প্রকাশ : ০১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২৩:৫৭:২০
জগন্নাথপুরে বোরো ধান চাষের আগেই পানি সংকট : দুশ্চিন্তায় কৃষক
বাংলাদেশ বাণী, বিপ্লব দেব নাথ, জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি : জগন্নাথপুরে বোরো ধান চাষের আগেই পানি সংকট দেখা দেয়ায় প্রায় দেড় সহস্রাধিক কৃষক চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। ইতিমধ্যে অনেকেই বীজ তলা তৈরীর কাজ সম্পন করেছেন আবার অনেকেই বীজতলা তৈরীতে ব্যস্ত সময় পার করছেন বলে স্থানীয় কৃষকরা জানান। তবে এরই মধ্যে পানির তীব্র সংকট দেখা দেয়ায় শুরুতেই বোরো ধান চাষে হোচট খাওয়ার সম্ভাবনায় দুশ্চিন্তার প্রহর গুনছেন দুই ইউনিয়নসহ পৌরসভার পাঁচটি গ্রামের কৃষকরা।

সরেজমিনে জানা যায়, জগন্নাথপুর পৌরসভার ইলছি ও মোলাডুপি হাওরে বোরো ধান চাষে সেচের জন্য শহরের ইসহাকপুর এলাকার মাগুরা খালে বোরো ধান চাষে সেচের জন্য পানি আটকে রাখতে গত ১ মাস পূর্বে ৫০হাজার টাকা ব্যয়ে একটি বাধ নির্মান করা হয়। কিন্তু নির্মানের এক মাসের মাথায় বাঁধ ভেঙ্গে সেচের পানি নিম্নাঞ্চলে নেমে খাল শুকিয়ে যায়। ফলে বোরো ধানের চারা রোপনের আগেই পানি সংকট দেখা দেয়। যার কারণে চরম হতাশা ও অজানা আতংকে দিন গুনছেন ওই এলাকার প্রায় দেড়-দুই সহস্রাধিক কৃষকরা।

কৃষকদের অনেকেই জানান, মাস-দেড়েক আগে বাঁধটি নির্মাণ হলেও দুর্বল কাজের জন্য তিনবার সংস্কার করা হয়েছিল নির্মানাধীন ওই বাঁধটি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আপ্রাণ চেষ্টা করেও বাধটি টিকিয়ে রাখা সম্ভব হলো না। বাঁধ ভেঙ্গে সবটুকু পানি নিম্নাঞ্চলে নেমে যাওয়ায় খালটি শুকিয়ে যাওয়ার উপক্রম দেখা দিয়েছে। যেটুকু পানি ওই খালে রয়েছে তা দিয়ে বীজ তলায়ও সেচ দেয়া সম্বব নয়। তারপরও বাঁধটি মেরামত করে পানি আবারও জমা করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন স্থানীয় কৃষকরা।

স্থানীয় কৃষকরা আরও বলেন, আমাদের ওই খালে প্রতিবছর বাঁধ নির্মান করে সেচের পানি সংরক্ষণ করা হয়। কিন্তু তার পরও সময়মতো পানি সংকট থেকে যায়। যদি সরকারি কোন উদ্যোগে আমাদের ওই হাওরে কোন সেচ প্রকল্প স্থাপন কিংবা একটা স্লুইচ গেট স্থাপন করা হয় তাহলে দেড় থেকে দুই সহ¯্রাধিক কৃষকের পানি সংকট নিরসন হবে। এতে করে আশার সঞ্চার জাগবে নতুন কৃষকদের মাঝে।

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর খলিলুর রহমান বলেন, আমরা পৌরসভার মাধ্যমে ওই স্থানে প্রতিবছর বাঁধ নির্মান করে থাকি। এ বছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি। কিন্তু নদীর পানির স্রোতে হটাৎ ওই খালের পাড় ভেঙ্গে যাওয়ায় বাঁধে তার প্রভাব পড়লে বাঁধটি ভেঙ্গে যায়। তার পরও আমরা বাঁধ মেরামত করে পুণরায় পানি সংরক্ষনের জন্য  আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার কৃষি বান্ধব সরকার। কৃষকদের সহযোগিতায় এ সরকার নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। তবে আমাদের ওই এলাকার কৃষকদের স্বার্থরক্ষায় যদি ওই স্থানে একটি স্লুইচ গেট কিংবা সরকারি অর্থায়নে একটি সেচ প্রকল্প স্থাপন করা যায় তাহলে দুই ইউনিয়ন ও আমাদের পৌরসভার প্রায় দেড় সহস্রাধিক কৃষক আলোর পথ দেখবে আমার বিশ্বাস।
সর্বশেষ সংবাদ
  • রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়াতে হবে : ওআইসি২০৪১ সাল নাগাদ বাংলাদেশের-প্রতিবেশী দেশগুলো থেকে ৯ হাজার মেগা: বিদ্যুৎ আমদানির পরিকল্পনা রয়েছেআগামী ৩০ অক্টোবরের পর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল : ইসি সচিবশেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি আজ ৫'শ মেগা: বিদ্যুৎ সরবরাহের উদ্বোধন করবেনডেঙ্গু বিস্তারের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদেরদশম জাতীয় সংসদের ২২ তম অধিবেশন চলাকালীন ডিএমপি'র নিষেধাজ্ঞাশক্তিশালী পাকিস্তানকে হারিয়ে সেমি-ফাইনালের পথে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ৫১ হজ ফ্লাইটে ১৮ হাজার ৬৯৩ জন হাজী দেশে ফিরেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন চলতি বছরের ডিসেম্বরের শেষে : ইসি সচিবরুট পারমিটবিহীন যান চলাচল বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশসমূদ্র বন্দরগুলোকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছেরোহিঙ্গা গণহত্যার দায়ে মিয়ানমারের সেনাপ্রধানের বিচার আহ্বান জাতিসংঘের তদন্তকারীদলের ঝিকরগাছা পৌর আ'লীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস হোসেনের অন্তিম বিদায় থাইল্যান্ডকে ৩-১ গোলে হারিয়ে ষষ্ঠ স্থান নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশআজ জাতীয় বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুলের ৪২ তম মৃত্যুবার্ষিকী শোলাকিয়া ময়দানে দেশের বৃহত্তম ঐতিহাসিক ঈদ জামাত অনুষ্ঠিতত্যাগের মহিমায় সারাদেশে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিতসন্দেহ নেই গ্রেনেড হামলায় খালেদা-তারেক জড়িত ছিল : প্রধানমন্ত্রীআজ ত্যাগের মহিমায় উদ্ভাসিত পবিত্র ঈদুল আজহাগ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে অস্থায়ী শহীদ বেদীতে প্রধানমন্ত্রী'র শ্রদ্ধা
  • রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়াতে হবে : ওআইসি২০৪১ সাল নাগাদ বাংলাদেশের-প্রতিবেশী দেশগুলো থেকে ৯ হাজার মেগা: বিদ্যুৎ আমদানির পরিকল্পনা রয়েছেআগামী ৩০ অক্টোবরের পর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল : ইসি সচিবশেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি আজ ৫'শ মেগা: বিদ্যুৎ সরবরাহের উদ্বোধন করবেনডেঙ্গু বিস্তারের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদেরদশম জাতীয় সংসদের ২২ তম অধিবেশন চলাকালীন ডিএমপি'র নিষেধাজ্ঞাশক্তিশালী পাকিস্তানকে হারিয়ে সেমি-ফাইনালের পথে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ৫১ হজ ফ্লাইটে ১৮ হাজার ৬৯৩ জন হাজী দেশে ফিরেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন চলতি বছরের ডিসেম্বরের শেষে : ইসি সচিবরুট পারমিটবিহীন যান চলাচল বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশসমূদ্র বন্দরগুলোকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছেরোহিঙ্গা গণহত্যার দায়ে মিয়ানমারের সেনাপ্রধানের বিচার আহ্বান জাতিসংঘের তদন্তকারীদলের ঝিকরগাছা পৌর আ'লীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস হোসেনের অন্তিম বিদায় থাইল্যান্ডকে ৩-১ গোলে হারিয়ে ষষ্ঠ স্থান নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশআজ জাতীয় বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুলের ৪২ তম মৃত্যুবার্ষিকী শোলাকিয়া ময়দানে দেশের বৃহত্তম ঐতিহাসিক ঈদ জামাত অনুষ্ঠিতত্যাগের মহিমায় সারাদেশে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিতসন্দেহ নেই গ্রেনেড হামলায় খালেদা-তারেক জড়িত ছিল : প্রধানমন্ত্রীআজ ত্যাগের মহিমায় উদ্ভাসিত পবিত্র ঈদুল আজহাগ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে অস্থায়ী শহীদ বেদীতে প্রধানমন্ত্রী'র শ্রদ্ধা
উপরে