প্রকাশ : ২৮ এপ্রিল, ২০১৭ ০৮:০৪:৪৩
রাজধানীতে জলাবদ্ধতা : এই পরিস্থিতির শেষ কোথায়?
বাংলাদেশ বাণী, ২৮ এপ্রিল, ঢাকা : রাজধানী ঢাকার জলাবদ্ধতার ঘটনান নতুন কোনো ঘটনা নয়। বৃষ্টি হলেই রাজধানীবাসীকে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হবে! যেন এমন বিষয় স্বাভাবিক হয়ে দাঁড়িয়েছে। বলার অপেক্ষা রাখে না যে, প্রতিবছরই দেখা যায় বর্ষা মৌসুমে একটু বৃষ্টিতেই রাজধানী ঢাকায় জলাবদ্ধতাকে কেন্দ্র করে স্বাভাবিক জীবন বিপন্ন হয়ে পড়ে।

অথচ সার্বিক অর্থেই একটি দেশের রাজধানীর এ অবস্থা কাম্য হতে পারে না। বলাই বাহুল্য, রাজধানী ঢাকায় বৃষ্টিকে কেন্দ্র করে সৃষ্টি হওয়া জলাবদ্ধতার প্রধান কারণ হলো অপরিকল্পিত নগরায়ণ, যেখানে বৃষ্টির পানি পড়লেই তা আটকে থাকে।

এ ছাড়া জলাবদ্ধতা নিরসনে নানা রকম পদক্ষেপ গ্রহণের কথা আলোচিত হলেও, মানুষের দুর্ভোগ শেষ হয় না। বৃষ্টি আসে, আর মানুষের জীবনে নেমে আসে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত ক'দিনের টানা ভারী বর্ষণে পুরো দেশের বিভিন্ন এলাকার জীবনযাত্রা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে যেমন, তেমনি বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়ে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। আর এই বৃষ্টিকে কেন্দ্র করে রাজধানীবাসীর জীবনেও নেমে এসেছে দুর্ভোগ।

দেশের গণমাধ্যমে প্রকাশিত এসংক্রান্ত খবরে জানা যায়, মৌচাক-মগবাজার ফ্লাইওভার প্রকল্প এলাকায় তিন মাস ধরে শান্তিনগর চৌরাস্তা থেকে মালিবাগ, মৌচাক হয়ে আবুল হোটেল পর্যন্ত সড়কে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়েছে। আর গত তিন দিনের বৃষ্টিপাতের পর সড়কে পানি আরও বেড়েছে। সেই সঙ্গে সড়কে তৈরি হয়েছে অসংখ্য খানাখন্দ, যাতে প্রায়ই যানবাহন বিকল হচ্ছে, ঘটছে দুর্ঘটনা।

জানা যাচ্ছে, রিকশাযোগে যেতে যেতে রিকশা উল্টে পানিতে পড়ার ঘটনা যেমন ঘটেছে, তেমনি অনেকক্ষণ অপেক্ষা করেও কিছু না পেয়ে হেঁটে যেতে হয়েছে গন্তব্যে। রাস্তাঘাটের পরিস্থিতিও এমন যে, গত কয়দিনের বৃষ্টিতে শান্তিনগর থেকে মালিবাগ চৌরাস্তা পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে কোনো কোনো অংশে হাঁটু পানি।

এ ছাড়া মৌচাক থেকে মালিবাগ রেল ক্রসিং হয়ে আবুল হোটেল পর্যন্তও অনেক জায়গায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া ফ্লাইওভারের কাজ শুরু হওয়ার পর থেকেই ওই এলাকার বাসিন্দাদের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে বলেও অভিযোগ অনেকের। আর ভাঙাচোরা সড়কটিতে পানি জমে থাকায় প্রতিদিন যানজট সৃষ্টি হচ্ছে স্বাভাবিকভাবেই। এ ছাড়া রাজধানীর আরো অনেক এলাকায়ই বৃষ্টির পানির কারণে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়েছে, কর্মস্থলে যোগ দিতে পোহাতে হয়েছে দুর্ভোগ।

আমরা মনে করি, একটি দেশের রাজধানীর এই চিত্র কাম্য হতে পারে না। সংশ্লিষ্টদের সৃষ্টি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে যত দ্রুত সম্ভব প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিশ্চিত করা জরুরি। প্রতিবারই এই মৌসুমে বৃষ্টি হবে আর বৃষ্টির কারণে রাস্তায় রাস্তায় হাঁটু পানি জমবে, জলজট থেকে অনিবার্য যানজট সৃষ্টি হবে।

নানা ধরনের ভোগান্তিতে পড়বে মানুষ। এই পরিস্থিতির শেষ কোথায় তা সংশ্লিষ্টদের ভাবতে হবে। কেননা প্রতিবারই নিম্নাঞ্চল ছাড়াও ব্যস্ততম সড়কগুলোয়ও পানি জমে থাকার কারণে নগরবাসীর জীবনে নেমে আসে চিরচেনা হতাশা আর অস্বাভাবিক পরিস্থিতি এর নিরসন হওয়া আবশ্যক।

সংশ্লিষ্টদের আমলে নেয়া জরুরি, জলাবদ্ধতার বিভিন্ন কারণের অন্যতম একটি হলো এ সময়গুলোয় প্রতিবছরই নগরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ির হিড়িক পড়ে যায়, ফলে জলাবদ্ধতায় নতুন মাত্রা যোগ হয়। নগর পরিকল্পনাবিদ ও বিশেষজ্ঞদের মতে, অপরিকল্পিত নগরায়ণের কুফল ভোগ করছে রাজধানীর এই বিপুলসংখ্যক মানুষ।

আমরা বলতে চাই, এত মানুষের এই দুর্ভোগ যদি রাজধানীতে প্রতিবারই সৃষ্টি হয়, আর এর পরেও যদি যথাযথ পদক্ষেপ নিশ্চিত না হয় তবে তা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। আমরা মনে করি, সামগ্রিক পরিস্থিতি সাপেক্ষে যতদ্রুত সম্ভব রাজধানীর এই জলাবদ্ধতা যেভাবে ঘটে চলেছে, তা নিরসনে সঠিক উদ্যোগ নেয়া।

সর্বোপরি আমাদের সাফ কথা, অতীতের ভুলের মাশুল এখন দিতে হচ্ছে রাজধানীবাসীকে। অপরিকল্পিত ব্যবস্থাপনায় নগর গড়ে উঠলে এর নেতিবাচক প্রভাব কত সমস্যাকীর্ণ হতে পারে, জলাবদ্ধতা এর একটি অন্যতম উদাহরণ।

ফলে, রাজধানীবাসীকে জলাবদ্ধতার অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে হলে সরকারের বিচক্ষণতার সঙ্গে সঠিক পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়নে উদ্যোগী হতে হবে। আবর্জনাসহ ভরাট হয়ে যাওয়া জলাধারগুলো সচলের ব্যবস্থা করতে হবে। জলাবদ্ধতা নিরসনের ক্ষেত্রে সামগ্রিক সংকটগুলো চিহ্নিত করতে হবে। রাজধানীবাসীকে জলাবদ্ধতার মতো দুর্ভোগ থেকে বাঁচাতে যতদ্রুত সম্ভব কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ ও তার বাস্তবায়ন নিশ্চিত হবে এমনটি আমাদের প্রত্যাশা।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • সমগ্র জাতির পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদনগোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় জাতির জনকের সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধাবাংলাদেশকে দ্বিতীয় পাকিস্তান বানাতে খুনি মুশতাক-জিয়া অনেক অপকর্ম করেছে : শেখ সেলিমবঙ্গবন্ধু স্মরণে শেখ হাসিনা রচিত “শেখ মুজিব আমার পিতা” আজ সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু'র শাহাদতবার্ষিকীআজ শোকাবহ ১৫ আগষ্ট : আমাদের বিনম্র শ্রদ্ধাবরেণ্য সাংবাদিক ও সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার আর নেই‘শেখ মুজিব পালিয়ে যাবে না, মরলে বাংলার মাটিতেই মরবে’৩-০ গোলে নেপালকে উড়িয়ে দিয়ে সেমিতে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলসেই রাতের বর্ণণা ❏ ঘাতকদের মুখোমুখি হয়েও গর্জে উঠেছিলেন জাতির জনক আগামী ২২ আগস্ট পবিত্র ঈদুল আজহামোমিনুলের বিধ্বংসী ব্যাটিং : জয়ের স্বাদ পেল বাংলাদেশ ‘এ’ দলকোরবানির পশুর চামড়ার দর নির্ধারণ করেছে সরকারবাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের ১৪-০ গোল পাকিস্তানের জালে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের সভায় ১২টি প্রকল্প অনুমোদন আজ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের ৮৮ তম জন্মবার্ষিকীতারেক জিয়ার নীল নকশা বাস্তবায়ন হয়নি : রুখে দিল সরকারমধ্যপাড়া পাথর খনি থেকে ফের ৩ লাখ ৬০ হাজার মেট্রিকটন পাথর উধাওআন্দোলনরত কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের ঘরে ফিরে যাওয়ার আহবান প্রধানমন্ত্রী'র আজ ২২ শ্রাবণ : বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ৭৭ তম মৃত্যুবার্ষিকী
  • সমগ্র জাতির পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদনগোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় জাতির জনকের সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধাবাংলাদেশকে দ্বিতীয় পাকিস্তান বানাতে খুনি মুশতাক-জিয়া অনেক অপকর্ম করেছে : শেখ সেলিমবঙ্গবন্ধু স্মরণে শেখ হাসিনা রচিত “শেখ মুজিব আমার পিতা” আজ সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু'র শাহাদতবার্ষিকীআজ শোকাবহ ১৫ আগষ্ট : আমাদের বিনম্র শ্রদ্ধাবরেণ্য সাংবাদিক ও সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার আর নেই‘শেখ মুজিব পালিয়ে যাবে না, মরলে বাংলার মাটিতেই মরবে’৩-০ গোলে নেপালকে উড়িয়ে দিয়ে সেমিতে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলসেই রাতের বর্ণণা ❏ ঘাতকদের মুখোমুখি হয়েও গর্জে উঠেছিলেন জাতির জনক আগামী ২২ আগস্ট পবিত্র ঈদুল আজহামোমিনুলের বিধ্বংসী ব্যাটিং : জয়ের স্বাদ পেল বাংলাদেশ ‘এ’ দলকোরবানির পশুর চামড়ার দর নির্ধারণ করেছে সরকারবাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের ১৪-০ গোল পাকিস্তানের জালে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের সভায় ১২টি প্রকল্প অনুমোদন আজ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের ৮৮ তম জন্মবার্ষিকীতারেক জিয়ার নীল নকশা বাস্তবায়ন হয়নি : রুখে দিল সরকারমধ্যপাড়া পাথর খনি থেকে ফের ৩ লাখ ৬০ হাজার মেট্রিকটন পাথর উধাওআন্দোলনরত কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের ঘরে ফিরে যাওয়ার আহবান প্রধানমন্ত্রী'র আজ ২২ শ্রাবণ : বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ৭৭ তম মৃত্যুবার্ষিকী
উপরে