প্রকাশ : ১৭ এপ্রিল, ২০১৭ ০২:৪১:২০
বাংলাদেশ ও ভারতের নৌ-প্রটোকলে যুক্ত হতে যাচ্ছে ভুটান
বাংলাদেশ বাণী, নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে নৌ-প্রটোকল (বাংলাদেশ-ভারত অভ্যন্তরীণ নৌ-পথ অতিক্রম ও জলবাণিজ্য প্রটোকল-পিআইডব্লিউটিটি) চুক্তি রয়েছে। এবার সেই প্রটোকলের আওতায় বাংলাদেশের চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দর ব্যবহারের মাধ্যমে পণ্য পরিবহন করতে চায় ভুটান। এ লক্ষ্যে ঢাকার সঙ্গে চুক্তি করতে আগ্রহী দেশটি।

নৌ-প্রটোকল চুক্তিতে ভারতের সঙ্গে তৃতীয় দেশে পণ্য পরিবহনের সুযোগ রয়েছে। এছাড়া ভুটানের সঙ্গে ভারতের পণ্য পরিবহনের নিজস্ব ব্যবস্থাও রয়েছে। ফলে ঢাকা-থিম্পুর মধ্যে এ চুক্তি স্বাক্ষর হলে ভুটান বাংলাদেশ হয়ে ট্রানজিট বা পণ্য পরিবহনের সুযোগ পাবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন থিম্পু সফরে এ চুক্তি স্বাক্ষর হতে পারে বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল সূত্র। বন্দর ব্যবহারের এ চুক্তিসহ ভুটানের সঙ্গে মোট ছয়টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হতে পারে বলে জানিয়েছে ওই সূত্র। ১৮-২০ এপ্রিল দ্বিপাক্ষিক সফরে ভুটান যাওয়ার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে জানান, প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন ভুটান সফর সামনে রেখে পাঁচ-ছয়টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক নিয়ে কাজ করছি দু’পক্ষ। এর মধ্যে ভারতীয় নৌ-প্রোটোকল রুটের বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

এসব রুট ব্যবহারের বিনিময়ে ভুটানের কাছ থেকে বাংলাদেশ ট্যাক্স আদায় করতে পারবে বলেও জানান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অপর কর্মকর্তারা।

বিষয়টি ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন বিশ্লেষকরাও। এ প্রসঙ্গে সাবেক পররাষ্ট্র সচিব শমসের মবিন চৌধুরী  বলেন, ‘বাংলাদেশের খুব কাছেই ভুটানের অবস্থান। দেশটি সার্কেরও অন্যতম সদস্য। পণ্য পরিবহনে দেশটির সঙ্গে চুক্তি এ অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে কানেক্টিভিটি বাড়াতে সহায়ক হবে।’

জানা যায়, প্রধানমন্ত্রীর এ সফরে ভুটানের সঙ্গে ট্রানজিট-ট্রান্সশিপমেন্ট ও হাইড্রোপাওয়ার সহযোগিতার বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে। এছাড়া কৃষিক্ষেত্রে খাদ্যের মাননিয়ন্ত্রণ নিয়ে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা, বাংলাদেশের বিএসটিআই এবং ভুটানের মাননিয়ন্ত্রণ সংস্থার মধ্যে সহযোগিতা এবং আমদানি-রফতানিতে দ্বৈতকর পরিহার নিয়ে চুক্তি, সাংস্কৃতিক সহযোগিতার বিষয়টিও সফরে গুরুত্ব পাবে।

এছাড়া ভুটান থেকে বিদ্যুৎ আমদানি ও বিদ্যুৎখাতে (হাইড্রোপাওয়ার) বিনিয়োগ বিষয়েও আলোচনা করবে বাংলাদেশ। পাশাপাশি দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি, কানেক্টিভিটি, আঞ্চলিক নিরাপত্তাসহ আন্তর্জাতিক ফোরামগুলোতে অভিন্ন স্বার্থের বিষয়গুলোও আলোচনা করবে দুই দেশ।

ভূটানে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের পাশাপাশি বাংলাদেশ ও ভুটান যৌথভাবে আয়োজিত অটিজম বিষয়ক ‘ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন অটিজম অ্যান্ড নিউরো ডেভেলপমেন্ট ডিজঅর্ডার ভুটান-২০১৭’ আন্তর্জাতিক সম্মেলনে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী। এ আয়োজনের সঙ্গে আরও রয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের কার্যালয়, সূচনা ফাউন্ডেশন ও এবিলিটি ভুটান সোসাইটি। সম্মেলনটি ১৮-২১ এপ্রিল পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে নৌ-প্রটোকলের আওতায় নারায়ণগঞ্জ, খুলনা, মংলা, সিরাজগঞ্জ ও আশুগঞ্জ বন্দর ব্যবহার করতে পারে ভারত। এছাড়া ভারতীয় জাহাজগুলো পথিমধ্যে তেল সংগ্রহ বা বাংকারিংয়ের জন্য নির্ধারিত পোর্ট অব কলের বাইরে বাংলাদেশের শেখবাড়িয়া, মংলা, খুলনা, বরিশাল, চাঁদপুর, নারায়ণগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ ও চিলমারি বন্দর ব্যবহার করে। থিম্পুর সঙ্গে ঢাকার চুক্তি হলে এসব পোর্ট অব কল এবং বাংকারিংয়ের জন্য বাংলাদেশের এসব বন্দর ব্যবহারের অনুমতি পাবে ভুটান।

প্রটোকল অনুযায়ী নৌ-রুটগুলো হচ্ছে, খুলনা-মংলা-কাউখালী-বরিশাল-হিজলা-চাঁদপুর-নারায়ণগঞ্জ-আরিচা-সিরাজগঞ্জ-বাহাদুরাবাদ-চিলমারি, চিলমারি-বাহাদুরাবাদ-সিরাজগঞ্জ-আরিচা-নারায়ণগঞ্জ-চাঁদপুর-হিজলা-বরিশাল-কাউখালী-মংলা-খুলনা, মংলা-কাউখালী-বরিশাল-হিজলা-চাঁদপুর-নারায়ণগঞ্জ-ভৈরববাজার-আশুগঞ্জ, আশুগঞ্জ-ভৈরববাজার-নারায়ণগঞ্জ-চাঁদপুর-হিজলা-বরিশাল-কাউখালী-মংলা, রাজশাহী-গোদাগাড়ী, গোদাগাড়ী-রাজশাহী, ফেঞ্চুগঞ্জ-শেরপুর-মারকুলি-আজমিরিগঞ্জ-আশুগঞ্জ-ভৈরববাজার-নারায়ণগঞ্জ-চাঁদপুর-আরিচা-সিরাজগঞ্জ-বাহাদুরাবাদ-চিলমারি, চিলমারি-বাহাদুরাবাদ-সিরাজগঞ্জ-আরিচা-চাঁদপুর-নারায়ণগঞ্জ-ভৈরববাজার-আশুগঞ্জ-আজমিরিগঞ্জ-মারকুলি-শেরপুর-ফেঞ্চুগঞ্জ।

 
সর্বশেষ সংবাদ
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
উপরে