প্রকাশ : ০৯ জুন, ২০১৭ ০২:১৩:৪৫
কাতারের নিরাপত্তার জন্য সেনা মোতায়নের সিদ্ধান্ত তুরস্কের
বাংলাদেশ বাণী, আন্তর্জাতিক ডেস্ক : কাতারের নিরাপত্তার জন্য সেনা মোতায়নের সিদ্ধান্ত নিল তুরস্ক। কাতারে সামরিক ঘাঁটি স্থাপনে বুধবার একটি আইন পাস করেছে তুরস্কের সংসদ। মে মাসে খসড়া প্রস্তুত হওয়া বিলটি ২৪০ ভোটে সংসদে পাশ হয়। ক্ষমতাসীন একে পার্টি ও জাতীয়তাবাদী বিরোধী দল এমএইচপি এ বিলের পক্ষে সমর্থন দেয়।

তুরস্কের এ সিদ্ধান্তটি এ মুহুর্তের কূটনৈতিক সংকটে এক ঘরে হয়ে যাওয়া কাতারের প্রতি স্পষ্ট সমর্থন। মধ্যপ্রাচ্যের শক্তিধর কিছু রাষ্ট্র সকল ধরণের সম্পর্ক ছিন্ন করে কোণঠাসা করে রেখেছে দেশটিকে।

কাতারের অন্যতম মিত্র হিসেবে তুরস্ক দেশটিতে সেনা ঘাঁটি স্থাপন করতে যাচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় সেনা ঘাঁটিও কিন্তু কাতারেই।

সন্ত্রাসী ও চরমপন্থী গোষ্ঠীকে সহযোগীতার অভিযোগে সৌদি আরব, মিশর, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন কাতারের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে এবং সোমবার আকাশপথে  সব ধরণের ফ্লাইট বন্ধ করে দিয়েছে। তাদের সাথে কাতারের বিপক্ষে যোগ দিয়েছে সৌদিমিত্র জর্ডান, মিশর, মালদ্বীপও।

কাতার জোরালোভাবে তাদের এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে। কয়েক দশকের মধ্যে শক্তিশালী আরব রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে এটিই সবচেয়ে বড় ধরণের দ্বন্দ্ব হিসেবে ধরা হচ্ছে। মূলত হামাস নিয়ন্ত্রিত গাজা পুনর্গঠনে কাতারের বিপুল পরিমান আর্থিক সাহায্যের কারণে আরব দেশগুলো কাতারের বিপক্ষ নিয়েছে।

তুরস্কের রাষ্ট্রপতি তায়েপ এরদোগান আরব রাষ্ট্রসমূহের এ পদক্ষেপের সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেন, “কাতারকে বিচ্ছিন্ন করা এবং নিষেধাজ্ঞা আরোপের মধ্যে দিয়ে সমস্যার কোন সমাধান করা হবে না এবং আঙ্কারা এ সংকটের অবসান ঘটাতে  তার সাধ্যের সবকিছু করবে।”

তুরস্ক কাতারের পাশাপাশি তার উপসাগরীয় আরব প্রতিবেশী দেশগুলোরও সাথে ভাল সম্পর্ক বজায় রেখেছে।
২০১৫ সালের শেষের দিকে রয়টার্সের সাথে একটি সাক্ষাৎকারে কাতারের তুরস্কের রাষ্ট্রদূত আহমেদ ডেমিরক বলেন, “যৌথ সামরিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনে তুরস্ক কাতারে ৩০০০ স্থলবাহিনীর একটি ঘাঁটি স্থাপন করবে।” তথ্যসূত্র : আল জাজিরা
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • সিকান্দারের ব্যাটিং নৈপুণ্যে : স্বাগতিকরা ৪০ রানে হারিয়েছে সিলেট সিক্সার্সকেইরানের সর্বোচ্চ নেতা খামেনি মধ্যপ্রাচ্যের ‘নয়া হিটলার’ : সৌদি যুবরাজবঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের স্বীকৃতি যথাযথ মর্যাদায় সারা দেশে উদযাপন আজআওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের মানুষের সত্যিকার উন্নতি হয় : প্রধানমন্ত্রী দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন শেষ হয়েছেজার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও
  • সিকান্দারের ব্যাটিং নৈপুণ্যে : স্বাগতিকরা ৪০ রানে হারিয়েছে সিলেট সিক্সার্সকেইরানের সর্বোচ্চ নেতা খামেনি মধ্যপ্রাচ্যের ‘নয়া হিটলার’ : সৌদি যুবরাজবঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের স্বীকৃতি যথাযথ মর্যাদায় সারা দেশে উদযাপন আজআওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের মানুষের সত্যিকার উন্নতি হয় : প্রধানমন্ত্রী দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন শেষ হয়েছেজার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও
উপরে