প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল, ২০১৭ ০২:১১:০২
প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর দেশের জন্য সার্বিক সাফল্য বয়ে আনুক
বাংলাদেশ বাণী, ৯ এপ্রিল, ঢাকা : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চার দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ভারত গিয়েছেন। মার্চের শেষ দিকে এ সফর চূড়ান্ত হওয়ার পর থেকে প্রধানমন্ত্রীর সফরকে ঘিরেই নানা আলোচনা চলছে। সেই আলোচনায় উঠে এসেছে বাংলাদেশের বহুল আলোচিত এবং প্রত্যাশিত তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তির বিষয়টি। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রীর চার দিনের এই সফরে মোট ৩৩টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের প্রস্তুতি রয়েছে বলে পররাষ্ট্র দপ্তর সূত্রে গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে।

তাই প্রধানমন্ত্রীর এই সফরে বাংলাদেশের প্রাপ্তি কী হবে সে বিষয়টিকে ঘিরে দেশবাসীর আগ্রহ ও উদ্বেগের শেষ নেই। প্রধানমন্ত্রীর এই সফরে উভয় দেশের আন্তরিক ও সহযোগিতামূলক সম্পর্ক আরও সম্প্রসারিত হলে সফর সার্থক হবে বিশেষজ্ঞরা এমনটিই মনে করছেন।

আমরা সবাই জানি যে বাংলাদেশ-ভারত প্রতিবেশী দুটি বন্ধুপ্রতিম দেশ। তাই উভয় দেশের মধ্যকার সম্পর্কও বেশ উষ্ণ। তবে স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট কোনো কোনো বিষয়ে যে টানাপড়েন নেই, সেটাও আমরা অস্বীকার করি না। বাস্তবতা হলো, বাংলাদেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট অনেক বিষয়ে ভারত প্রতিশ্রুতি দেয়ার পরও তারা তা পূরণ করতে সমর্থ হয়নি।

আমরা লক্ষ করেছি, সে দেশের সংবিধানে সংশোধনী আনার পরও তিস্তা পানি বণ্টন চুক্তির গতি হয়নি, যা অত্যন্ত পীড়াদায়ক। অথচ নির্বাচিত হয়েই বাংলাদেশ সফরে এসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ ব্যাপারে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। এ ছাড়াও আমরা দেখেছি, দেশটির প্রতিশ্রুত সীমান্ত হত্যা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার ক্ষেত্রেও কোনো অগ্রগতি পরিলক্ষিত হয়নি।

ইতিমধ্যে ট্রানজিট সুবিধাসহ ভারতকে প্রায় সব সুবিধা দেয়া হলেও বাংলাদেশের কাক্সিক্ষত চুক্তিগুলো সম্পাদন এবং সম্পাদিত চুক্তির শতভাগ বাস্তবায়ন না হওয়া এক বেদনাদায়কই বটে। এরপরও ভারতের পররাষ্ট্র দপ্তর থেকে বলা হয়েছে, শেখ হাসিনার এবারের সফর কোনো সাধারণ সফর নয়। আমরাও মনে করি সম্ভাব্য চুক্তিগুলো সম্পাদনের মধ্য দিয়ে উভয় দেশের সম্পর্ক আরও গতিশীলতা লাভ করুক।

আমরা জানি যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সর্বশেষ ২০১০ সালের জানুয়ারিতে ভারত সফর করেন। আর ২০১৫ সালের জুনে বাংলাদেশ সফর করেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এরপর আন্তর্জাতিক নানা বৈঠকে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী পার্শ্ববৈঠক করেছেন বলেও গণমাধ্যমে খবর এসেছে।

এ কথা অস্বীকার করার সুযোগ নেই যে, বাংলাদেশ-ভারতের পারস্পরিক সম্পর্কের মধ্যে তিস্তা নদীর পানি বণ্টন চুক্তি শেলের মতো বিঁধে রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর এই সফরে নীতিমালা অনুসরণ করে দুই দেশের মধ্যে অন্যান্য চুক্তির সঙ্গে বহুপ্রতীক্ষিত তিস্তা চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে, এটিও দেশবাসীর প্রত্যাশা। এটা ঠিক যে, দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বের স্বার্থে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়া এখন একটি অত্যাবশ্যকীয় শর্ত হয়ে উঠেছে।

তথ্যমতে, তিস্তা চুক্তিতে অনীহা প্রকাশ করা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন। আমরা আশা করব, ভারত বিষয়টি অত্যন্ত আন্তরিকতার সঙ্গেই দেখবে।
জানা যায়, অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক ঐকমত্য প্রতিষ্ঠিত না হওয়ায় তিস্তা চুক্তি অনিশ্চতায় পড়েছে বলে ভারতের পররাষ্ট্র সূত্র উল্লেখ করেছে। তাই তিস্তা চুক্তি প্রসঙ্গে ভারত এই প্রসঙ্গটিই বার বার সামনে আনে।

সুতরাং এমন ভাবনা অযৌক্তিক নয় যে, এটাকে পুঁজি করে বাংলাদেশকে কৌশলে বঞ্চিত করছে দেশটি। সদিচ্ছা থাকলে দেশের প্রতিশ্রুতি রক্ষার্থে রাজনৈতিক মতপার্থক্য দূর হওয়াও অসম্ভব নয়, এ বিষয়টিও বোদ্ধা মহলে আলোচিত হচ্ছে।

জানা গেছে, সম্ভাব্য ৩৩টি চুক্তি ও সমঝোতার মধ্যে প্রতিরক্ষা খাতে সহযোগিতামূলক চারটি সমঝোতা স্মারক রয়েছে। ভারতের প্রতিশ্রুতি সত্ত্বেও তিস্তা চুক্তি না হয়ে বাংলাদেশে যখন মরুকরণ প্রক্রিয়া চলছে, তখন সামরিক সহযোগিতা চুক্তি কতটা গুরুত্বপূণ সে বিষয়টিও বাংলাদেশের ভেবে দেখা উচিত।

সর্বোপরি আমরাও প্রত্যাশা করি, উভয় দেশের পারস্পরিক সম্পর্ক আরও উষ্ণ হোক। ব্যবসা-বাণিজ্য, উন্নয়নসহ অন্যান্য বিষয়ে দুই দেশের সম্পর্ক আরো গতিশীল হোক। এ কথা আমাদের ভুলে গেলে চলবে না যে, বর্তমানে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে সবচেয়ে ভালো। ভারতও বিষয়টি স্বীকার করেছে।

তাই আমাদের প্রত্যাশা, পরস্পরের মধ্যে এবং একই সঙ্গে আঞ্চলিক ভিত্তিতে সহযোগিতার পথ অনুসরণ করেই যাবতীয় চুক্তি সম্পাদনের পথে এগোতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর বর্তমান সফর সার্বিক সাফল্য বয়ে আনুক, এটাই আমাদের কামনা।
সর্বশেষ সংবাদ
  • আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে যাতায়াতের রুটম্যাপ প্রণয়নবিশ্ব ভালবাসা দিবসে অমর একুশের গ্রন্থমেলায় দর্শনার্থীদের ঢলশেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ নির্ধারিত সময়ের আগেই উন্নত দেশে পরিণত হবে : সরকারি দলরোহিঙ্গা শরণার্থী সমস্যা নিরসনে ইইউ বাংলাদেশের প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখবে টাঙ্গাইলের মধুপুরে চাঞ্চল্যকর রূপা ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় ৪ জনের ফাঁসি’র আদেশআদালতের আদেশ অনুযায়ী কারাগারে ডিভিশন পেলেন খালেদা জিয়াভারতীয় গণমাধ্যমের মন্তব্য খালেদার দণ্ড হাসিনাকে শক্তিশালী করেছেএকুশের বই মেলায় প্রাণ এসেছে : বেড়েছে বিক্রি জনগণের জানমাল রক্ষায় যতদিন প্রয়োজন ততদিনই পুলিশি নিরাপত্তা থাকবে : আইজিপি‘রায়ের কপি হাতে পেলেই হাইকোর্টে আপিল করা হবে’তারেকসহ অন্যদের ১০ বছর কারাদন্ড-জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় রায় : সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার ৫ বছর জেল ভীত হবেন না : আশ্বস্ত করছি ৮ ফেব্রুয়ারি কিছু হবে না : আইজিপি রাষ্ট্রপতি পদে এ্যাড. মো. আবদুল হামিদের পক্ষে মনোনয়নপত্র দাখিলবিএডিসি ও পিআইবি আইনের খসড়া অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভাবিএনপিসহ সবদল একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে : সিইসি'র আশাবাদরাষ্ট্রপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনকে প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ চূড়ান্ত করেছেনরক্তঋনে কেনা, কারো দানে নয় ! ‘অমর একুশের সিঁড়ি বেয়ে আমার বাংলা মায়ের কোল’শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন জনগণের দোরগোড়ায় পৌছে যাচ্ছে : বাহাদুর বেপারীশুরু হলো বাংলা একাডেমিতে মাসব্যাপী অমর একুশে গ্রন্থমেলারক্তঋনে কেনা, কারো দানে নয়! ‘অমর একুশের সিঁড়ি বেয়ে আমার বাংলা মায়ের কোল’
  • আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে যাতায়াতের রুটম্যাপ প্রণয়নবিশ্ব ভালবাসা দিবসে অমর একুশের গ্রন্থমেলায় দর্শনার্থীদের ঢলশেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ নির্ধারিত সময়ের আগেই উন্নত দেশে পরিণত হবে : সরকারি দলরোহিঙ্গা শরণার্থী সমস্যা নিরসনে ইইউ বাংলাদেশের প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখবে টাঙ্গাইলের মধুপুরে চাঞ্চল্যকর রূপা ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় ৪ জনের ফাঁসি’র আদেশআদালতের আদেশ অনুযায়ী কারাগারে ডিভিশন পেলেন খালেদা জিয়াভারতীয় গণমাধ্যমের মন্তব্য খালেদার দণ্ড হাসিনাকে শক্তিশালী করেছেএকুশের বই মেলায় প্রাণ এসেছে : বেড়েছে বিক্রি জনগণের জানমাল রক্ষায় যতদিন প্রয়োজন ততদিনই পুলিশি নিরাপত্তা থাকবে : আইজিপি‘রায়ের কপি হাতে পেলেই হাইকোর্টে আপিল করা হবে’তারেকসহ অন্যদের ১০ বছর কারাদন্ড-জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় রায় : সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার ৫ বছর জেল ভীত হবেন না : আশ্বস্ত করছি ৮ ফেব্রুয়ারি কিছু হবে না : আইজিপি রাষ্ট্রপতি পদে এ্যাড. মো. আবদুল হামিদের পক্ষে মনোনয়নপত্র দাখিলবিএডিসি ও পিআইবি আইনের খসড়া অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভাবিএনপিসহ সবদল একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে : সিইসি'র আশাবাদরাষ্ট্রপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনকে প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ চূড়ান্ত করেছেনরক্তঋনে কেনা, কারো দানে নয় ! ‘অমর একুশের সিঁড়ি বেয়ে আমার বাংলা মায়ের কোল’শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন জনগণের দোরগোড়ায় পৌছে যাচ্ছে : বাহাদুর বেপারীশুরু হলো বাংলা একাডেমিতে মাসব্যাপী অমর একুশে গ্রন্থমেলারক্তঋনে কেনা, কারো দানে নয়! ‘অমর একুশের সিঁড়ি বেয়ে আমার বাংলা মায়ের কোল’
উপরে