প্রকাশ : ২৩ জানুয়ারি, ২০১৭ ১০:০০:৪৯
দুই দেশকেই সমঝোতায় পৌঁছাতে হবে
ঢাকা : এটা খুবই আশাব্যঞ্জক খবর যে দীর্ঘদিন পর মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার খুলে যাচ্ছে বাংলাদেশিদের জন্য। বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগের ব্যাপারে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে দেশটি। বাংলাদেশের অন্যতম জনশক্তি আমদানিকারক দেশ হচ্ছে মালয়েশিয়া। অনেকদিন শ্রমিক নেয়া বন্ধ থাকায় বাংলাদেশ একটি বড় শ্রমবাজার হারাচ্ছিল। অবশেষে দরজা খুলে গেল। এখন দুই দেশকেই এ ব্যাপারে আন্তরিকতা নিয়ে এগোতে হবে।
২০ জানুয়ারি মালয়েশিয়া সফরে থাকা পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম আনুষ্ঠানিকভাবে মালয়েশিয়ায় শ্রমবাজার উন্মোচনের খবরটি জানান। রোহিঙ্গা ইস্যুতে ওআইসি এর বিশেষ সম্মেলনে যোগদান শেষে শ্রমবাজার ইস্যু নিয়ে দু’দেশের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের পর তিনি এ ঘোষণা দেন। এ সপ্তাহ থেকে অনলাইনের মাধ্যমে মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রফতানির প্রক্রিয়া শুরু হবে। ইতোমধ্যে ছয় হাজার শ্রমিকের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সত্যায়ন করা হয়েছে। ধাপে ধাপে এ মাসেই আরও ৫০ হাজার শ্রমিকের কাগজপত্র সত্যায়ন হবে। বাংলাদেশি শ্রমিকরা যাতে বেশি করে মালয়েশিয়ায় যেতে পারে, অগ্রাধিকার পায়, সে ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে হবে।  
এর আগে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর ২০১৩ সালে ‘জি টু জি’ পদ্ধতিতে বাংলাদেশ থেকে জনশক্তি নিতে শুরু করে মালয়েশিয়া। সে অনুযায়ী শুধু সরকারিভাবে মালয়েশিয়ার ‘প্লান্টেশন’ খাতে শ্রমিক পাঠানো হচ্ছিল। এখাতে কাজ করতে আগ্রহীর সংখ্যা কম হওয়ায় ওই উদ্যোগে আশানুরূপ সাড়া মেলেনি। পরে মালয়েশিয়ায় জনশক্তির জন্য বাংলাদেশ ‘সোর্স কান্ট্রির’ তালিকায় এলে সেবা, উৎপাদন ও নির্মাণসহ অন্যান্য খাতে বাংলাদেশি কর্মী নেওয়ার সুযোগ তৈরি হয়। মালয়েশিয়া সরকার তাদের পাঁচটি খাতে সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ের সমন্বয়ে ‘জিটুজি প্লাস’ পদ্ধতিতে বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিতে রাজি হওয়ার পর গত ১৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় দুই দেশের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। কিন্তু ২৪ ঘন্টা পার হবার আগেই সেই চুক্তি স্থগিত করে মালয়েশিয়া। যেটা ছিল খুবই দু:খজনক।  
এ ধরনের পরিস্থিতি কোনো দেশের জন্যই মঙ্গলজনক নয়। সভ্যতার ইতিহাস অভিবাসনের ইতিহাস। যেখানে প্রয়োজন আছে মানুষ সেখানে যাবে। এ জন্য কাজের সুযোগ করে দিতে হবে। মালয়েশিয়ারও কর্মী প্রয়োজন। বাংলাদেশেরও কর্মী পাঠানোর সুযোগ রয়েছে। এ অবস্থায় দুই দেশকেই সমঝোতায় পৌঁছাতে হবে।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • আজ পবিত্র ঈদ-ই মিলাদুন্নবী (সা.) : রাষ্টপতি ও প্রধানমন্ত্রী’র পৃথক বাণীবিদেশি টিভি চ্যানেলে দেশিপণ্যের বিজ্ঞাপন প্রচার অবিলম্বে বন্ধের নির্দেশ রাজধানীতে ট্রাফিক আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ট্রাফিক বিভাগের অভিযানআগামী বুধবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) : পক্ষকালব্যাপী অনুষ্ঠানমালানাজমুল হুদার আপিল খারিজ করে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশঐক্যফ্রন্টে ফাঁটল ! তারেক জিয়া মুল নেতৃত্বে ড. কামাল কর্তৃত্বহীনভারতের পূর্বাঞ্চলীয় উপকূলে ঘূর্ণিঝড় গাজা'র আঘাতে মৃতের সংখ্যা ৩৩ জনতারেকের ভিডিও কনফারেন্সের বিষয়ে আইন পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবে ইসি কমিশন চায় না নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হোক : সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের প্রতি ইসিনয়া পল্টনে পুলিশের ওপর অতর্কিত আক্রমণ ছিল পূর্ব পরিকল্পিত : ডিএমপি কমিশনার জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ৭-১০ দিন আগে মাঠে সেনা মোতায়েন থাকবে : ইসি সচিবঢাকা টেস্ট : জিম্বাবুয়েকে ২১৮ রানে বিধ্বস্ত করলো স্বাগতিক বাংলাদেশনির্বাচন পেছানোর আর সুযোগ নেই : ইসি সচিবকোন প্রার্থী যেন বঞ্চিত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে : সিইসিঢাকা টেস্ট : জয়ের জন্য বাংলাদেশের দরকার ৮ উইকেট দলীয় সরকারের অধীনে থেকে এবারের নির্বাচন ইতিহাস সৃষ্টি করবে : সিইসিজাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ পেছানোর সিদ্ধান্ত আজনতুন রাজনৈতিক জোট ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট’ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবেজাতীয় সংসদ নির্বাচনে আ’লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রথম দিনে ১৭শ’ সংগ্রহ ১৪ নভেম্বর মধ্যে নির্বাচনের প্রার্থীদের আগাম প্রচার সামগ্রী অপসারণের নির্দেশ ইসি’র
  • আজ পবিত্র ঈদ-ই মিলাদুন্নবী (সা.) : রাষ্টপতি ও প্রধানমন্ত্রী’র পৃথক বাণীবিদেশি টিভি চ্যানেলে দেশিপণ্যের বিজ্ঞাপন প্রচার অবিলম্বে বন্ধের নির্দেশ রাজধানীতে ট্রাফিক আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ট্রাফিক বিভাগের অভিযানআগামী বুধবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) : পক্ষকালব্যাপী অনুষ্ঠানমালানাজমুল হুদার আপিল খারিজ করে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশঐক্যফ্রন্টে ফাঁটল ! তারেক জিয়া মুল নেতৃত্বে ড. কামাল কর্তৃত্বহীনভারতের পূর্বাঞ্চলীয় উপকূলে ঘূর্ণিঝড় গাজা'র আঘাতে মৃতের সংখ্যা ৩৩ জনতারেকের ভিডিও কনফারেন্সের বিষয়ে আইন পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবে ইসি কমিশন চায় না নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হোক : সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের প্রতি ইসিনয়া পল্টনে পুলিশের ওপর অতর্কিত আক্রমণ ছিল পূর্ব পরিকল্পিত : ডিএমপি কমিশনার জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ৭-১০ দিন আগে মাঠে সেনা মোতায়েন থাকবে : ইসি সচিবঢাকা টেস্ট : জিম্বাবুয়েকে ২১৮ রানে বিধ্বস্ত করলো স্বাগতিক বাংলাদেশনির্বাচন পেছানোর আর সুযোগ নেই : ইসি সচিবকোন প্রার্থী যেন বঞ্চিত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে : সিইসিঢাকা টেস্ট : জয়ের জন্য বাংলাদেশের দরকার ৮ উইকেট দলীয় সরকারের অধীনে থেকে এবারের নির্বাচন ইতিহাস সৃষ্টি করবে : সিইসিজাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ পেছানোর সিদ্ধান্ত আজনতুন রাজনৈতিক জোট ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট’ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবেজাতীয় সংসদ নির্বাচনে আ’লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রথম দিনে ১৭শ’ সংগ্রহ ১৪ নভেম্বর মধ্যে নির্বাচনের প্রার্থীদের আগাম প্রচার সামগ্রী অপসারণের নির্দেশ ইসি’র
উপরে