প্রকাশ : ১৫ জুন, ২০১৭ ১২:৩২:২৫
ব্রিটিশ-বাঙালি প্রজন্মের বিজয়িনী ‘তিনকন্যা’কে আমাদের অভিনন্দন
বাংলাদেশ বাণী, ঢাকা : আমাদের জন্য আনন্দের খবর এবং গর্বের বিষয় এই যে, গণতন্ত্রের সূতিকাগারখ্যাত ব্রিটিশ পার্লামেন্টের মধ্যবর্তী নির্বাচনেও বিজয় পতাকা তুলে ধরেছেন তিন বাঙালি কন্যা। এই কন্যাত্রয় হচ্ছেন রুশনারা আলী, টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক ও ড.রূপা হক। এরা তিনজনই লেবার পার্টির হয়ে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের এমপি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন।

প্রথম ব্রিটিশ-বাংলাদেশি হিসেবে দেশটির পার্লামেন্টে যান সিলেটের মেয়ে বাঙালি কন্যা রুশনারা আলী। তিনি এবার টানা তৃতীয়বারের মতো বিজয়ী হয়েছেন। আর টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক ও ড. রূপা হক দ্বিতীয়বারের মতো এমপি নির্বাচিত হলেন। মধ্যবর্তী এ নির্বাচনে ৫জন স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মোট ১৪ জন প্রার্থী লড়াই করলেও বিজয়ী হয়েছেন তিন বাঙালি কন্যা।

বাংলাদেশ ছাড়িয়ে ব্রিটেনের পার্লামেন্টে বাঙালি নারী নেতৃত্ব আমাদের জন্য অন্যন্ত গৌরবের। তাই ব্রিটিশ-বাঙালি প্রজন্মের বিজয়িনী এই ‘তিনকন্যা’কে আমরা অভিনন্দন জানাই।

বাস্তবতা হলো এই যে, বিশ্বের অন্যান্য দেশের নারীদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাঙালি নারীও আজ অনেকদূর এগিয়েছেন। মেধা, দক্ষতা ও মননের সৌকর্যে প্রতিনিধিত্ব করছেন রাজনীতি, অর্থনীতি, চিকিৎসা-শিক্ষা, কৃষি, বিজ্ঞান, আইন-মানবাধিকার, প্রকৌশলসহ সব ক্ষেত্রে। এর আগেও আন্তর্জাতিক রাজনীতির পরিম-লে বাঙালি নারীরা সম্মান কুড়িয়েছেন।

এরই ধারাবাহিকতায় বাঙালিকে এবারও নতুন গর্বের সঙ্গী করলেন রুশনারা আলী, রূপা হক ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক। যুক্তরাজ্যের মধ্যবর্তী এ নির্বাচন নিয়ে লন্ডনের বাঙালি কমিউনিটির পাশাপাশি প্রবাসী বাঙালিদের মধ্যেও শুরু থেকেই এক ধরনের ঔৎসুক্য ছিল।

অন্যদিকে মধ্যবর্তী এ নির্বাচনে কনজারভেটিভ, না লেবার কোন পার্টি বিজয়ী হচ্ছে তার চেয়েও বিশ্ববাসীর বিশেষ মনোযোগ ছিল বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তিন ব্রিটিশ নারী নাগরিকের ব্যাপারে। আর বাংলাদেশের মানুষের নজর ছিল এই তিনকন্যার প্রতি। অবশেষে ভোটারদের সমর্থন পেয়ে সে প্রত্যাশা পূরণ করেছেন এই তিন কন্যা। বিপুল ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন তারা।

বলার অপেক্ষা রাখে না যে, ব্রিটেন বিশ্বের উন্নত রাষ্ট্রগুলোর একটি। এর পরও ব্রিটেনের মতো দেশেও ধর্মান্ধগোষ্ঠী মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। নির্বাচনের এক মাসের মধ্যে দুই দফায় দেশটিতে জঙ্গি হামলার ভয়াবহ ঘটনা ঘটেছে। তবে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানভিত্তিক রাজনীতিকে ব্রিটেনের জনগণ আগেই প্রত্যাখ্যান করেছে এবং তাদের এ কর্মকাণ্ডের ভেতর দিয়ে রাজনীতিতে বাঙালির অগ্রযাত্রার নতুন দিগন্ত সূচিত হয়েছে বলেই মনে করা যেতে পারে। আর এ অগ্রযাত্রায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিন বাঙালি নারী।

উল্লেখ্য যে, অতীতে আমাদের দেশ শাসন করেছে ব্রিটেন, আর এখন সে দেশের পার্লামেন্টে নেতৃত্ব দিচ্ছেন বাঙালি তিন নারী। টিউলিপ রিজওয়ানা সিদ্দিক লন্ডনের উত্তরাঞ্চলীয় হ্যাম্পসটেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসনে, ড. রূপা হক উত্তর-পশ্চিম লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসনে এবং রুশনারা আলী বেন্থাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসনের প্রতিনিধিত্ব করবেন। জানা যায়, ব্রিটেনের রাজনীতি ভিন্ন ঘরানায় পরিচালিত হয়। সে দেশে বিশ্বের বহু দেশের-বহু বর্ণের মানুষ একত্রে বাস করে আসছে।

স্বাভাবিকভাবেই এরা রাজনৈতিক মতাদর্শে ভিন্নমত ও পথের সমর্থক। তবে ব্রিটেনে বাংলাদেশি কমিউনিটির অবস্থান এখন অন্য যে কোনো সময়ের তুলনায় অনেক শক্ত এক ভিতের ওপর প্রতিষ্ঠিত, তা মধ্যবর্তী এ নির্বাচনের ভেতর দিয়েও স্পষ্ট হলো। এ ছাড়া যুক্তরাজ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন সেক্টরে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন বাংলাদেশিরা। ব্যবসা-বাণিজ্য ও সামাজিক কর্মকা সাফল্য পেয়ে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিকরা এখন ধীরে ধীরে ব্রিটেনের মূলধারার রাজনীতিতে সক্রিয় হচ্ছেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তিন নারীর সাম্প্রতিক এই বিজয় গোটা বিশ্বে বাংলাদেশের মর্যাদা বহুলাংশে বৃদ্ধি করেছে বললেও অত্যুক্তি হবে না।

প্রসঙ্গত বলতে চাই, ব্রিটেনের একটি পত্রিকা এর আগে বাঙালি বংশোদ্ভূত নারী নেতৃত্ব নিয়ে গভীর আশাবাদ ব্যক্ত করেছিল। সুতরাং প্রত্যাশা, নির্বাচিত এই নেতারা তাদের রাজনৈতিক প্রজ্ঞা, দূরদর্শিতা এবং বিচক্ষণতার মধ্যদিয়ে ব্রিটিশ-বাঙালি কমিউনিটির সামগ্রিক উন্নয়নে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবেন।

পাশাপাশি উল্লেখ করা প্রয়োজন, ব্রিটেনের গণতান্ত্রিক রাজনীতির বৈশিষ্ট্যগুলো যদি আমাদের দেশের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত করা যায়, তাহলে রাজনীতির গুণগত পরিবর্তন হয়ে আমাদের দেশের গণতন্ত্র আরও সমৃদ্ধ হতে পারে। রাজনীতিকরা বিষয়টি বিবেচনায় নেবেন এমনটিই আমাদের প্রত্যাশা।

 
সর্বশেষ সংবাদ
  • সিকান্দারের ব্যাটিং নৈপুণ্যে : স্বাগতিকরা ৪০ রানে হারিয়েছে সিলেট সিক্সার্সকেইরানের সর্বোচ্চ নেতা খামেনি মধ্যপ্রাচ্যের ‘নয়া হিটলার’ : সৌদি যুবরাজবঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের স্বীকৃতি যথাযথ মর্যাদায় সারা দেশে উদযাপন আজআওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের মানুষের সত্যিকার উন্নতি হয় : প্রধানমন্ত্রী দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন শেষ হয়েছেজার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও
  • সিকান্দারের ব্যাটিং নৈপুণ্যে : স্বাগতিকরা ৪০ রানে হারিয়েছে সিলেট সিক্সার্সকেইরানের সর্বোচ্চ নেতা খামেনি মধ্যপ্রাচ্যের ‘নয়া হিটলার’ : সৌদি যুবরাজবঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের স্বীকৃতি যথাযথ মর্যাদায় সারা দেশে উদযাপন আজআওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের মানুষের সত্যিকার উন্নতি হয় : প্রধানমন্ত্রী দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন শেষ হয়েছেজার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও
উপরে