প্রকাশ : ০২ আগস্ট, ২০১৭ ০১:৩৮:১০
জামিন পেল রাবির পরোয়ানাভুক্ত ১৬ শিক্ষার্থী
বাংলাদেশ বাণী, ডেস্ক রিপোর্ট : ২০১৪ সালের ২ ফেব্রুয়ারী বর্ধিত ফি ও সান্ধ্যকোর্স বিরোধী আন্দোলনে সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশের দায়েরকৃত মামলায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়ারেন্টভুক্ত ২৫ শিক্ষার্থীর মধ্যে জামিন পেয়েছেন ১৬ জন।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহী বিজ্ঞ মহানগর দায়রা জজ আদালতের মূখ্য হাকিম মো. আখতারুল আলমের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন প্রার্থনা করেন তারা। বিচারক তাদেরকে মামলার পরবর্তী শুনানির দিন পর্যন্ত জামিন মঞ্জুর করেন।

আগামী ৭ আগস্ট মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে। অন্য ৯ আসামি আদালতে হাজির না হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে পরোয়ানা বহাল রাখা হয়েছে। আদালতে আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মুন্না সাহা।

তিনি জানান, ‘শুনানির জন্য নির্ধারিত সোমবার আদালতের কার্যক্রম বন্ধ থাকায় আজ ১৬ জন শিক্ষার্থীর জামিন মঞ্জুর করেছে আদালত। পরবর্তী শুনানি ৭ আগস্ট ধার্য করা হয়েছে। সেদিন শিক্ষার্থীরা স্থায়ী জামিন আবেদন করবেন।’

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ২ ফেব্রুয়ারি আন্দোলনরত কয়েক হাজার শিক্ষার্থীর ওপর একযোগে হামলা চালায় পুলিশ ও ছাত্রলীগ।

পরে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা বিক্ষিপ্তভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের জুবেরী ভবন, একাডেমিক ভবন ও আবাসিক হলে ভাঙচুর চালায়। ঘটনার পরদিন নগরীর মতিহার থানায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পুলিশ পৃথকভাবে চারটি মামলা দায়ের করে। গত ৭ মে পুলিশের দায়েরকৃত ‘বিস্ফোরক আইন’ মামলায় আদালতে ৩৪ জনকে আসামি করে চার্জশিট দেয়। এদের মধ্যে ২৫ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • ‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ : বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি, সোমবার শাহবাগে ‘আনন্দ উৎসব ও স্মৃতিচারণ’ আজ বসছে দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন বঙ্গবন্ধু'র ৭ মার্চের ভাষণ : ২৫ নভেম্বর দেশব্যাপী আনন্দ শোভাযাত্রা দ. কোরিয়ার যুদ্ধজাহাজ মার্কিন বিমানবাহী রণতরীর যৌথ সামরিক মহড়ায় যোগ দেবেঢাকা-কলকাতা মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের ‘কাস্টমস এন্ড ইমিগ্রেশন সার্ভিস’ চালু২০২৪ সালের মধ্যে ঘরে ঘরে শতভাগ বিদ্যুত পৌঁছে দেয়া হবে : বানিজ্যমন্ত্রীরোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়া নিশ্চিত করতে যুক্তরাজ্যের সহযোগীতা চাইলো ঢাকা খুলনা-কলকাতা চলাচলকারী মৈত্রী ট্রেনের আজ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন
  • ‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ : বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি, সোমবার শাহবাগে ‘আনন্দ উৎসব ও স্মৃতিচারণ’ আজ বসছে দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন বঙ্গবন্ধু'র ৭ মার্চের ভাষণ : ২৫ নভেম্বর দেশব্যাপী আনন্দ শোভাযাত্রা দ. কোরিয়ার যুদ্ধজাহাজ মার্কিন বিমানবাহী রণতরীর যৌথ সামরিক মহড়ায় যোগ দেবেঢাকা-কলকাতা মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের ‘কাস্টমস এন্ড ইমিগ্রেশন সার্ভিস’ চালু২০২৪ সালের মধ্যে ঘরে ঘরে শতভাগ বিদ্যুত পৌঁছে দেয়া হবে : বানিজ্যমন্ত্রীরোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়া নিশ্চিত করতে যুক্তরাজ্যের সহযোগীতা চাইলো ঢাকা খুলনা-কলকাতা চলাচলকারী মৈত্রী ট্রেনের আজ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন
উপরে