প্রকাশ : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১৩:৪০:১৩
তালার মাগুরা যুদ্ধ :
সহযোদ্ধাদের হারানোর সেই স্মৃতি এখনও তাড়া করে গেরিলা কমান্ডার সুভাষ সরকারকে
বাংলাদেশ বাণী, মীর ইমরান মাহমুদ, তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : কোন কিছুই বুঝে উঠার আগেই পাকমিলিশিয়া বাহিনী ও স্থানীয় রাজাকারদের সশ্রস্ত্র আক্রমণ। বৃষ্টির মত গুলি ছুড়তে ছুড়তে পাকমিলিটারী বাহিনীকে এগিয়ে আসতে দেখে তাদের প্রতিহত করতে পাল্টা গুলি চালাই আমরা। গুলিতে পাকবাহিনী পিছু হঠলেও অকালে ঝরে যায় আমাদের তিন মুক্তিযোদ্ধা। ঘাতকদের বুলেটবিদ্ধ হয়ে শহীদ হন মুক্তিযোদ্ধা তালার বারাত গ্রামের আব্দুল আজিজ, বাতুয়াডাঙ্গার সুশিল সরকার ও কলারোয়ার আবু বক্কর। সাতক্ষীরার তালা উপজেলা মাগুরা যুদ্ধে পাকমিলিটারী বাহিনীর সাথে যুদ্ধে কমান্ডার হিসেবে নেতৃত্বে দিয়ে তিন মুক্তিযোদ্ধাকে হারানোর সেই স্মৃতি আজও তাড়া করে ফেরে মুক্তিযোদ্ধা গেরিলা কমান্ডার সুভাষ সরকারকে।
তিন জনকে এক কবরে মাটি দেয়ার সেই ঘটনা মনে উঠতেই চোখের জল আর ধরে রাখতে পারেনি তালা উপজেলার নগরঘাটা ইউনিয়নের গোয়ালপোতা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক সুভাষ সরকার। মুক্তিযোদ্ধা সুশিল, আব্দুল আজিজ ও আবু বক্করের লাশ নিয়ে কিভাবে দাফন করা হয়েছিল তার সেই স্মৃতি যেন এখন চোখের সামনে জ¦ল জ¦ল করে ভেসে বেড়াচ্ছে। লাশ তিনটিকে সৎকার করার স্থান নিয়ে মাগুরার কয়েক হিন্দু বাড়িতে বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত ঘুরতে হয়েছে। পাকবাহিনীর হামলার ভয়ে কোন হিন্দু পরিবার লাশ দাফনে রাজি হচ্ছিল না। এক পর্যায় হিন্দু একটি পরিবার বুঝিয়ে রাজি করা হলে একস্থানে পাশাপাশি দু’টি কবর খুড়ে একটি কবরে শহীদ আবু বকর ও আব্দুল আজিজকে মাঝখানে একটি দেয়াল রেখে পাশের কবরে সুশিল সরকারকে সমাহিত করেন মুক্তিযোদ্ধারা। মাগুরা যুদ্ধে তিন মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হয়েছে শুনে সেখানে আসেন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রহমত উল্লাহ দাদু, ইঞ্জিনিয়ার শেখ মুজিবুর রহমান, কামরুজ্জামান টুকু ও কর্নেল শফিউল্লাহ।
১৯৭১ সালের ২৫ নভেম্বর খুলনার কপিলমুনি যুদ্ধে যাওয়ার প্রস্তুতি নিতে তালা পাটকেলঘাটা অঞ্চলের মুক্তিযোদ্ধারা যখন মাগুরায় জড়ো হয়ে দুপুরের খাবার খাচ্ছেন হঠাৎ ১০-১৫ জন পাকমিলিটারী বাহিনীর সদস্য এবং এলাকার কয়েকজন রাজাকার গুলি করতে করতে পাটকেলঘাটার দিক থেকে মাগুরা বাজারে ঢুকে পড়ে। মুক্তিযোদ্ধা তালা অঞ্চলের গেরিলা গ্রুপের কমান্ডার সুভাষ সরকার ও মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান এর নেতৃত্বে ১২ সদস্যের মুক্তিযোদ্ধা পাকমিলিটারী বাহিনীর সদস্যদের প্রতিহত করতে গুলি বর্ষণ শুরু করে। সুভাষ সরকার বলেন, আমাদের তিন মুক্তিযোদ্ধা গুলিতে নিহত হলেও ঘটনাস্থলে দুই পাকমিলিটারী সদস্যও গুলিবিদ্ধ হতে দেখেছিলাম। সাতক্ষীরা টেক্সটাইল মিল এলাকার শেখ নুরুজ্জামান মন্টুর পাকবাহিনীর গুলিতে ভুড়ি বেরিয়ে যায়। সেখান থেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নুরুজ্জামান মন্টুকে ভারতে পাঠিয়ে চিকিৎসা করেছিলাম। সে দিনের এমন সব স্মৃতির কথা বলতেই গেরিলা কমান্ডার সুভাষ সরকার ডুকরে কেঁদে উঠেন। নুুরুজ্জামান মন্টু এখন বাড়িতে চিকিৎসার অভাবে মৃত যন্ত্রণায় ছটফট করছে। দেশ স্বাধীন হলে পাটকেলঘাটায় প্রথম স্বাধীন বাংলার পতাকা উত্তোলন করা হয়।
আর ১৯৭১ সালের ২৫ নভেম্বর মাগুরা যুদ্ধে নিহত শহীদ সুশীল সরকারের মা-বাবা গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে ভারতে চলে গেছে। বঙ্গবন্ধুর ভাষনের পর গোয়ালপোতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র সুশীল সরকার বাড়ী থেকে পালিয়ে যুদ্ধে যোগ দিয়ে দেশের জন্য জীবন দিয়েছে।
১৫ বছরের কিশোর আব্দুল আজিজ মারা যাওয়ার খবরটা তার মা-বাবাকে না দিতে পারার যন্ত্রণা এখনও বয়ে বেড়াচ্ছি। আর ২২ বছরের যুবক সবে বিয়ে করে স্ত্রীর গর্ভে সন্তান রেখে স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধে গিয়ে পাকবাহিনীর বুলেটে নিহত আবু বক্কর পরিবারকে বলতে পারিনি সে শহীদ হয়েছে। অবশ্যই পরবর্তীতে সবই যেনে যায় তিনটি পরিবার। দেশ স্বাধীনের পরে সবাই আনন্দে উদ্বেলিত হয়ে ঘরে ফিরলেও আবু বক্করের স্ত্রী স্বামীর অপেক্ষার প্রহর গুনতে গুনতে এক সময় পাথর হয়ে যায়। এরই মধ্যে বাবার মুখ না দেখেই জন্ম নেয় শহীদ আবু বক্করের কন্যা। বর্তমানে কলারোয়ার একটি গ্রামে শহীদ আবু বক্করের কন্যার বিয়ে হয়েছে। স্ত্রী অন্যাত্র বিয়ে করে ঘর সংসার করছে।
গেরিলা কামন্ডার এভাবে ৭১ এর সেই উত্তাল অগ্নিঝরা দিনের কথা বলতে গিয়ে জানান, তালার মাগুরা যুদ্ধে শহীদদের স্মরণে সেখানে এখনও স্মৃতিস্তম্ভ গড়ে উঠেনি।
উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দায়সারা গোছের দিনটি স্মরণ করা হয়। মাগুরা যুদ্ধে গেরিলা কমান্ডার সুভাষ সরকার ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন আজও আবু বক্কর, আব্দুল আজিজ ও সুশীল সরকারের পরিবার শহীদ পরিবার হিসেবে স্বীকৃতি পায়নি। স্বাধীনতার এত বছর পরও কেউ খোঁজ নেয়নি অকুতোভয়ী এই তিন বীর যোদ্ধার পরিবারের।
গেরিলা কমান্ডার সুভাষ সরকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের পর যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েন। ভারতের তকিপুরে দুই মাস গেরিলা ট্রেনিং নিয়ে ১২জন মুক্তিযোদ্ধাকে নিয়ে তালা অঞ্চলে পাকবাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেন। ভারী ম্যাশিনগান এসএমজি চালাতে তার বুক কাপেনি। সুভাষ সরকার বলেন, মুক্তিযুদ্ধে মুড়াগাছার সুজায়েত মাষ্টার, কানাইদিয়া কৃষ্ণকাটির মোড়ল আব্দুল সালাম মাগুরার শেখ ছামছুর রহমান, বারাত গ্রামের সোবহান মাষ্টার, এবং স, ম আলাউদ্দিনের নেতৃত্বে তালা কপিলমুনি অঞ্চলে পাকবাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে শত্রুমুক্ত করেছেন।
স্বাধীনতার ৪৫ বছর পর যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং বিচারে শীর্ষ কয়েক যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসির রায় দেখতে পেয়ে সুভাষ সরকারের বুকের পাথর যেন সরেগেছে। মাগুরা যুদ্ধে নিহত আবু বক্কর, আব্দুল আজিজ ও সুশীল সরকারে আত্মাযেন শান্তি পেয়েছে বললেন সুভাষ সরকার। তার আশা স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা শেখ হাসিনাকে রাষ্ট্রক্ষমতায় রাখতে দেশের সকল মুক্তিকামী মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার দাবি জানান।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • গাজীপুরে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করতে নির্বাচন কমিশনের ব্যাপক প্রস্তুতিকলম্বিয়াকে হারিয়ে বিশ্বকাপে শুভ সূচনা করলো এশিয়ার দল জাপানদলীয় মনোনয়ন নিয়ে নানামুখী আলোচনা ॥ বরিশালে সিটি’তে চার মেয়র প্রার্থীসহ ৪৭ জনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহআজিজ আহমেদকে নতুন সেনা প্রধান নিয়োগআনন্দ-উচ্ছ্বাসের মধ্যদিয়ে রাজধানীসহ দেশজুড়ে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হচ্ছেদু’বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনার সাথে আইসল্যান্ডের ১-১ গোলে ড্রআজ খুশি'র ঈদ ❏ মুসলিম জাহানের সমৃদ্ধি কামণার অঙ্গীকারে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র পৃথক পৃথক বাণীপ্রধানমন্ত্রী গণভবনে আজ ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেনশেষ মুহূর্তের আত্মঘাতী গোলে বিশ্বকাপে মিসরকে হারালো উরুগুয়েআজ চাঁদ দেখা গেলে : শনিবার সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপননিজেদের মাঠে দাপুটে জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করলো স্বাগতিক রাশিয়াঈদে অজ্ঞান ও মলম পার্টির দৌরাত্ম রোধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর : আইজিপি ঈদুল ফিতরের তারিখ নির্ধারণে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা কাল আজ মহিমান্বিত পবিত্র লাইলাতুল কদরের রজনীআজ বাজারে আসছে নতুন ২ ও ৫ টাকা মূল্যমানের নোটনারী এশিয়া কাপ টি টোয়েন্টিতে ভারতকে হারিয়ে, বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করায়, প্রাণঢালা আন্তরিক অভিনন্দন।চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেতমালয়েশিয়াকে ৭০ রানে হারিয়ে এশিয়া কাপের স্বপ্নের ফাইনালে বাংলাদেশ : প্রতিপক্ষ ভারত আজ শুরু হচ্ছে দশম জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন
  • গাজীপুরে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করতে নির্বাচন কমিশনের ব্যাপক প্রস্তুতিকলম্বিয়াকে হারিয়ে বিশ্বকাপে শুভ সূচনা করলো এশিয়ার দল জাপানদলীয় মনোনয়ন নিয়ে নানামুখী আলোচনা ॥ বরিশালে সিটি’তে চার মেয়র প্রার্থীসহ ৪৭ জনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহআজিজ আহমেদকে নতুন সেনা প্রধান নিয়োগআনন্দ-উচ্ছ্বাসের মধ্যদিয়ে রাজধানীসহ দেশজুড়ে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হচ্ছেদু’বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনার সাথে আইসল্যান্ডের ১-১ গোলে ড্রআজ খুশি'র ঈদ ❏ মুসলিম জাহানের সমৃদ্ধি কামণার অঙ্গীকারে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র পৃথক পৃথক বাণীপ্রধানমন্ত্রী গণভবনে আজ ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেনশেষ মুহূর্তের আত্মঘাতী গোলে বিশ্বকাপে মিসরকে হারালো উরুগুয়েআজ চাঁদ দেখা গেলে : শনিবার সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপননিজেদের মাঠে দাপুটে জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করলো স্বাগতিক রাশিয়াঈদে অজ্ঞান ও মলম পার্টির দৌরাত্ম রোধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর : আইজিপি ঈদুল ফিতরের তারিখ নির্ধারণে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা কাল আজ মহিমান্বিত পবিত্র লাইলাতুল কদরের রজনীআজ বাজারে আসছে নতুন ২ ও ৫ টাকা মূল্যমানের নোটনারী এশিয়া কাপ টি টোয়েন্টিতে ভারতকে হারিয়ে, বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করায়, প্রাণঢালা আন্তরিক অভিনন্দন।চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেতমালয়েশিয়াকে ৭০ রানে হারিয়ে এশিয়া কাপের স্বপ্নের ফাইনালে বাংলাদেশ : প্রতিপক্ষ ভারত আজ শুরু হচ্ছে দশম জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন
উপরে