প্রকাশ : ২২ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০২:১৪:৫৬
মানবাধিকার বিষয়ে মিশরের উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি
বাংলাদেশ বাণী, কায়রো, ( মিশর) থেকে উজ্জল হোসেন খান : সরকার চাইলে যে কোন দেশের মানবাধিকার ব্যবস্থা শক্তিশালী করা যায়, তার এক উজ্জল প্রমান হতে যাচ্ছে মিশর। আরব বসন্ত মূলত হয়েছিল মানবাধিকার সংক্রান্ত বিষয়গুলোকে কেন্দ্র করে। আরব বসন্তকে কেন্দ্র করে জঙ্গি সংগঠন ব্রাদারহুডের  ক্ষমতা দখল এবং সামরিক বাহিনী কর্তৃক পুনরায় গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সময় অসংখ্য মানবাধিকার লংঘনের ঘটনা ঘটেছে। নিকট অতীতে মিশর বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড, বিচারিক দীর্ঘসূত্রিতা, সাংবাদিক নির্যাতনসহ বহুমূখী মানবাধিকার লংঘনের ঘটনায় অভিযুক্ত ছিল।

তবে বর্তমান প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল সিসি ক্ষমতায় আসার পর মানবাধিকার বিষয়ে বিশেষ গুরুত্ব দেন। প্রেসিডেন্ট একটি শক্তিশালী মানবাধিকার কমিশন গঠন করে দেন। এরপর থেকে সরকারী মানবাধিকার কমিশন মিশরের প্রতিটি সেক্টরে স্বাধীন ভাবে কাজ করা শুরু করে।

ইতিমধ্যেই ১০০ জনের উপর গোয়েন্দা, পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের বিভিন্ন অপরাধে সাজা প্রদান করা হয়েছে। এর মধ্যে আমনাত দৌলা বা ন্যাশনাল সিকিউরিটির করেকজন কর্মকর্তার যাবত জীবন সাজা ভোগের রায় হয়েছে। মিশরের কারাগারে বিভিন্ন অপরাধে মাত্র ৭ জন সাংবাদিক আটক আছেন। প্রতিটি বিষয়ের জন্য সরকারী মানবাধিকার কমিশরের আলাদা আলাদ সেল আছে।

গত ২১ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে মিশরের তথ্য মন্ত্রনালয় আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে স্টেট ইনফরমেশন সার্ভিসের প্রধান ডঃ ডিয়া রাশওয়ান দুঃখ প্রকাশ করে বলেন  “বিভিন্ন ধরনের রাজনৈতিক কারনে বিশ্ব মিডিয়া মিশরের মানবাধিকার বিষয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রচার করে। অথচ আমরা বরাবর বলে আসছি কোন অভিযোগ থাকলে সুনির্দিষ্ট ভাবে জানান আমরা উপযুক্ত ব্যাবস্থা নিব। আপনাদের বুঝতে হবে মিশর অনেক বড় একটি দেশ একদিনেই পুরো ব্যাবস্থা পরিবর্তন করা সম্ভব নয়। তবে আমাদের টিম দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। আপনারা অচিরেই একটি আধুনিক মিশর দেখতে পারবেন।”

বাংলাদেশী সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয় সব ধরনের বিচারিক ব্যাবস্থা দ্রুত করার জন্য অনেকগুলো প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। এছাড়া অনেকগুলো আইন সংশোধনের কাজ চলমান রয়েছে। এছাড়া মিশরের প্রতিটি কারাগারে শীতাতাপ যন্ত্র, প্রয়োজনীয় বিশুদ্ধ খাদ্য ও চিকিৎসা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে। নিকট ভবিষ্যতে মিশরের বিচারিক কার্যক্রম যে কোন উন্নত দেশের মত দ্রুততার সাথে সম্পন্য হবে।

পরিশেষে একটি কথা না বলে পারছি না, অনেক প্রতিকূলতা স্বত্বেও মিশর করে দেখাচ্ছে। কিন্তু আমরা উপমহাদেশের দেশ গুলি মানবাধিকারের নিশ্চয়তা দিতে পারি না। বিশেষ করে বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের মানবাধিকার পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হচ্ছে। পাকিস্তান অলরেডি ধ্বংশ হয়ে গেছে। কিন্তু বাংলাদেশ ভারত কিরছে। প্রতিনিয়ত মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে। গুম, খুন, চাদাবাজি, ধর্ষন, বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড সহ সব ধরনের মানবাধিকার বিরোধী কর্মকান্ড যেন আমাদের গা সওয়া হয়ে যাচ্ছে। আর কতদিন পর আমাদের হুশ ফিরবে।


 
সর্বশেষ সংবাদ
  • রাতে ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন গ্রেফতার তফসিল ঘোষণার আগেই আলোচনায় বসার আহ্বান জাতীয় ঐক্যফ্রন্টেরজাতীয় সংসদ নির্বাচনে সর্বদলীয় সরকার চায় কয়েকটি বিদেশি দূতাবাস ও প্রতিষ্ঠানইমরুলের সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের উড়ন্ত সূূচনা স্বাগতিক বাংলাদেশের সংসদ নির্বাচনের আচরণ বিধিমালার সংশোধনী অনুমোদন করেছে ইসিআজ শুরু হচ্ছে দশম জাতীয় সংসদের ২৩ তম ও শেষ অধিবেশন সুপার শপ প্রিন্স বাজারের কাণ্ডজ্ঞান : শারদীয় অফারে গরুর মাংসের মূল্যছাড় !ইয়াবা সাম্রাজ্যে'র তালিকার শীর্ষে আবারো আলোচিত সাংসদ বদি'র নাম ! আওয়ামীলীগের এবারের নির্বাচনী ইশতেহারে থাকছে নতুন চমকশ্রদ্ধা-ভালবাসা আর শোকাশ্রু'তে কিংবদন্তি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুকে চির বিদায়নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৫ তম জন্মদিন উদযাপিত ‘দেশের অপরাধীদের জন্য অশনি সংকেত অপেক্ষা করছে’: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণাআগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জঙ্গিবাদ কোন প্রভাব ফেলতে পারবে না : আইজিপি সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকারবাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে ৫টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরএনটিআরসিএ'র নতুন চেয়ারম্যান পদে আশফাক হোসেনকে নিয়োগ দিয়েছে সরকারমানুষের স্বচ্ছতা বাড়ায় প্রতিবছর দেশে পূজা মণ্ডপ বাড়ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী“দেশে কোন সংখ্যালঘু নেই” : র‌্যাবের মহাপরিচালক নির্বাচন কমিশনারদের মধ্যে-মতবিরোধ থাকলেও জাতীয় নির্বাচন পরিচালনায় প্রভাব পড়বে না : সিইসি
  • রাতে ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন গ্রেফতার তফসিল ঘোষণার আগেই আলোচনায় বসার আহ্বান জাতীয় ঐক্যফ্রন্টেরজাতীয় সংসদ নির্বাচনে সর্বদলীয় সরকার চায় কয়েকটি বিদেশি দূতাবাস ও প্রতিষ্ঠানইমরুলের সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের উড়ন্ত সূূচনা স্বাগতিক বাংলাদেশের সংসদ নির্বাচনের আচরণ বিধিমালার সংশোধনী অনুমোদন করেছে ইসিআজ শুরু হচ্ছে দশম জাতীয় সংসদের ২৩ তম ও শেষ অধিবেশন সুপার শপ প্রিন্স বাজারের কাণ্ডজ্ঞান : শারদীয় অফারে গরুর মাংসের মূল্যছাড় !ইয়াবা সাম্রাজ্যে'র তালিকার শীর্ষে আবারো আলোচিত সাংসদ বদি'র নাম ! আওয়ামীলীগের এবারের নির্বাচনী ইশতেহারে থাকছে নতুন চমকশ্রদ্ধা-ভালবাসা আর শোকাশ্রু'তে কিংবদন্তি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুকে চির বিদায়নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৫ তম জন্মদিন উদযাপিত ‘দেশের অপরাধীদের জন্য অশনি সংকেত অপেক্ষা করছে’: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণাআগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জঙ্গিবাদ কোন প্রভাব ফেলতে পারবে না : আইজিপি সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকারবাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে ৫টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরএনটিআরসিএ'র নতুন চেয়ারম্যান পদে আশফাক হোসেনকে নিয়োগ দিয়েছে সরকারমানুষের স্বচ্ছতা বাড়ায় প্রতিবছর দেশে পূজা মণ্ডপ বাড়ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী“দেশে কোন সংখ্যালঘু নেই” : র‌্যাবের মহাপরিচালক নির্বাচন কমিশনারদের মধ্যে-মতবিরোধ থাকলেও জাতীয় নির্বাচন পরিচালনায় প্রভাব পড়বে না : সিইসি
উপরে