প্রকাশ : ১২ আগস্ট, ২০১৭ ০১:২৪:২৮
জগন্নাথপুরে কলেজ ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় আসামীরা ‘অধরা’ ★ আজ শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন
বাংলাদেশ বাণী, জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে এক কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হলেও ঘটনার ১২ দিন এবং মামলা দায়ের’র ৯ দিন পেরিয়ে গেলেও অভিযুক্ত ৬ আসামীদের মধ্যে একজনকেও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এ নিয়ে সর্বত্র সমালোচনার ঝড় বইছে।

আসামীদের গ্রেফতারের দাবিতে ইতিমধ্যে কলেজ শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে আসামীদের গ্রেফতারের জন্য ৪৮ঘন্টা সময় বেঁধে দেয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে। গ্রেফতারে ব্যর্থ হলে জোরালো কর্মসূচি ঘোষনা করা হবে বলে ওই মানববন্ধন কর্মসূচিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন।

ঘোষিত ওই ৪৮ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও একজন আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। ঘটনার ১২ দিন পেরিয়ে গেলেও ‘অধরা’ রয়ে গেছে আসামীরা। আজ শনিবার (১২ আগষ্ট) জগন্নাথপুর ডিগ্রী কলেজের শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জনের ঘোষনা দিয়েছেন।

তথ্য নিয়ে জানা যায়, জগন্নাথপুর উপজেলার পাটলি ইউনিয়নের কবিরপুর গ্রামের আখলুছ মিয়ার মেয়ে স্থানীয় জগন্নাথপুর ডিগ্রী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী রোমেনা বেগম (১৮) কে ২৫ জুলাই কলেজ থেকে বাড়ী ফেরার পথে সিএনজি চালক রোমেনার খালতো ভাই ইউনুছ মিয়া তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহরণের পর তাঁকে টানা দুদিন আটকে রেখে ধর্ষণ করে।

অপহৃতা ও ধর্ষিতা কলেজ ছাত্রীকে সামাজিক চাপে বাড়িতে ফিরিয়ে দেয় ধর্ষক ও অপহরণকারী ইউনুছ। এ নিয়ে গ্রাম্য সালিশীরা বিষয়টি নিষ্পত্তি করার জন্য সময় চেয়ে নিলে বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়ায় ধর্ষিতা রোমেনা ঘটনার ৬দিন পর গত ৩১ জুলাই লজ্জায় আত্মহত্যা করে।

আত্মহত্যার তিনদিন পর জগন্নাথপুর থানায় ধর্ষণ ও আত্মহত্যায় প্ররোচনা মামলায় ধর্ষক ইউনুছসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন ধর্ষিতার ভাই জুনেদ। মামলা দায়েরর ৯ দিন পেরিয়ে যাওয়ায় চরম হতাশায় রয়েছেন মামলার বাদী ও পরিবারের লোকজন। তাঁদের দাবি আসামীরা প্রভাবশালী হওয়ায় এখনও অধরাই রয়ে গেছে।

আসামীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে জোর দাবি জানিয়েছেন কলেজের শিক্ষার্থীরা। তাদের মধ্যে ছাত্র আকমল হোসেন,  জাবির আহমদ চৌধুরী, এম এ কাসেম, মো. উসমান গনিসহ আরও অনেকেই বলেন, আসামীদের গ্রেফতার করতে পুলিশ গড়িমসি করছে।

তাঁদের গড়িমসির ফলে আসামীরা প্রকাশ্যে রয়েছে। আমরা ইতিমধ্যে শান্তিপূর্ণভাবে মানববন্ধন করেছি এবং শনিবার ক্লাস বর্জন করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছি। তাদেরকে গ্রেফতার না করা পর্যন্ত আমরা কলেজ শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালিয়ে যাব।

আসামীদের গ্রেফতার করতে পুলিশ সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জগন্নাথপুর থানার সাব ইন্সপেক্টর লুৎফুর রহমান জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, আসামীদের গ্রেফতার করার স্বার্থে তথ্য প্রদানকারীকে আমাদের পুলিশের পক্ষ থেকে পুরস্কারের ঘোষনাও দেয়া হয়েছে।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • সিকান্দারের ব্যাটিং নৈপুণ্যে : স্বাগতিকরা ৪০ রানে হারিয়েছে সিলেট সিক্সার্সকেইরানের সর্বোচ্চ নেতা খামেনি মধ্যপ্রাচ্যের ‘নয়া হিটলার’ : সৌদি যুবরাজবঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের স্বীকৃতি যথাযথ মর্যাদায় সারা দেশে উদযাপন আজআওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের মানুষের সত্যিকার উন্নতি হয় : প্রধানমন্ত্রী দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন শেষ হয়েছেজার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও
  • সিকান্দারের ব্যাটিং নৈপুণ্যে : স্বাগতিকরা ৪০ রানে হারিয়েছে সিলেট সিক্সার্সকেইরানের সর্বোচ্চ নেতা খামেনি মধ্যপ্রাচ্যের ‘নয়া হিটলার’ : সৌদি যুবরাজবঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের স্বীকৃতি যথাযথ মর্যাদায় সারা দেশে উদযাপন আজআওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের মানুষের সত্যিকার উন্নতি হয় : প্রধানমন্ত্রী দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন শেষ হয়েছেজার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও
উপরে