতিহাসের বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলার মামলা ❏ বিচারের ঐতিহাসিক রায় আজসামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘গুজব শনাক্তকরণ সেল’ গঠন করেছে সরকারবিশ্ব বরেণ্য চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের ২৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজদুর্যোগ কবলিত ইন্দোনেশিয়া লম্বা হচ্ছে লাশের মিছিল
  • আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জঙ্গিবাদ কোন প্রভাব ফেলতে পারবে না : আইজিপি সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকারবাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে ৫টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরএনটিআরসিএ'র নতুন চেয়ারম্যান পদে আশফাক হোসেনকে নিয়োগ দিয়েছে সরকারমানুষের স্বচ্ছতা বাড়ায় প্রতিবছর দেশে পূজা মণ্ডপ বাড়ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী“দেশে কোন সংখ্যালঘু নেই” : র‌্যাবের মহাপরিচালক নির্বাচন কমিশনারদের মধ্যে-মতবিরোধ থাকলেও জাতীয় নির্বাচন পরিচালনায় প্রভাব পড়বে না : সিইসিবাসাবাড়ি'র গ্যাসের মূল্য আপাতত বাড়ছে না : বিইআরসিঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরের জন্য দেড় বিঘা জমি প্রদান করলেন প্রধানমন্ত্রী‘পদ্মাসেতু রেল সংযোগ নির্মাণ প্রকল্পের’ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রীবাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা আজ শুরু সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে‘তিতলি’'র প্রভাবে ভারি বৃষ্টিপাতের আভাস : ভূমিধসের আশঙ্কাপ্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ভিডিও কনফারেন্সে নড়াইলের ‘শেখ রাসেল সেতু’ উদ্বোধনভারতের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’র আঘাতে ৮ জনের প্রাণহানি : ক্রমশ: দুর্বল হচ্ছেএকুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় : বাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদন্ড ❏ তারেকসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনইতিহাসের বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলার মামলা ❏ বিচারের ঐতিহাসিক রায় আজসামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘গুজব শনাক্তকরণ সেল’ গঠন করেছে সরকারবিশ্ব বরেণ্য চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের ২৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজদুর্যোগ কবলিত ইন্দোনেশিয়া লম্বা হচ্ছে লাশের মিছিল
উপরে