প্রকাশ : ৩০ আগস্ট, ২০১৭ ০২:০১:৪৩
থানায় মামলা-
আমতলীতে ২ ভাই মিলে স্কুলছাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষন : ৩০ হাজার টাকায় মিমাংশার পায়তারা
বাংলাদেশ বাণী, আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি : বরগুনার আমতলী উপজেলার উত্তর রাওঘা গ্রামে এক স্কুলছাত্রীকে দুই চাচাত ভাই ইমরান প্যাদা (১৯) ও জাহিদুল প্যাদা (২০) মিলে ধর্ষন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার সকালে ধর্ষিতা মেয়েটিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য বরগুনা সিভিল সার্জন অফিসে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় ধর্ষিতার নানী বাদী হয়ে থানায় মামলার পর পুলিশী অভিযানের ভঁয়ে আসামীরা ঘর তালাবদ্ধ করে পালিয়েছে।

আমতলী থানা পুলিশ ও মেয়েটির পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, স্কুলছাত্রী তার নানীর বাড়ি উত্তর তক্তাবুনিয়া গ্রামে থেকে লেখাপড়া করত। সে স্থানীয় একটি স্কুলের অষ্টম শ্রেণির অনিয়মিত ছাত্রী। ওই ছাত্রীকে একই গ্রামের বেলাল প্যাদার বখাটে ছেলে ইমরান প্যাদা (১৯) ও খলিল প্যাদার বখাটে ছেলে জাহিদুল প্যাদা  (২০) দীর্ঘদিন ধরে  উত্যক্ত করে আসছে। ইমরান ও খলিল সম্পর্কে তারা দু’জন চাচাত ভাই।

বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১০ টার দিকে স্কুলছাত্রী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে আসে। এ সময় পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা ইমরান ও তার চাচাত ভাই জাহিদুল ওই মেয়েটির মুখ চেপে ধরে পার্শ্ববতী একটি পরিত্যক্ত  ঘরে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষন করে।  পরে বাড়ির লোকজন মেয়েটিকে না পেয়ে খুঁজতে গিয়ে মেয়েটির গোঙানির শব্দ পেয়ে পরিত্যক্ত ওই ঘরের মধ্যে থেকে মুখ বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করে।

এ ঘটনা জানাজানি হলে ধর্ষক ইমরান ও জাহিদুলের বাবা এ ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য স্থানীয় কয়েক জনের শরনাপন্ন হলে তারা ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে ধর্ষনের বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেন। এ টাকায় ধর্ষনের ফায়সালা মেনে নেয়নি ধর্ষিতার নানী। পরে সোমবার এ ঘটনায়  ইমরানকে প্রধান আসামী করে তিনজনের নামে ছাত্রীর নানী বাদী হয়ে আমতলী থানায় একটি ধর্ষন মামলা করেন।

ছাত্রীর নানী জানান, মীমাংসার কথা বলে লিটন চৌকিদারের ঘরে মতি প্যাদা, রফিক প্যাদাসহ কয়েকজন সালিশ বৈঠক বসে। ওই বৈঠকে ইমরান ও জাহিদুলের চাচা রফিক প্যাদা ও মতি প্যাদা ত্রিশ হাজার টাকায় আমাকে মীমাংসার প্রস্তাব দেয়। কিন্তু আমি তাদের এ প্রস্তাবে রাজি হয়নি। তবে লিটন চৌকিদার তার ঘরে এ সালিশ বৈঠকের কথা অস্বীকার করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো: মনিরুল ইসলাম জানান, ধর্ষিতা মেয়েটিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য মঙ্গলবার সকালে বরগুনার সিভিল সার্জন অফিসে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরো জানান, মামলার পর অভিযান চালাতে গিয়ে দেখি ইমরান স্বপরিবার ঘরতালাবদ্ধ করে পালিয়ে গেছে। জাহিদুলের পরিবারের লোকজনও  ঘরে পাওয়া যায়নি।

বরগুনার সিভিল সার্জন ডা: রুস্তুম আলী জানান, ডাক্তারী পরীক্ষার পর বলা যাবে মেয়েটি ধর্ষিতা কিনা। আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত  কর্মকর্তা মোঃ শহিদ উল্ল্যাহ জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে।

 
সর্বশেষ সংবাদ
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
উপরে