প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০২:১১:২২
টাঙ্গাইলে ৬ মাসেও শিক্ষক দম্পতি হত্যাকারীরা অধরা : পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ
বাংলাদেশ বাণী, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : দীর্ঘ ছয় মাসেও টাঙ্গাইলে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক অনিল কুমার দাশ ও তার স্ত্রী কল্পনা দাশের হত্যাকারীদের সনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ। এ নিয়ে অনেকটা হতাশার মধ্যে রয়েছে নিহতের পরিবারের লোকজন ও এলাকাবাসী। এখন পর্যন্ত এ হত্যা মামলার কোন নির্ধারিত আসামীকে ধরতে না পারলেও বিভিন্ন ভাবে তদন্ত করছেন এবং দ্রুত আসামীদের ধরা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ প্রশাসন।
 
এদিকে মামলার কি অবস্থা তা দেখার জন্য নিহতের বাড়ি পরিদর্শন ও এলাকাবাসীর সাথে আলাপ করেন ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আকতারুজ্জামান। দীর্ঘদিন ধরে এ হত্যা মামলার কোন আসামীকে সনাক্ত করতে না পারায় ডিআইজি’র আদেশে তিনি এখানে আসেন বলে জানা গেছে।
 
এলাকাবাসী জানায়, তারা খুব ভালো মানুষ ছিলেন। আমরা কখনো তাদের সাথে কারো বিরোধ দেখিনি। তারপরও কেন তাদের হত্যা করলো। কারাই বা এ হত্যার সাথে জড়িত আছে তাও জানি না। প্রশাসন থেকে এখন পর্যন্ত কোন আসামী ধরতে পারেনি। এ অবস্থায় আমরাও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এ এলাকার মানুষ অনেক আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। সরকারের কাছে আমাদের দাবি একটাই দ্রুত এ হত্যাকারীদের ধরে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করুন।
 
গালা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রাজকুমার সরকার বলেন, আমার এলাকায় এমন হত্যাকান্ড এর আগে হয়নি। তবে তিনি অনেক ভালো মানুষ ছিলেন। তারমত মানুষ পাওয়া যাবে না। তিনি যতদিন শিক্ষকতা করেছেন তার প্রতি কোন প্রকার অভিযোগ উঠেনি। তার এ ঘটনায় আমরাও মর্মাহত। কিন্তু কি কারনে তাকে ও তার স্ত্রীকে হত্যা করা হলো এটা আমরা কেউ বুঝতে পারছি না। তবে আমরা চাই প্রশাসনের দিক থেকে আরো দ্রুত এ হত্যার সাথে জড়িতদের খুজে বের করে শাস্তির ব্যবস্থা করা।
 
২নং গালা ইউনিয়নের ৬নং ওর্য়াড মেম্বার আ সামাদ মিয়া বলেন, এতোদিন হয়ে গেলো কিন্তু এখনো কোন আসামী ধরা পড়লো না। আমরা এলাকাবাসীও চেষ্ঠা করছি এর সাথে যদি কেউ জড়িত থাকে তাহলে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেব।
 
রসুলপুর বাছিরন নেছা উচ্চ বিদালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ও নিহতের কাকাতো ভাই নিবারণ দাস বলেন, তার সাথে কারো কোন বিরোধ-বিবাদ ছিলো না। এতোবছর ধরে এখানে আছে কেউ বলতে পারবে না তিনি কারো সাথে জগড়া করেছেন কিনা। কিন্তু কেন তাকে খুন করা হলো। এ ঘটনার পর থেকে আমরাও অনেক আতঙ্কে আছি। তারমত মানুষ খুন হয়ে গেল তার কোন বিচার না হলে আমাদের কি হবে।
 
নিহত শিক্ষক দম্পতির ছেলে নির্মল কুমার দাশ বলেন, এতদিন হয়ে গেল কিন্তু এখন পর্যন্ত আমার বাবা-মার হত্যাকারীদের ধরতে পারছে না পুলিশ। এতে আমি এবং আমার পরিবারের অনান্য সদস্যরা হতাশার মধ্যে রয়েছি। আর কতদিন হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতরা ছাড় পাবে। তবে প্রশাসন থেকে যদি দ্রুত তদন্ত করে তাহলে হত্যাকারীদের দ্রত বের করা সম্ভব।
 
নিহত শিক্ষক দম্পতির মেয়ে অঞ্জনা দাস মুঠোফোনে জানায়, আমাদের সাথে বাইরের কারো কোন বিরোধ ছিলো না। যা ছিল তা আমাদের আত্মীয়দের মধ্যেই। আমি দেশের বাইরে থাকি এবং আমার ভাই ঢাকায় ভালো চাকরি করে এ সুযোগ নিয়ে আমাদের আত্মীয় স্বজনরা সব সময় নিতে চেয়েছে। বাবা-মার কাছে শুনেছি স্বপন কাকা মাঝে মাঝে বাড়িতে গিয়ে টাকা চাইতো। না দিলে হুমকি দিতো। আর আমার বাবা কোনদিন সন্ধ্যার পরে বাজারে যেত না। কিন্তু ঘটনার দিন আনন্দ কাকা আমার বাবাকে বাজারে যেতে বলেছিল। তারপর থেকে আর কেউ আমার বাবাকে দেখেনি। পরে বাবা ও মার লাশ পাওয়া যায় বাড়ির সেফটি ট্যাংক থেকে। এটা কোন বাইরের কাজ না। এটা আমাদের মধ্যেই কেউ করেছে। 
 
টাঙ্গাইল গোয়েন্দা পুলিশের ওসি (উত্তর) নাজমুল হক ভূইয়া বলেন, আমরা আমাদের মত করে খুব দ্রুত গতিতে কাজ করে যাচ্ছি। এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত সন্দেহে আমরা অনেকেই আটক করেছিলাম। কিন্তু এখন পর্যন্ত হত্যার সাথে জড়িত এমন কাউকে পাইনি। তবে দ্রুত তাদের ধরে আইনের আতত্তায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।
 
উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২৭ জুলাই বৃহস্পতিবার টাঙ্গাইল সদর উপজেলার গালা ইউনিয়নের রসুলপুরে সেফটি ট্যাংক থেকে রসুলপুর বাছিরন নেছা উচ্চ বিদালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক অনীল কুমার দাশ (৬৫) ও তার স্ত্রী কল্পনা দাশ (৫৫) এর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এই ব্যাপারে পরের দিন শুক্রবার সন্ধ্যায় নিহত দম্পতির ছেলে নির্মল কুমার দাশ বাদী হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামী করে টাঙ্গাইল মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
সর্বশেষ সংবাদ
  • একনেকর সভায় ১৯ হাজার ৭৭৮ কোটি ৭৩ লাখ টাকা'র ২১টি প্রকল্পের অনুমোদনদক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল থেকে ১'শ কোটি টাকার সুপারি বিদেশে রফতানি হচ্ছেরাতে ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন গ্রেফতার তফসিল ঘোষণার আগেই আলোচনায় বসার আহ্বান জাতীয় ঐক্যফ্রন্টেরজাতীয় সংসদ নির্বাচনে সর্বদলীয় সরকার চায় কয়েকটি বিদেশি দূতাবাস ও প্রতিষ্ঠানইমরুলের সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের উড়ন্ত সূূচনা স্বাগতিক বাংলাদেশের সংসদ নির্বাচনের আচরণ বিধিমালার সংশোধনী অনুমোদন করেছে ইসিআজ শুরু হচ্ছে দশম জাতীয় সংসদের ২৩ তম ও শেষ অধিবেশন সুপার শপ প্রিন্স বাজারের কাণ্ডজ্ঞান : শারদীয় অফারে গরুর মাংসের মূল্যছাড় !ইয়াবা সাম্রাজ্যে'র তালিকার শীর্ষে আবারো আলোচিত সাংসদ বদি'র নাম ! আওয়ামীলীগের এবারের নির্বাচনী ইশতেহারে থাকছে নতুন চমকশ্রদ্ধা-ভালবাসা আর শোকাশ্রু'তে কিংবদন্তি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুকে চির বিদায়নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৫ তম জন্মদিন উদযাপিত ‘দেশের অপরাধীদের জন্য অশনি সংকেত অপেক্ষা করছে’: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণাআগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জঙ্গিবাদ কোন প্রভাব ফেলতে পারবে না : আইজিপি সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকারবাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে ৫টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরএনটিআরসিএ'র নতুন চেয়ারম্যান পদে আশফাক হোসেনকে নিয়োগ দিয়েছে সরকারমানুষের স্বচ্ছতা বাড়ায় প্রতিবছর দেশে পূজা মণ্ডপ বাড়ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • একনেকর সভায় ১৯ হাজার ৭৭৮ কোটি ৭৩ লাখ টাকা'র ২১টি প্রকল্পের অনুমোদনদক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল থেকে ১'শ কোটি টাকার সুপারি বিদেশে রফতানি হচ্ছেরাতে ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন গ্রেফতার তফসিল ঘোষণার আগেই আলোচনায় বসার আহ্বান জাতীয় ঐক্যফ্রন্টেরজাতীয় সংসদ নির্বাচনে সর্বদলীয় সরকার চায় কয়েকটি বিদেশি দূতাবাস ও প্রতিষ্ঠানইমরুলের সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের উড়ন্ত সূূচনা স্বাগতিক বাংলাদেশের সংসদ নির্বাচনের আচরণ বিধিমালার সংশোধনী অনুমোদন করেছে ইসিআজ শুরু হচ্ছে দশম জাতীয় সংসদের ২৩ তম ও শেষ অধিবেশন সুপার শপ প্রিন্স বাজারের কাণ্ডজ্ঞান : শারদীয় অফারে গরুর মাংসের মূল্যছাড় !ইয়াবা সাম্রাজ্যে'র তালিকার শীর্ষে আবারো আলোচিত সাংসদ বদি'র নাম ! আওয়ামীলীগের এবারের নির্বাচনী ইশতেহারে থাকছে নতুন চমকশ্রদ্ধা-ভালবাসা আর শোকাশ্রু'তে কিংবদন্তি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুকে চির বিদায়নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৫ তম জন্মদিন উদযাপিত ‘দেশের অপরাধীদের জন্য অশনি সংকেত অপেক্ষা করছে’: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণাআগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জঙ্গিবাদ কোন প্রভাব ফেলতে পারবে না : আইজিপি সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকারবাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে ৫টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরএনটিআরসিএ'র নতুন চেয়ারম্যান পদে আশফাক হোসেনকে নিয়োগ দিয়েছে সরকারমানুষের স্বচ্ছতা বাড়ায় প্রতিবছর দেশে পূজা মণ্ডপ বাড়ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
উপরে