প্রকাশ : ০৩ আগস্ট, ২০১৭ ০২:২৬:৩৪
‘কক্সবাজার কারা বন্দীরা করবেনা আর অপরাধ’!
বাংলাদেশ বাণী, ফরিদুল মোস্তফা খান, কক্সবাজার থেকে : কক্সবাজার বিভিন্ন মামলার আসামিদের নির্ধারিত দন্ডে কারাভোগ শেষে বের হয়ে তাদের পুনরায় অপরাধে আর আগ্রহ সৃষ্টি হবে না। কারো উস্কানি আমলে আসবে না ওদের। তাকে আর লুকিয়ে থাকতে হবে না এলাকায় । ওইসব বন্দীর জন্য জেলহাজত থেকে মুক্তির পর নিজের পায়ে দাঁড়ানোর ব্যবস্থা হাতে নিয়েছে কক্সবাজার জেলা কারাগার কর্তৃপক্ষ। সেখানে আসামি-কয়েদিদের প্রাথমিক ও মৌলিক শিক্ষা দিয়ে দক্ষ জনশক্তিতে রূপান্তর করে তোলা হচ্ছে ।

আর কারা অভ্যন্তরে শিশুদের ডে-কেয়ারে (পরিচর্যা) যত্নে নজর রাখা হচ্ছে। কৃত নানা অপরাধ ও অভিযোগে আটক কক্সবাজার কারাগারে বন্দী প্রায় তিন হাজার ১শ’ ১৬জন লোককে দক্ষ জনশক্তিতে রূপান্তর করা হচ্ছে বর্তমানে। ফেলে আসা অতীতের সব উচ্ছৃঙ্খল পথ ছেড়ে আলোর পথে ফিরিয়ে আসবে ওইসব বন্দী। এরা সমাজ ও দেশের বোঝা হিসেবে নয়, কারামুক্ত হলে তারা হবে পরিবার ও দেশের সম্পদ। এজন্যই কারাভ্যন্তরে ওইসব হাজতি  কয়েদিকে প্রশিক্ষিত কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে দেয়া হচ্ছে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা, বিনোদন, কৃষিসহ নানা প্রশিক্ষণ ও জনহিতকর বিভিন্ন কমকার্ন্ড।

দীর্ঘদিন ধরে কক্সবাজার কারাগারের খোঁজখবর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে এসব তথ্য।

সূত্র জানায়, উক্ত কারাগারে  শিশুদের বিনোদনের জন্য ইতোমধ্যে  নির্মিত হয়েছে নান্দনিক  পার্ক।  মায়ের অপরাধে বিনা কারণে কোলে করে নিয়ে আসা এবং জেলে থাকা ওইসব শিশুর জন্য রয়েছে ডে-কেয়ার (পরিচর্যা) সেন্টার। দু’জন শিক্ষক রোজ তাদের প্রাথমিক ও মৌলিক শিক্ষা দিয়ে চলছেন।

সেখানকার জেল সুপার বজলুর রশিদ আখন্দ এসব বিষয় সার্বিক তদারকি করছেন। তাঁর ঐকান্তিক প্রচেষ্টা ও নিদের্শনায় নবাগত জেলর শাহাদত ও ডেপুটি জেলর অর্পণ সংশ্লিষ্ট কর্মকান্ডে অভ্যন্তরীণ ভাবে যে ব্যক্তি যে কাজে পারদর্শী তাকে সে কাজে নিযুক্ত করেছেন। জামিনে মুক্ত হয়ে সম্প্রতি জেল ফেরত কয়েক ব্যক্তি কারাগারের ভেতর দেয়া ওই সব শিক্ষা তাদের ভবিষ্যত কাজে লাগবে বলে জানিয়েছেন।

তারা বলছেন, বর্তমান জেল সুপার যোগদানের পর থেকে কারাগারের সব বন্দি রয়েছেন স্বস্তিতে।প্রতিদিন কারা অভ্যন্তর নবসমাজে পাল্টাছে তার চিত্র। মশা নিধনের জন্য কেনা হয়েছে অত্যাধুনিক ফগার মেশিন। সেখানকার পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, ধর্মীয় শিক্ষা, গণশিক্ষা, বৈদ্যুতিক শিক্ষা, সেলাই কাজ, হস্ত শিল্প ও সবুজ-শ্যামল কারাগারটির ভেতরের সৌন্দর্য চোখে পড়ার মত।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
উপরে