প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল, ২০১৫ ০৯:১৩:২৪
আমার গীতা পাঠে এতো সমালোচনা কেন?

বাংলাদেশ বাণী টোয়েন্টিফোর ডটকম, ডেস্ক রিপোর্ট  : এবার গীতা পাঠে প্রথম হলেন ১২ বছর বয়সী এক মুসলিম তরুণী। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্রে। ভগবত গীতার কাহিনী নিয়ে এক প্রতিযোগিতায় শীর্ষস্থান অধিকার করেছে ওই বালিকাটি। ১২ বছর বয়সী মরিয়ম সিদ্দিকী মহারাষ্ট্রের কসমোপলিটন উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। ইন্টারন্যাশনাল সোসাইটি ফর কৃষ্ণা কনসাসনেস (ইসকন) গত জানুয়ারিতে 'গীতা চ্যাম্পিয়ন লিগ'র আয়োজন করে। এতে ১০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষায় দেশটির ১৯৫টি শহরের সাড়ে চার হাজার প্রতিযোগী অংশ নেয়। গীতার নানা বিষয় নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল এ প্রতিযোগিতায়। দীর্ঘ প্রতিযোগিতা শেষে গত ১৫ মার্চ বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। তিন হাজার প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে মারিয়ান প্রথমস্থান অর্জন করেন। বিষয়টি নিয়ে সেখানকার হিন্দুরা মর্মাহত হয়েছেন। একারণেই সেখানে চলছে আলোচনা সমালোচনার ঝড়।


এসব নিয়ে কেউ কেউ তার ধর্মকে টানছেন। বিভিন্নভাবে তাকে উস্কে দেওয়ার চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন। একটা মুসলিম মেয়ে কেন গীতা পাঠ করবে, পাঠ করলেও সে কেন হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করল না সেই নিয়ে কটাক্ষ করেছেন মারইয়ামকে। এসব নিয়ে বিবিসির পক্ষ থেকে একটি সাক্ষাৎকার নেওয়া হয় মেয়েটির। বিবিসিকে দেওয়া ওই সাক্ষাৎকারে মারইয়াম বলেন, আমার গীতা পাঠে এতো সমালোচনা কেন? আমি মুসলিম বলেই কি এই সমালোচনা?


মারইয়াম বিবিসিকে প্রশ্ন করে বলেন, আর কোনো মুসলিম যদি গীতা পাঠ করে তাকে নিয়েও কি এমন সমালোচনা হবে?


মারইয়াম বুঝাতে চেয়েছেন, তিনি যদি মুসলিম না হতেন তাহলে বিষয়টি এতটা আকর্ষণীয় হতো না। তার মাথায় আরো একটি প্রশ্ন খেলা করছে সেটি হলো, সব ধর্মই যেখানে এক সৃষ্টিকর্তার তৈরি তাহলে আমার গীতা পাঠে এতো সমালোচনা কেন? তিনি বলেন, আমি আমার শখ থেকেই গীতা শিখেছি। আমি অন্যান্য ধর্মের কিতাবও পাঠ করতে পারি কিন্তু সেসব নিয়ে কোনো আলোচনা হয় না।


ভারতে বিজেপি সরকার আসার পর হিন্দু শিক্ষামন্ত্রী সেদেশের শিক্ষা সিলেবাসে গীতা সংযুক্ত করেন। এবং গীতা পাঠকে বাধ্যতামূলক করেন।


মারইয়াম বলেন, আমার গীতা পাঠ রাজনৈতিক উদ্দেশে নয় বরং আমার মা-বাবাকে সন্তুষ্ট করার জন্যই শিখেছি। আর কোনো মুসলমান যদি গীতা পাঠ করে তবে সেটাকে রাজনৈতিক রঙ দেওয়া অনুচিত। আমার এমন হিন্দু বন্ধুও রয়েছে যারা কুরআন পাঠ করতে পারে।


মারইয়ামের মা বলেন, এখানে কিছু লোক রয়েছে যারা ধর্মকে হাতিয়ার বানিয়ে থাকে। তারাই বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা করছে। সূত্র: বিবিসি


 

সর্বশেষ সংবাদ
  • বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ : বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি, সোমবার শাহবাগে ‘আনন্দ উৎসব ও স্মৃতিচারণ’ আজ বসছে দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন
  • বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ : বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি, সোমবার শাহবাগে ‘আনন্দ উৎসব ও স্মৃতিচারণ’ আজ বসছে দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন
উপরে