প্রকাশ : ০৪ মে, ২০১৭ ০০:২১:২০
বিশ্বমানের উন্নয়ন করার পরিকল্পনা-
শেষ হয়েছে কলাতলী-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের কাজ
বাংলাদেশ বাণী, ফরিদুল মোস্তফা খান, কক্সবাজার থেকে : অবশেষে শেষ হয়েছে কক্সবাজার শহরের কলাতলী থেকে টেকনাফ পর্যন্ত ৮০ কিলোমিটার দীর্ঘ মেরিন ড্রাইভ সড়কের কাজ। মে মাসের প্রথম সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্বোধনের মাধ্যমে উন্মুক্ত হবে স্বপ্নের এই সড়ক। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মেরিন ড্রাইভ সড়কের মাধ্যমে খুলে যাবে অপার সম্ভাবনার পর্যটনের অবারিত দুয়ার। এক পাশে সবুজের সমারোহ নিয়ে উঁচু পাহাড় আর অপর পাশে উত্তাল সমুদ্রের ঢেউ আছড়ে পড়ছে বালিয়াড়ির বুকে।

এই দু’য়ের বুক চিরে সু-প্রশস্ত পিচঢালা পথ।এটি বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের কোলঘেঁষে উদ্বোধনের অপেক্ষায় থাকা কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়ক।  নানা জটিলতায় ১৯৯৮ সালে শুরু হওয়া মেরিন ড্রাইভ প্রকল্পের কাজ শেষ হতে পার হয়ে যায় দীর্ঘ সময়। সম্প্রতি সেনাবাহিনীর ১৬ ইসিবির তত্ত্বাবধানে শেষ হয় সড়কটির নির্মাণ কাজ। চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি।

স্থানীয়রা বলছেন, সড়কটি উদ্বোধনের মাধ্যমে খুলবে পর্যটনের নতুন দুয়ার। স্থানীয়দের একজন বলেন, ‘বিভিন্ন ধরণের কর্মসংস্থান মূলক প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠছে। এই কর্মকা-ের জন্য আমরা সবাই উপকৃত।

স্থানীয় অপর আর একজন বলেন, ‘মেরিন ড্রাইভ সড়ক চালু হলে আমাদের অর্থনৈতিক চাকা আরো সচল হবে।’  এ সড়কের মাধ্যমে কক্সবাজার একটি সমৃদ্ধশালী পর্যটন শিল্প হিসেবে প্রকাশ পাবে বলে মনে করছেন কক্সবাজার হোটেল মালিক সমিতির সহ সভাপতি সাখাওয়াত হোসাইন।

তিনি বলেন, ‘এই ১২০ কি. মি. রাস্তাকে যদি পরিকল্পিত ভাবে ব্যবহার করতে পারি তাহলে বিশ্বের দরবারে কক্সবাজারকে আরো সমৃদ্ধশালী একটি পর্যটন শিল্প হিসেবে প্রকাশ করতে পারবো।’  কক্সবাজার সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী রানাপ্রিয় বড়ুয়া জানালেন, মেরিন ড্রাইভ সড়ক পর্যটন শিল্পের জন্য নতুন মাত্রা যোগ করবে।  দীর্ঘ এ সড়কে রয়েছে ১৭টি ব্রিজ ও ১শ ৮টি কালর্ভাট। সড়কটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে প্রায় পাঁচশো কোটি টাকা।

মেরিন ড্রাইভ সড়ককে বিশ্বমানের উন্নয়ন করার পরিকল্পনা

অপরদিকে, কক্সবাজার থেকে টেকনাফ পর্যন্ত মেরিন ড্রাইভ সড়কের কাজ শেষ হয়েছে। আগামী মে মাসের প্রথম সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সড়ক উদ্বোধন করবেন। এর জন্য সকল প্রস্তুতি শেষ করেছে বলে জানিয়েছেন প্রকল্প বাস্তবায়নকারি সেনা কর্মকর্তা।

তিনি বলেছেন শুরুতে নানা চ্যালেঞ্জিং নিয়ে এ সড়কের কাজ করতে হয়েছে। এসড়কের উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে সংশ্লিষ্ট এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন হবে। এ সড়কটি বিশ্ব মানের করার পরিকল্পনাও রয়েছে। এ সড়কের উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে পর্যটন শিল্পের ব্যাপক পরিবর্তন হবে বলে জানান সেনা কর্মকর্তা। একপাশে দাঁড়িয়ে আছে সবুজের সমারোহ নিয়ে উঁচু পাহাড়।

অপর পাশে উত্তাল সমুদ্রের ঢেউ আছড়ে পড়ছে বালিয়াড়ির বুকে। এই দু’য়ের বুক চিরে চলে গেছে সু-প্রশস্ত পিচঢালা পথ। আর এটাই বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের কোলঘেঁষে তৈরী হওয়া কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়ক।

আগামি ৬ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সড়কের উদ্বোধন করার কথা রয়েছে। আর এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকালে গণমাধ্যম কর্মীদের মুখোমুখি হন প্রকল্পবাস্তবায়নকারি সেনা বাহিনীর ১৬ ইসিবি’র অধিনায়ক লে. কর্ণেল কে এম মেহেদী হাসান।  তিনি বলেন, শুরুতে এ সড়কের কাজ করতে নানা জটিলতা তৈরী হয়। তবে সড়কের কাজ শেষ করা সম্ভব হয়েছে। এ সড়কের কারণে সংশ্লিষ্ঠ এলাকার জীবন মানের ব্যাপক উন্নয়ন হবে। এ সড়কটিতে নানা উদ্যোগের মাধ্যমে বিশ্বমানের মেরিন ড্রাইভ সড়ক হিসেবে তৈরীর পরিকল্পনাও রয়েছে বলে জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সড়কের উদ্বোধনের সকল প্রস্তুতি শেষ এবং এ সড়কের উদ্বোধনের পর কক্সবাজার একটি সমৃদ্ধশালী পর্যটন শিল্প হিসেবে প্রকাশ পাবে বলে মনে করছেন তিনি। এ সড়কে ১৭ টি ব্রীজ, ১০৮টি কালর্ভাট রয়েছে। যেখানে ব্যয় হয়েছে ১ হাজার ৫০ কোটি টাকার কাছাকাছি।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • সেনাবাহিনী রোহিঙ্গাদের ত্রাণ কার্যক্রমের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেসর্তকতার সঙ্গে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে কাজ করছে সরকার : ওবায়দুল কাদের‘বাংলাদেশেও হতে পারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার দায়ে মিয়ানমারের বিচার’বিএনপির সঙ্গে কোন রাজনৈতিক সমঝোতা নাকচ করে দিলেন প্রধানমন্ত্রীট্রাম্প হচ্ছেন ‘আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে নবাগত দুষ্টু ব্যক্তি’: ইরানের প্রেসিডেন্টমিয়ানমারের সিত্তুয়েতে রোহিঙ্গাদের জন্য রেডক্রসের ত্রাণবাহী নৌকায় বৌদ্ধদের হামলাজলি আত্মহত্যা প্ররোচণা মামলার চার্জশিট -‘সঠিক জবানবন্দি উপস্থাপন করতে পারেনি পুলিশ’রোহিঙ্গাদের জন্য জরুরী মানবিক সহায়তা ২৬২ কোটি ৩ লাখ টাকা দেবে যুক্তরাষ্ট্র ‌‘রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে আপনাদের ঐক্য প্রদর্শন করুন’ : ওআইসিকে প্রধানমন্ত্রীপৌর অবকাঠামো উন্নয়নে ২০ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ দেবে এডিবিরোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশের পাশে থাকার আশ্বাস ট্রাম্পেররোহিঙ্গা ইস্যুতে মুখ খুললেন : আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহায়তা আহ্বান সুকি'র রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নির্যাতন বন্ধে এটাই সুচি’র শেষ সুযোগ : জাতিসংঘ মহাসচিব দক্ষিণ-পশ্চিম লন্ডনে পাতাল রেলে বিস্ফোরণ : পুলিশের দাবী সন্ত্রাসী হামলাজাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী আজ নিউইয়র্ক যাচ্ছেনমিয়ানমারের আকাশসীমা লংঘনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশমানুষকে খাদ্য নিয়ে কষ্ট পেতে দেব না : সংসদকে প্রধানমন্ত্রীরাখাইন রাজ্যের বর্তমান সংকটে যুক্তরাষ্ট্রের গভীর উদ্বেগ প্রকাশমানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়া হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীএ সমস্যা মিয়ানমার তৈরি করেছে-রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান তাদেরকেই করতে হবে : সংসদকে প্রধানমন্ত্রী
  • সেনাবাহিনী রোহিঙ্গাদের ত্রাণ কার্যক্রমের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেসর্তকতার সঙ্গে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে কাজ করছে সরকার : ওবায়দুল কাদের‘বাংলাদেশেও হতে পারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার দায়ে মিয়ানমারের বিচার’বিএনপির সঙ্গে কোন রাজনৈতিক সমঝোতা নাকচ করে দিলেন প্রধানমন্ত্রীট্রাম্প হচ্ছেন ‘আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে নবাগত দুষ্টু ব্যক্তি’: ইরানের প্রেসিডেন্টমিয়ানমারের সিত্তুয়েতে রোহিঙ্গাদের জন্য রেডক্রসের ত্রাণবাহী নৌকায় বৌদ্ধদের হামলাজলি আত্মহত্যা প্ররোচণা মামলার চার্জশিট -‘সঠিক জবানবন্দি উপস্থাপন করতে পারেনি পুলিশ’রোহিঙ্গাদের জন্য জরুরী মানবিক সহায়তা ২৬২ কোটি ৩ লাখ টাকা দেবে যুক্তরাষ্ট্র ‌‘রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে আপনাদের ঐক্য প্রদর্শন করুন’ : ওআইসিকে প্রধানমন্ত্রীপৌর অবকাঠামো উন্নয়নে ২০ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ দেবে এডিবিরোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশের পাশে থাকার আশ্বাস ট্রাম্পেররোহিঙ্গা ইস্যুতে মুখ খুললেন : আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহায়তা আহ্বান সুকি'র রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নির্যাতন বন্ধে এটাই সুচি’র শেষ সুযোগ : জাতিসংঘ মহাসচিব দক্ষিণ-পশ্চিম লন্ডনে পাতাল রেলে বিস্ফোরণ : পুলিশের দাবী সন্ত্রাসী হামলাজাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী আজ নিউইয়র্ক যাচ্ছেনমিয়ানমারের আকাশসীমা লংঘনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশমানুষকে খাদ্য নিয়ে কষ্ট পেতে দেব না : সংসদকে প্রধানমন্ত্রীরাখাইন রাজ্যের বর্তমান সংকটে যুক্তরাষ্ট্রের গভীর উদ্বেগ প্রকাশমানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়া হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীএ সমস্যা মিয়ানমার তৈরি করেছে-রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান তাদেরকেই করতে হবে : সংসদকে প্রধানমন্ত্রী
উপরে