প্রকাশ : ২০ নভেম্বর, ২০১৭ ২৩:০৭:০২
দালাল চক্র হাতিয়ে নিয়েছে কোটি টাকা
আমতলীতে সরকারি বিদ্যালয়ের স্বীকৃতি পেতে জালিয়াতির আশ্রয়
বাংলাদেশ বাণী, আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি : আমতলীতে বিদ্যালয়কে সরকারি তালিকাভুক্তির জন্য জালিয়াতির মাধ্যমে ভুয়া পরীক্ষার্থী সাজিয়ে পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার ২০টি প্রাথমিক বিদ্যালয় নিয়ে চলছে নানা বিতর্ক। বাস্তবে ছাত্র-ছাত্রী না থাকলেও কাগজপত্রে বিদ্যালয়গুলোর ছাত্র-ছাত্রী ও ভবন দেখিয়ে জাতীয়করণের তালিকাভুক্ত করতে চেষ্টা চালালেও বাস্তবে বিদ্যালয় গুলোর বেশীর ভাগেরই কোন অস্তিত্ব নেই। বিদ্যালয়গুলি সরকারি হবে, এ আশ্বাস দিয়ে শিক্ষকদের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি দালাল চক্র বলে অভিযোগ উঠেছে।

বিদ্যালয় গুলোতে শিক্ষার্থী না থাকলেও অন্য বিদ্যালয় থেকে ধার করা ছাত্র-ছাত্রী এনে পরীক্ষার্থী দেখাচ্ছে। ধার করা পরীক্ষার্থী দিয়ে রোববার থেকে অনুষ্ঠিতব্য প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষায় পূর্ব খেকুয়ানী বেসরকার্রী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৩ জন, মঠবাড়ীয়া বাজারখালী বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৪ জন, উত্তর পূর্ব ডালাচারা মুক্তিযোদ্ধা শহীদ স্মৃতি বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৩ জন, পূর্ব হরিদ্রা বাড়ীয়া বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৫ জন, পশ্চিম গুলিশাখালী বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৪ জন, দক্ষিণ ডালাচারা বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৪জন, পূর্ব খাকদান বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৩জন, কালিপুরা বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৫জন, কৃষ্ণনগর বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৫জন, পশ্চিম চরখালী বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ২জন, দক্ষিন গাজীপুর এস এম  বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৪ জন, উত্তর পশ্চিম চিলা বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ২জন, চর রাওঘা বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ২জন, মধ্য কুলাইরচর বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৪ জন, মধ্য পশ্চিম চিলা বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ২জন, উত্তর পশ্চিম সোনাউঠা বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৪ জন, কাঠালিয়া  বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৩জন, উত্তর পূর্ব লোদা  বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৫জন, পশ্চিম চন্দ্রা মাদবর বাড়ী বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৪ জন, উত্তর টিয়াখালী আদর্শ গুচ্ছ গ্রাম  বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৪ জন, বলইবুনিয়া  বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৫জন, দক্ষিন তারিকাটা  বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৪জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। তবে এসব শিক্ষার্থী সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়গুলোর নয় বলে অভিযোগ উঠেছে।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে এসব বিদ্যালয় গুলোর বেশির ভাগই কাগজ পত্রের মধ্যে সীমাবদ্ধ। দু’একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ঘর থাকলেও তাতে কোন দিন ক্লাশ হয়নি বলে স্থানীয়রা জানান। কাগজে কলমে থাকা এসব স্কুল সরকারি করন এবং শিক্ষক নিয়োগের কথা বলে কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি দালাল চক্র। দালার চক্রের প্রধান হচ্ছে হলদিয়া হাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: মহসীন মোল্লাও হরিদ্রা বাড়িয়া বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামাল মৃধা ও উত্তর পূর্ব ডালাচারা শহীদ স্মৃতি বেসরকারী প্রাথমিক বিদালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মফিজ উদ্দিন।

এই দালাল চক্রের একজন উত্তর পূর্ব ডালাচারা শহীদ স্মৃতি বেসরকারী প্রাথমিক বিদালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.মফিজ উদ্দিন জানান, বিদ্যালয়টি নতুন করতে যাচ্ছি। এখানে কিছু এদিক-সেদিক হয়েছে। বিষয়গুলো না দেখার জন্য অনুরোধ করেন তিনি।

আমতলী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মজিবুর রহমান বলেন, আমি আমতলীতে যোগদান করার পূর্বেই বিদ্যালয়গুলো ডি আর ভূক্ত হয়েছে। কেউ জালিয়াতি করে থাকলে ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. বদরুদ্দোজা শুভ বলেন, তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বরগুনা জেলা প্রশাসক মোঃ মোখলেচুর রহমান বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্ত বিদ্যালয় এবং এর সাথে যারা জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • গাজীপুরে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করতে নির্বাচন কমিশনের ব্যাপক প্রস্তুতিকলম্বিয়াকে হারিয়ে বিশ্বকাপে শুভ সূচনা করলো এশিয়ার দল জাপানদলীয় মনোনয়ন নিয়ে নানামুখী আলোচনা ॥ বরিশালে সিটি’তে চার মেয়র প্রার্থীসহ ৪৭ জনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহআজিজ আহমেদকে নতুন সেনা প্রধান নিয়োগআনন্দ-উচ্ছ্বাসের মধ্যদিয়ে রাজধানীসহ দেশজুড়ে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হচ্ছেদু’বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনার সাথে আইসল্যান্ডের ১-১ গোলে ড্রআজ খুশি'র ঈদ ❏ মুসলিম জাহানের সমৃদ্ধি কামণার অঙ্গীকারে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র পৃথক পৃথক বাণীপ্রধানমন্ত্রী গণভবনে আজ ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেনশেষ মুহূর্তের আত্মঘাতী গোলে বিশ্বকাপে মিসরকে হারালো উরুগুয়েআজ চাঁদ দেখা গেলে : শনিবার সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপননিজেদের মাঠে দাপুটে জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করলো স্বাগতিক রাশিয়াঈদে অজ্ঞান ও মলম পার্টির দৌরাত্ম রোধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর : আইজিপি ঈদুল ফিতরের তারিখ নির্ধারণে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা কাল আজ মহিমান্বিত পবিত্র লাইলাতুল কদরের রজনীআজ বাজারে আসছে নতুন ২ ও ৫ টাকা মূল্যমানের নোটনারী এশিয়া কাপ টি টোয়েন্টিতে ভারতকে হারিয়ে, বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করায়, প্রাণঢালা আন্তরিক অভিনন্দন।চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেতমালয়েশিয়াকে ৭০ রানে হারিয়ে এশিয়া কাপের স্বপ্নের ফাইনালে বাংলাদেশ : প্রতিপক্ষ ভারত আজ শুরু হচ্ছে দশম জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন
  • গাজীপুরে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করতে নির্বাচন কমিশনের ব্যাপক প্রস্তুতিকলম্বিয়াকে হারিয়ে বিশ্বকাপে শুভ সূচনা করলো এশিয়ার দল জাপানদলীয় মনোনয়ন নিয়ে নানামুখী আলোচনা ॥ বরিশালে সিটি’তে চার মেয়র প্রার্থীসহ ৪৭ জনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহআজিজ আহমেদকে নতুন সেনা প্রধান নিয়োগআনন্দ-উচ্ছ্বাসের মধ্যদিয়ে রাজধানীসহ দেশজুড়ে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হচ্ছেদু’বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনার সাথে আইসল্যান্ডের ১-১ গোলে ড্রআজ খুশি'র ঈদ ❏ মুসলিম জাহানের সমৃদ্ধি কামণার অঙ্গীকারে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র পৃথক পৃথক বাণীপ্রধানমন্ত্রী গণভবনে আজ ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেনশেষ মুহূর্তের আত্মঘাতী গোলে বিশ্বকাপে মিসরকে হারালো উরুগুয়েআজ চাঁদ দেখা গেলে : শনিবার সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপননিজেদের মাঠে দাপুটে জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করলো স্বাগতিক রাশিয়াঈদে অজ্ঞান ও মলম পার্টির দৌরাত্ম রোধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর : আইজিপি ঈদুল ফিতরের তারিখ নির্ধারণে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা কাল আজ মহিমান্বিত পবিত্র লাইলাতুল কদরের রজনীআজ বাজারে আসছে নতুন ২ ও ৫ টাকা মূল্যমানের নোটনারী এশিয়া কাপ টি টোয়েন্টিতে ভারতকে হারিয়ে, বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করায়, প্রাণঢালা আন্তরিক অভিনন্দন।চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেতমালয়েশিয়াকে ৭০ রানে হারিয়ে এশিয়া কাপের স্বপ্নের ফাইনালে বাংলাদেশ : প্রতিপক্ষ ভারত আজ শুরু হচ্ছে দশম জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন
উপরে