প্রকাশ : ১৯ মার্চ, ২০১৫ ০০:২৩:৪৭
কাফরুল থানা তথা চার নম্বর ওয়ার্ডের ব্যাপক জনপ্রিয় রাজনীতিবীদ
একজন জামাল মোস্তফা : আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে একটি মাইল ফলক

বাংলাদেশ বাণী টোয়েন্টিফোর ডটকম, ঢাকা : মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী এবং স্বাধীন বাংলাদেশের সবচেয়ে প্রাচীনতম রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ঢাকা মহানগরের কাফরুল থানার সুযোগ্য ও রাজপথের লড়াকু সংগ্রামী সভাপতি এবং সাবেক সফল কাউন্সিলর (কমিশনার) জামাল মোস্তফা।
নিজের দূরদর্শী চিন্তা-ভাবনা আর রাজনৈতিক প্রজ্ঞায় একজন সফল রাজনীতিবীদ,পাশাপাশি সফল ব্যবসায়ী ও সর্বজন স্বীকৃত সমাজসেবক  তিনি।
হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রাণের সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও মুজিব আর্দশের অকুতোভয় সাহসী একযোদ্ধা জামাল মোস্তফা নিজের আর্দশের কাছে কখনও মাথানত করেননি।
প্রাণপ্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জন্য সব রকম ত্যাগ স্বীকার করতে সব সময় প্রস্তুত তিনি। জাতির জনকের সুযোগ্য উত্তসুরী, গণতন্ত্রের মানসকন্যা, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সফল প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং ঢাকা-১৫ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য কামাল আহম্মেদ মজুমদারের আস্থাভাজন জামাল মোস্তফা সাধারণ মানুষের জন্য রাজনীতি করেন। সেই সাথে ‘মা-মাটি-দেশ’-এর প্রতি রয়েছে তার ‘একজন বাঙালী’ হিসাবে কর্তব্যবোধ। মাটি ও মানুষের জন্য রাজনীতি করতে যেয়ে তাকে বিভিন্ন সময়ে নানা ঘাত-প্রতিঘাত এবং চড়াই-উৎরাই পার হয়ে আসতে হয়েছে।
নিজের পরিবার পরিজনের কথা বা বিষয়-সম্পদ নিয়ে কখনো ভাববার সময় পাননি তিনি। ব্যস্ত থেকেছেন রাজপথের আন্দোলন-সংগ্রাম নিয়ে। এর জন্য তাকে ও তার পরিবারকে চরম থেকে চরম মূল্য দিতে হয়েছে। বার, বার মেনে নিতে হয়েছে কারাবরণ।
স্বৈরাচারী এরশাদ বিরোধ আন্দোলন, চার দলীয় জোট সরকারের দু:শাসন এবং এক এগারোর কালো অধ্যায়ে-অধিকার আদায়ের আন্দোলনে কাফরুল থানা আওয়ামী লীগকে রেখেছেন সকল কর্মসূচির অগ্রভাগে। দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে রাজপথ কাঁপিয়েছেন তুখোড় এই আওয়ামী লীগ নেতা।
বিনিময়ে পেয়েছেন দলের শীর্ষ নেতা-নেত্রী ও কাফরুল থানার জনগণের অকুন্ঠ ভালবাসা আর সমর্থন। সময়ের সাহসী এই রাজনীতিবীদ ও তার গোটা পরিবার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জন্য সব সময় নিবেদিত। কোন জেল, জুলুম,অত্যাচার-নির্যাতন আর হুলিয়া তাকে দাবিয়ে রাখতে পারেনি। জননেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডাকে রাজপথে সব সময় থেকেছেন সকল দলীয় কর্মসূচির অগ্রভাগে।
সাবেক সফল এই কাউন্সিলর (ওয়ার্ড কমিশনার) আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে (ঢাকা মহানগর-উত্তর) ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সম্ভব্য কাউন্সিলর পদপ্রার্থী বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।
এলাকাবাসীর সাথে আলাপকালে জানা যায়, জামাল মোস্তফার বিকল্প বা সমকক্ষ কোন প্রার্থী ৪ নম্বর ওয়ার্ডে নেই। ব্যবসায়ী হাজী আমিন (৪৫) জানান, ‘যে মানুষটিকে আমরা সুখে-দু:খে সব সময় আপন করে কাছে পাই। তাকে ছাড়া অন্য কোন প্রার্থীর কথা শুধু আমি কেন, এই ৪ নম্বর ওয়ার্ডের শতকরা ৯৫ শতাংশ মানুষ চিন্তা করতে পারবে না।’
তার এই কথার সাথে তাল মেলান একজন সরকারী কর্মকর্তা দেওয়ান গোলাম সরোয়ার (৪০)। তিনি বলেন, ‘জামাল ভাই মাটি ও মানুষের জন্য রাজনীতি করে আজকের এ অবস্থান তৈরী করেছেন। পরীক্ষিত এই নেতা সব সময় গরীব-অনাথ ও দু:খি মানুষের পক্ষে কথা বলেন। আমরা অবশ্যই তার সফলতার জন্য যা, যা করা দরকার, সবই করবো।’
চিকিৎসক ডা: আলমগীর হোসেন (৪২) জানান, ‘এই অঞ্চলে যেটুকু উন্নয়নের ছোঁয়া দেখছেন, তা প্রায় সবই জামাল মোস্তফার অবদান। বরাবরই আমাদের ৪ নম্বর ওয়ার্ড উন্নয়নের দিক থেকে অবহেলিত। জামাল মোস্তফার মত বিশাল মনের ব্যক্তি যদি প্রার্থী হন, তাহলে ৪ নম্বর ওয়ার্ডটিকে তিনিই পারবেন ঢেলে সাজাতে।’
এ বিষয়ে আমরা কথা বলি ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা গৃহিনী নাজমা মালেক (৫০) ও মাহমুদা আক্তার হেনা (৪৭) এর সাথে। ওই দুই গৃহবধূ জানান, ‘জামাল মোস্তফা শুধু ৪ নম্বর ওয়ার্ড কেন? গোটা কাফরুল থানাবাসীর জন্য আশির্বাদ সরূপ। মানুষকে কি ভাবে ভালবাসতে হয়, তার কাছ থেকে শেখা যায়। ধনি-গরীবের কোন ভেদাভেদ নেই। যখন যার বিপদ, তখন তারই পাশে থাকেন তিনি (জামাল মোস্তফা)। আসন্ন নির্বাচনে তিনি যদি কাউন্সিলর প্রার্থী হন, তাহলে ৪ নম্বর ওয়ার্ডবাসী শান্তি ও স্বস্তি দুই পাবেন’। ভোটের কথা জিঞ্জাসা করতেই মুখের কথা কেড়ে নিয়ে বলেন, ‘আপনারা সাংবাদিক, মহল্লায়, মহল্লায় একটু ঘুরে দেখেন, জনগণ কাকে চায়। জামাল মোস্তফার বিকল্প কোন প্রার্থী আছে বলে আমাদের জানা নেই।’
আমরা এ বিষয়ে সরাসরি জামাল মোস্তফার মুখোমখি হলে তিনি একটু হেঁসে বলেন, আসছেন, বসেন। এ সময় আমাদেরকে দুই কাপ চা দিয়ে আপ্যায়ন পর্বটি শেষ করা হয়।
ওঠার তাগিদ দিলে জামাল মোস্তফা বলেন, ‘দেখেন এ বিষয়ে আমি এখনই কিছু বলতে চাই না। দলের হাই কমান্ড আছেন, আছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আমার প্রিয় নেতা জনাব কামাল আহম্মেদ মজুমদার। তাদের সবুজ সংকেত না পেয়ে নির্বাচন বা নিজের প্রার্থীতা সম্পর্কে কোন মন্তব্য করতে চাই না। আপনারা সাংবাদিক, এলাকা ঘুরে দেখেন, জনগণের বক্তব্য শোনেন। এখনো যথেষ্ঠ সময় আছে মন্তব্য করার। আমি আগবাড়িয়ে কিছু বলতে চাই না।’
নিজের শতভাগ রপ্তানীমুখি তিনটি প্রতিষ্ঠান নিয়ে কিছু সময় গল্প করে কাঁটান চৌকস এই নেতা। চার ছেলে ও এক মেয়ের জনক তিনি। ছেলে-মেয়ে আর রাজনীতিবীদ স্ত্রী মিসেস রোকেয়া জামাল ও নিজের ব্যবসা নিয়ে মোটামুটি সুখি তিনি। পাশাপাশি রাজনীতি তার রক্তে মিশে গেছে বলে আলাপচারিতায় জানা যায়। বিদায়ের প্রাক্কালে স্বভাবসুলভ হাঁসিমাখা মুখে আমাদের বিদায় দেন তিনি। এ সময় তিনি ভদ্রতা রক্ষায় নিজের অফিস কক্ষ থেকে বের হয়ে আমাদের গাড়ি পর্যন্ত আসেন বিদায় জানাতে।

 
সর্বশেষ সংবাদ
  • ঢাকা উত্তর সিটি'র উপ-নির্বাচনে আদালতের ৩ মাসের স্থগিতাদেশসুন্দরবনের ৩ কুখ্যাত জলদস্যুবাহিনীর প্রধানসহ ৩৮ জনের আত্মসমর্পণজাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণ : ভবিষ্যতে বাংলাদেশে জাতীয় ঐক্যের দাবি প্রধানমন্ত্রী'ররাজধানী'র জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের সফল অভিযান : ৩ মৃতদেহ ও বিস্ফোরক উদ্ধারপদোন্নতি পেলেন বঙ্গবন্ধু'র খুনিদের গ্রেফতারকারী প্রথম পুলিশ অফিসারবিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণীআম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বরাজধানীতে তীব্র গ্যাস সংকট : জনমনে ক্ষোভ জঙ্গি ও অন্যান্য অপরাধ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল হয়েছে : আইজিপিঅর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি'র সভায় ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনপুলিশকে আমি সব সময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই : প্রধানমন্ত্রীফারমার্স ব্যাংক কর্তৃক-জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিলসহ আমানতকারীদের অর্থ ফেরত না দেয়ায় টিআইবি’র উদ্বেগসুন্দরগঞ্জের আসনটি ছিনিয়ে নিয়েছে আওয়ামী লীগ : এইচ. এম. এরশাদজঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দমনে পুলিশের সাফল্য দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীমাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ এ মাসেই শুরু হচ্ছেযশোরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী পালসার বাবু নিহতদেশজুড়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ উৎসব২০১৭'র বিদায় : নতুন বছর ২০১৮ কে বরণ করে নিল জাতিঅগ্রগতি ৫০ শতাংশের বেশি ॥ যথা সময়ে শেষ হবে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ : কাদেররাবির স্নাতক প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু ২১ জানুয়ারি
  • ঢাকা উত্তর সিটি'র উপ-নির্বাচনে আদালতের ৩ মাসের স্থগিতাদেশসুন্দরবনের ৩ কুখ্যাত জলদস্যুবাহিনীর প্রধানসহ ৩৮ জনের আত্মসমর্পণজাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণ : ভবিষ্যতে বাংলাদেশে জাতীয় ঐক্যের দাবি প্রধানমন্ত্রী'ররাজধানী'র জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের সফল অভিযান : ৩ মৃতদেহ ও বিস্ফোরক উদ্ধারপদোন্নতি পেলেন বঙ্গবন্ধু'র খুনিদের গ্রেফতারকারী প্রথম পুলিশ অফিসারবিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণীআম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বরাজধানীতে তীব্র গ্যাস সংকট : জনমনে ক্ষোভ জঙ্গি ও অন্যান্য অপরাধ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল হয়েছে : আইজিপিঅর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি'র সভায় ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনপুলিশকে আমি সব সময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই : প্রধানমন্ত্রীফারমার্স ব্যাংক কর্তৃক-জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিলসহ আমানতকারীদের অর্থ ফেরত না দেয়ায় টিআইবি’র উদ্বেগসুন্দরগঞ্জের আসনটি ছিনিয়ে নিয়েছে আওয়ামী লীগ : এইচ. এম. এরশাদজঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দমনে পুলিশের সাফল্য দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীমাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ এ মাসেই শুরু হচ্ছেযশোরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী পালসার বাবু নিহতদেশজুড়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ উৎসব২০১৭'র বিদায় : নতুন বছর ২০১৮ কে বরণ করে নিল জাতিঅগ্রগতি ৫০ শতাংশের বেশি ॥ যথা সময়ে শেষ হবে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ : কাদেররাবির স্নাতক প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু ২১ জানুয়ারি
উপরে