প্রকাশ : ০৭ মে, ২০১৮ ০৩:৪৫:২৪
সংশ্লিষ্টতা না থাকলেও অনেক ক্ষেত্রেই নারীকে পুরুষের দুর্নীতির দায় নিতে হয়
বাংলাদেশ বাণী, ডেস্ক রিপোর্ট : দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জিত অর্থ ও সম্পদ রক্ষার্থে বা আইনকে ফাঁকি দেওয়ার জন্য বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করা হয়। অর্জিত সম্পত্তি নিজের নামে না রেখে পরিবারের অন্য সদস্য বিশেষকরে স্ত্রীর নামে রাখা এমনই একটি পন্থা। অনেক ক্ষেত্রে স্ত্রী এ বিষয়ে জানেন না, আবার অনেক ক্ষেত্রে স্ত্রী এ সম্পর্কে জানেন ও তার সম্মতি থাকে।

এ ধরণের প্রবণতার ফলে দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জিত অবৈধ আয় ও সম্পদের পারিবারিক দায় নারীর ওপর বর্তায় এবং নারীকে উক্ত অবৈধ আয় ও সম্পদের হিসাব দেওয়ার জন্য দায়বদ্ধ বা অপরাধী হিসেবে বিবেচনা করা হয়। দুর্নীতির অভিজ্ঞতার ক্ষেত্রে নারীদের দুর্নীতির শিকার, দুর্নীতির সংঘটক, দুর্নীতির মাধ্যম এবং দুর্নীতির সুবিধাভোগীসহ বিভিন্ন ভূমিকায় দেখা যায়।

আজ রোবাবার সকালে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)’র ধানমণ্ডিস্থ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ‘দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জিত আয় ও সম্পদের পারিবারিক দায় : নারীর ভূমিকা, ঝুঁকি ও করণীয়’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় এসব পর্যবেক্ষণ তুলে ধরা হয়। টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এর চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও টিআইবি’র উপদেষ্টা-নির্বাহী ব্যবস্থাপনা অধ্যাপক ড. সুমাইয়া খায়ের, গবেষণা ও পলিসি বিভাগের পরিচালক মোহাম্মদ রফিকুল হাসান, সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানে কর্মরত সাংবাদিকগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। সভায় সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কার্যপত্র উপস্থাপন করেন টিআইবি’র গবেষণা ও পলিসি বিভাগের প্রোগ্রাম ম্যানেজার শাম্মী লায়লা ইসলাম।

মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, দুর্নীতির মাধ্যমে অবৈধ আয় ও সম্পদ অর্জনে বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীর কোনোরূপ সংশ্লিষ্টতা না থাকা সত্তে¡ও নারীকে অপরাধের দায় নিতে হয়। এক্ষেত্রে পুরুষতান্ত্রিক আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপট, নারীর অর্থনৈতিক নির্ভরশীলতা, পরিবারের প্রতি নারীর সহমর্মী মনোভাব, দুর্নীতিপরায়ণ মানসিকতা ইত্যাদি এ ঝুঁকি বিস্তারে নিয়ামক হিসেবে কাজ করে।

এ ঝুঁকি মোকাবেলায় নারীর সজাগ ও সচেতন কার্যকরতা এ ধরণের অপরাধ দমন ও প্রতিরোধে অর্থপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। পাশাপাশি, সিদ্ধান্তগ্রহণ প্রক্রিয়ায় নারীর অধিকতর অন্তর্ভুক্তি, পারিবারিক ও সামাজিকভাবে প্রচলিত ক্ষমতা-কাঠামোতে পুরুষতান্ত্রিক ধ্যান-ধারণার পরিবর্তন, দুর্নীতির দৃষ্টান্তমূলক ও কার্যকর দমন ও প্রতিরোধ এবং উল্লিখিত পরিবর্তনসমূহ প্রচলনে রাষ্ট্র ও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানসমূহের সদিচ্ছা সার্বিকভাবে এ ঝুঁকি হ্রাসে সহায়ক হবে।

সভায় উপস্থাপিত কার্যপত্র অনুযায়ী, ২০০৭ থেকে মার্চ, ২০১৮ পর্যন্ত দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কর্তৃক দায়েরকৃত ২৯টি মামলায় অধস্তন বিচারিক আদালত স্বামীর দুর্নীতির কাজে সহায়তা বা জ্ঞাত আয়-বর্হিভূত সম্পদ অর্জন বা সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে ২৯ জন নারীকে কারাদণ্ড বা আর্থিক জরিমানা বা উভয় দন্ড প্রদান করেছেন।

২০১৫-২০১৭ সাল পর্যন্ত দুদকে স্বামী কর্তৃক অবৈধ আয় করে স্ত্রীর নামে সম্পদ অর্জন সংক্রান্ত ১১৮টি অভিযোগ অনুসন্ধানের পর্যায়ে রয়েছে একং এ সংক্রান্ত ৩০টি মামলা তদন্তাধীন এবং ১৪টি মামলায় চার্জশীট প্রদান করা হয়েছে।

মতবিনিময় সভার কার্যপত্রের পর্যবেক্ষণে বলা হয়, দরিদ্রদের মধ্যে দরিদ্রতর হিসেবে নারীর ওপর দুর্নীতির নেতিবাচক প্রভাব অনেক বেশি বলে ধারণা করা হয়। বিভিন্ন ক্ষেত্রে দুদক, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ও বাংলাদেশ ব্যাংকসহ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান স্বামীর অবৈধ সম্পদ বা আয়ের উৎস স্ত্রীর কাছে জানতে চাইলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই স্ত্রী সঠিকভাবে জবাব দিতে ব্যর্থ হন এবং আইনি প্রক্রিয়ার সম্মুখীন হন। অনেক সময় দেখা যায় স্ত্রীকে রক্ষা করার বদলে স্বামী নিজেকে বাঁচাতে দাবি করেন যে স্ত্রীর সম্পদের হিসাব তিনি জানেন না।

অনেক ক্ষেত্রে স্বামীকে বাঁচাতে বা উক্ত সম্পদ বাজেয়াপ্ত হওয়া থেকে রক্ষা করতে স্ত্রী নিজে দায় স্বীকার করেন। আবার স্ত্রী যদি অস্বীকারও করেন যে তিনি তার নামে রাখা সম্পদ সম্পর্কে কিছু জানেন না, তারপরও তিনি অবৈধ সম্পদ রাখার সহযোগী হিসেবে মামলার আসামী হয়ে যান। এই প্রবণতার ফলে দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জিত অবৈধ আয় ও সম্পদের পারিবারিক দায় নারীর ওপর বর্তায় এবং নারীকে উক্ত অবৈধ আয় ও সম্পদের হিসাব দেওয়ার জন্য দায়বদ্ধ বা অপরাধী হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

সভায় বক্তারা বলেন, নারীর ওপর এসংক্রান্ত বহুমুখী ঝুঁকি মোকাবেলায় নারীকে এ বিষয়ে সচেতন করে তুলতে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ব্যাপক প্রচারণামূলক কার্যক্রম গ্রহণ করতে হবে। এ প্রচারণা কার্যক্রমে সমাজের বিভিন্ন ধ্যান-ধারণার পরিবর্তনে ঝুঁকির পাশাপাশি ইতিবাচক বিষয়সমূহ তুলে ধরতে হবে।

এ সংক্রান্ত বিদ্যমান আইনসমূহ সম্পর্কে সচেতন করতে হবে। এছাড়া নারী অধিকার সংগঠন কর্তৃক দুর্নীতির শিকার নারীকে আইনগত সহায়তা প্রদানের উদ্যোগ নিতে হবে। নারীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অনুসন্ধান, তদন্ত ও মামলা পরিচালনার ক্ষেত্রে দুর্নীতি দমন কমিশনকে সংবেদনশীল হতে হবে এবং আরও নারী-বান্ধব ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

দুদক-এর বিভিন্ন মামলার পর্যবেক্ষণ তুলে ধরে দুদক এর চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন,‘‘দুর্নীতিগ্রস্ত মানষিকতা ছাড়াও অনেক ক্ষেত্রে নারী শুধু সচেতনতার অভাবে বা দুর্নীতিমনষ্ক পারিবারিক প্রধানের নানাবিধ অনৈতিক চাপে না জেনেই এ অপরাধের অংশীদার হয়ে যাচ্ছেন। আবার দুর্নীতির বিষয়টি বুঝলেও পারিবারিক সিদ্ধান্তগ্রহণ প্রক্রিয়ায় নারীর সীমিত ক্ষমতা, প্রতিবাদে বা বিরুদ্ধাচরণে নারীর।

খবর : সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
সর্বশেষ সংবাদ
  • রাতে ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন গ্রেফতার তফসিল ঘোষণার আগেই আলোচনায় বসার আহ্বান জাতীয় ঐক্যফ্রন্টেরজাতীয় সংসদ নির্বাচনে সর্বদলীয় সরকার চায় কয়েকটি বিদেশি দূতাবাস ও প্রতিষ্ঠানইমরুলের সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের উড়ন্ত সূূচনা স্বাগতিক বাংলাদেশের সংসদ নির্বাচনের আচরণ বিধিমালার সংশোধনী অনুমোদন করেছে ইসিআজ শুরু হচ্ছে দশম জাতীয় সংসদের ২৩ তম ও শেষ অধিবেশন সুপার শপ প্রিন্স বাজারের কাণ্ডজ্ঞান : শারদীয় অফারে গরুর মাংসের মূল্যছাড় !ইয়াবা সাম্রাজ্যে'র তালিকার শীর্ষে আবারো আলোচিত সাংসদ বদি'র নাম ! আওয়ামীলীগের এবারের নির্বাচনী ইশতেহারে থাকছে নতুন চমকশ্রদ্ধা-ভালবাসা আর শোকাশ্রু'তে কিংবদন্তি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুকে চির বিদায়নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৫ তম জন্মদিন উদযাপিত ‘দেশের অপরাধীদের জন্য অশনি সংকেত অপেক্ষা করছে’: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণাআগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জঙ্গিবাদ কোন প্রভাব ফেলতে পারবে না : আইজিপি সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকারবাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে ৫টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরএনটিআরসিএ'র নতুন চেয়ারম্যান পদে আশফাক হোসেনকে নিয়োগ দিয়েছে সরকারমানুষের স্বচ্ছতা বাড়ায় প্রতিবছর দেশে পূজা মণ্ডপ বাড়ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী“দেশে কোন সংখ্যালঘু নেই” : র‌্যাবের মহাপরিচালক নির্বাচন কমিশনারদের মধ্যে-মতবিরোধ থাকলেও জাতীয় নির্বাচন পরিচালনায় প্রভাব পড়বে না : সিইসি
  • রাতে ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন গ্রেফতার তফসিল ঘোষণার আগেই আলোচনায় বসার আহ্বান জাতীয় ঐক্যফ্রন্টেরজাতীয় সংসদ নির্বাচনে সর্বদলীয় সরকার চায় কয়েকটি বিদেশি দূতাবাস ও প্রতিষ্ঠানইমরুলের সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের উড়ন্ত সূূচনা স্বাগতিক বাংলাদেশের সংসদ নির্বাচনের আচরণ বিধিমালার সংশোধনী অনুমোদন করেছে ইসিআজ শুরু হচ্ছে দশম জাতীয় সংসদের ২৩ তম ও শেষ অধিবেশন সুপার শপ প্রিন্স বাজারের কাণ্ডজ্ঞান : শারদীয় অফারে গরুর মাংসের মূল্যছাড় !ইয়াবা সাম্রাজ্যে'র তালিকার শীর্ষে আবারো আলোচিত সাংসদ বদি'র নাম ! আওয়ামীলীগের এবারের নির্বাচনী ইশতেহারে থাকছে নতুন চমকশ্রদ্ধা-ভালবাসা আর শোকাশ্রু'তে কিংবদন্তি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুকে চির বিদায়নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৫ তম জন্মদিন উদযাপিত ‘দেশের অপরাধীদের জন্য অশনি সংকেত অপেক্ষা করছে’: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণাআগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জঙ্গিবাদ কোন প্রভাব ফেলতে পারবে না : আইজিপি সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকারবাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে ৫টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরএনটিআরসিএ'র নতুন চেয়ারম্যান পদে আশফাক হোসেনকে নিয়োগ দিয়েছে সরকারমানুষের স্বচ্ছতা বাড়ায় প্রতিবছর দেশে পূজা মণ্ডপ বাড়ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী“দেশে কোন সংখ্যালঘু নেই” : র‌্যাবের মহাপরিচালক নির্বাচন কমিশনারদের মধ্যে-মতবিরোধ থাকলেও জাতীয় নির্বাচন পরিচালনায় প্রভাব পড়বে না : সিইসি
উপরে