প্রকাশ : ২৫ জুলাই, ২০১৭ ০২:০৯:২২
ফেসবুকে স্কুলছাত্রীর ধর্ষনের ভিডিও ফাঁস : আসামী অধরা !
বাংলাদেশ বাণী, ফরিদুল মোস্তফা খান, কক্সবাজার থেকে : রামুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করেছে আবছার বিন ছায়েদ (৩০) নামের এক লম্পট। আর ধর্ষণের সেই ভিডিও এবং স্থিরচিত্র ফেসবুক, টুইটারসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছে ওই ধর্ষক। এর আগে সেই ভিডিও ওই ছাত্রীকে দেখিয়ে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভীতি দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে তার কাছ থেকে আদায় করেছে দেড় লক্ষাধিক টাকা।

এই ঘটনায় রামু থানায় ১৮ জুন সেই ছাত্রী বাদী হয়ে আবছারকে একমাত্র আসামী করে একটি মামলাও করেছেন। তবে মামলা করার একমাস পরও আসামীকে আটক করেনি পুলিশ। উল্টো আসামীপক্ষের লোকজনের হুমকিতে সেই স্কুলছাত্রী এখন বাড়ি ছাড়া। এজাহার সূত্র জানায়, রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের তেচ্ছিপুল গ্র্রামের প্রবাসী সৈয়দ নুরের ছেলে আবছার বিন ছায়েদের সাথে দীর্ঘ ২ বছর যাবৎ ভিকটিমের প্রেমের সম্পর্ক ছিল।

সেই সুবাদে ২০১৬ সালের মধ্যভাগ থেকে বিয়ের প্রলোভনে সেই ছাত্রীর শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করে আবছার। এছাড়া ভিকটিমের অজান্তেই নানা মুহৃর্তের অন্তরঙ্গ ছবি ও ভিডিও ধারন করে রাখে ধর্ষক । পরে সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে মামলার বাদীর কাছ থেকে দেড় লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেয় ধর্ষক আবছার। কিন্তু তাতেও ক্ষ্যান্ত হননি সে। উল্টো ভিকটিমের মায়ের স্বর্ণালংকার চুরি করে তাকে দেওয়ার জন্য চাপ দিতে শুরু করে ধর্ষক। কিন্তু তাতে রাজি হয়নি ওই ছাত্রী। আর এটাই কাল হয়ে দায়ী বাদীর জন্য। স্বর্ণ না পেয়ে আবছার এবছরের ২ জানুয়ারি সেই ভিডিও এবং ছবি ভিকটিমের বন্ধু বান্ধব ও আত্মীয়-স্বজনের ম্যাসেঞ্জার, ইমোতে পাঠানোর পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়।

এ বিষয়ে রামু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর সেই ছাত্রী জানান, এ ঘটনার কারনে ১৮ জুন আবছারকে একমাত্র আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন তিনি। তবে সেই মামলা দায়েরের পর থেকে আসামী ও আসামীর ভাইদের হুমকি ধমকি এবং অত্যাচারে তাকে বাড়ি ছাড়তে হয়েছে। তিনি আরো জানান, মামলা করার পর একমাস পেরিয়ে গেলেও পুলিশ তাকে ধরতে কোন অভিযান চালায়নি। এই কারনেই আরো বেপোরেয়া হয়ে উঠেছে ওই ধর্ষক। রামু থানার ওসি লিয়াকত আলী জানান, ভিকটিমের লিখিত এজাহার ও সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া সেই সব ছবি পাওয়ার সাথে সাথে নারী নির্যাতন আইনে আবছারের বিরুদ্ধে একটি মামলা লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। যার নম্বর ২৭।

এ বিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই কালাম আজাদ জানান, আসামী অত্যন্ত ধূর্ত । সে বাড়ি থাকে না। কিন্তু মাঝে মধ্যে এলাকায় আসে। তাকে ধরতে পুলিশ নানা কৌশল অবলম্বন করেছেন। খুব শ্রীঘই তাকে আটক করা হবে। কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফরাজুল হক টুটুল জানান, আসামীকে আটক করতে সময় বেঁধে দিয়ে রামু থানার ওসিকে বিশেষ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

 
সর্বশেষ সংবাদ
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
উপরে