প্রকাশ : ২২ অক্টোবর, ২০১৭ ০৮:০৫:৪০
প্রসঙ্গ : নামাজের উপকারিতা
বাংলাদেশ বাণী, ইসলামী ডেস্ক : "হুজুরে আকরাম (সা:) বলেন, নামাজের সময় একজন ফেরেশতা পাঠানো হয় যিনি ঘোষনা করতে থাকেন যে, হে আদম সন্তান! তোমরা উঠ এবং জাহান্নামের ঐ আগুনকে (যা তোমরা গোনাহের দ্বারা নিজেদের উপর প্রজ্জলিত করেছো) নিভিয়ে দাও। ফলে, দ্বীনদার লোকেরা উঠে অজু করে ও জোহরের নামাজ আদায় করে। যার ফলে ফজর থেকে জোহর পর্যন্ত কৃত সব পাপ মাফ হয়ে যায়। তারপর আসরের সময় মাগরিবের সময় এশার সময় এরকম হতে থাকে। এশার পর লোকজন শুয়ে পড়ে। তবে কিছু লোক সৎকাজে অর্থাৎ নামাজ, ওজিফা ও জিকিরে মগ্ন হয়, আর কিছু লোক মন্দকাজে অর্থাৎ জ্বিনা, চুরি, অন্যায়্কাজে লিপ্ত হয়ে যায়।"-(তিবরানী)

ফায়দা : বিভিন্ন হাদীসের কিতাবে অনেকবার বর্ণিত হয়েছে, আল্লাহপাক নামাজের কারণে গোনাহসমূহ মাফ করে দেন। নামাজের ভিতর যেহেতু এস্তেগফার আছে, তাই ছাগিরা ও কবিরা উভয় গোনাহই মাফ হয়ে যাবে আশা করা যায়।

তবে এই শর্তের উপর যে, নিজের পাপের জন্য আন্তরিক ভাবে অনুতপ্ত হতে হবে। বিখ্যাত সাহাবী হজরত সালমান (রা:) বলেন, এশার পর মানুষ তিন ভাগে ভাগ হয়ে যায়। একদল এই রাতকে পুর্ণ্য অর্জনের অপূর্ব সুযোগ বলে মনে করেন। আরামের বিভোর হয়ে যায়, তারা তখন নামাজে আত্মনিয়োগ করেন। ফলে এই রাত তাদের জন্য পরম মঙ্গলময় হয়ে যায়।

দ্বিতীয়দলের জন্য এইরাত চরম আজাব ও বিপদস্বরুপ আসে। কারণ রাতের নির্জনতার সুযোগে তারা বিভিন্ন পাপ কাজে জড়িত হয়।

তৃতীয়দলের জন্য রাত তেমন মঙ্গলজনকও নয়। আবার বিপদসংকুলও নয়। কারন তারা এশার নামাজের পরে শুয়ে পড়ে। এতে কোন লাভও নেই আবার কোন ক্ষতিও নেই।-(তিবরানী)
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • ঢাকা উত্তর সিটি'র উপ-নির্বাচনে আদালতের ৩ মাসের স্থগিতাদেশসুন্দরবনের ৩ কুখ্যাত জলদস্যুবাহিনীর প্রধানসহ ৩৮ জনের আত্মসমর্পণজাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণ : ভবিষ্যতে বাংলাদেশে জাতীয় ঐক্যের দাবি প্রধানমন্ত্রী'ররাজধানী'র জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের সফল অভিযান : ৩ মৃতদেহ ও বিস্ফোরক উদ্ধারপদোন্নতি পেলেন বঙ্গবন্ধু'র খুনিদের গ্রেফতারকারী প্রথম পুলিশ অফিসারবিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণীআম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বরাজধানীতে তীব্র গ্যাস সংকট : জনমনে ক্ষোভ জঙ্গি ও অন্যান্য অপরাধ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল হয়েছে : আইজিপিঅর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি'র সভায় ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনপুলিশকে আমি সব সময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই : প্রধানমন্ত্রীফারমার্স ব্যাংক কর্তৃক-জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিলসহ আমানতকারীদের অর্থ ফেরত না দেয়ায় টিআইবি’র উদ্বেগসুন্দরগঞ্জের আসনটি ছিনিয়ে নিয়েছে আওয়ামী লীগ : এইচ. এম. এরশাদজঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দমনে পুলিশের সাফল্য দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীমাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ এ মাসেই শুরু হচ্ছেযশোরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী পালসার বাবু নিহতদেশজুড়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ উৎসব২০১৭'র বিদায় : নতুন বছর ২০১৮ কে বরণ করে নিল জাতিঅগ্রগতি ৫০ শতাংশের বেশি ॥ যথা সময়ে শেষ হবে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ : কাদেররাবির স্নাতক প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু ২১ জানুয়ারি
  • ঢাকা উত্তর সিটি'র উপ-নির্বাচনে আদালতের ৩ মাসের স্থগিতাদেশসুন্দরবনের ৩ কুখ্যাত জলদস্যুবাহিনীর প্রধানসহ ৩৮ জনের আত্মসমর্পণজাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণ : ভবিষ্যতে বাংলাদেশে জাতীয় ঐক্যের দাবি প্রধানমন্ত্রী'ররাজধানী'র জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের সফল অভিযান : ৩ মৃতদেহ ও বিস্ফোরক উদ্ধারপদোন্নতি পেলেন বঙ্গবন্ধু'র খুনিদের গ্রেফতারকারী প্রথম পুলিশ অফিসারবিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণীআম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বরাজধানীতে তীব্র গ্যাস সংকট : জনমনে ক্ষোভ জঙ্গি ও অন্যান্য অপরাধ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল হয়েছে : আইজিপিঅর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি'র সভায় ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনপুলিশকে আমি সব সময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই : প্রধানমন্ত্রীফারমার্স ব্যাংক কর্তৃক-জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিলসহ আমানতকারীদের অর্থ ফেরত না দেয়ায় টিআইবি’র উদ্বেগসুন্দরগঞ্জের আসনটি ছিনিয়ে নিয়েছে আওয়ামী লীগ : এইচ. এম. এরশাদজঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দমনে পুলিশের সাফল্য দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীমাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ এ মাসেই শুরু হচ্ছেযশোরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী পালসার বাবু নিহতদেশজুড়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ উৎসব২০১৭'র বিদায় : নতুন বছর ২০১৮ কে বরণ করে নিল জাতিঅগ্রগতি ৫০ শতাংশের বেশি ॥ যথা সময়ে শেষ হবে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ : কাদেররাবির স্নাতক প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু ২১ জানুয়ারি
উপরে