প্রকাশ : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২৩:৪৭:৪০
সুদ এবং দানের সম্পদকে আল্লাহ কি করতে চান?
ডাঃ হাফেজ মাওলানা মোঃ সাইফুল্লাহ মানসুর : উত্তর : আল্লাহ সুদকে নিশ্চিহ্ন বা নিঃশেষ করে দিতে চান কেননা সুদ সমাজের নৈতিক, আধ্যাত্মিক, অর্থনৈতিক ও তামাদ্দুনিক শক্তিকে ধ্বংশ করে দেয়।
আর দানকে তিনি বর্ধিত ও বিকশিত করেন কারন দান-খয়রাতের মাধ্যমে সমাজের নৈতিক, আধ্যাত্মিক, তামাদ্দুন ও অর্থনীতি সবকিছুরই উন্নতি ও বিকাশ ঘটায়।
আল্লাহ তা’য়ালা বলেন- الصَّدَقَاتِ وَيُرْبِي الرِّبَا اللَّهُ يَمْحَقُ অর্থাৎ আল্লাহ সুদকে নিশ্চিহ্ন করেন এবং দানকে বর্ধিত বা বিকশিত করেন। বাকারা-২৭৬
রাসুল (সঃ) বলেন- সুদ যদিও বৃদ্ধি পায় কিন্তু এর শেষ পরিণতি হচ্ছে স্বল্পতা”। [মুসনাদে আহমাদঃ ১/৩৯৫]

সুদের ক্ষতিকর দিক গুলি কি কি?

সুদের মধ্যে রয়েছে নানাবিধ ক্ষতির কারন যা নিম্নে প্রকাশ করা হলো-

১. সুদ মানুষের নৈতিক, আধ্যাত্মিক শক্তিকে ধ্বংশ করে দেয়।
২. সুদ মানুষের স্বার্থপরতা, কৃপণতা, সংকীর্ণতা শেখায়।
৩. সুদ সমাজে ঘৃণা ও বিদ্বেষ সৃষ্টি করে।
৪. সুদ সঞ্চয়কারীদের মধ্যে অলসতা সৃষ্টি করে।
৫. সুদ নৈতিক অবক্ষয় সাধন করে।
৬. সুদ সমাজ শোষণের কার্যকরী শক্তিশালী মাধ্যম।
৭. সুদ বিত্তবানকে আরো বিত্তবান এবং দরিদ্রকে আরো দরিদ্র করে।
৮. সুদ পরিবেশকে ধ্বংস করে।
৯. সুদ মানুষকে ঋণের ভারে জর্জরিত করে।
১০. সুদ জীবনীশক্তি ক্ষয় ও কর্মক্ষমতা হ্রাস করে।
সর্বশেষ সংবাদ
  • দশম জাতীয় সংসদের ২২তম অধিবেশন সমাপ্ত : ১৮টি বিল পাসস্বাস্থ্যসেবার সুযোগ বাড়াতে ১১ কোটি ডলার ঋণ সহায়তা দেবে এডিবিরোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়াতে হবে : ওআইসি২০৪১ সাল নাগাদ বাংলাদেশের-প্রতিবেশী দেশগুলো থেকে ৯ হাজার মেগা: বিদ্যুৎ আমদানির পরিকল্পনা রয়েছেআগামী ৩০ অক্টোবরের পর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল : ইসি সচিবশেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি আজ ৫'শ মেগা: বিদ্যুৎ সরবরাহের উদ্বোধন করবেনডেঙ্গু বিস্তারের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদেরদশম জাতীয় সংসদের ২২ তম অধিবেশন চলাকালীন ডিএমপি'র নিষেধাজ্ঞাশক্তিশালী পাকিস্তানকে হারিয়ে সেমি-ফাইনালের পথে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ৫১ হজ ফ্লাইটে ১৮ হাজার ৬৯৩ জন হাজী দেশে ফিরেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন চলতি বছরের ডিসেম্বরের শেষে : ইসি সচিবরুট পারমিটবিহীন যান চলাচল বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশসমূদ্র বন্দরগুলোকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছেরোহিঙ্গা গণহত্যার দায়ে মিয়ানমারের সেনাপ্রধানের বিচার আহ্বান জাতিসংঘের তদন্তকারীদলের ঝিকরগাছা পৌর আ'লীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস হোসেনের অন্তিম বিদায় থাইল্যান্ডকে ৩-১ গোলে হারিয়ে ষষ্ঠ স্থান নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশআজ জাতীয় বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুলের ৪২ তম মৃত্যুবার্ষিকী শোলাকিয়া ময়দানে দেশের বৃহত্তম ঐতিহাসিক ঈদ জামাত অনুষ্ঠিতত্যাগের মহিমায় সারাদেশে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিতসন্দেহ নেই গ্রেনেড হামলায় খালেদা-তারেক জড়িত ছিল : প্রধানমন্ত্রী
  • দশম জাতীয় সংসদের ২২তম অধিবেশন সমাপ্ত : ১৮টি বিল পাসস্বাস্থ্যসেবার সুযোগ বাড়াতে ১১ কোটি ডলার ঋণ সহায়তা দেবে এডিবিরোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়াতে হবে : ওআইসি২০৪১ সাল নাগাদ বাংলাদেশের-প্রতিবেশী দেশগুলো থেকে ৯ হাজার মেগা: বিদ্যুৎ আমদানির পরিকল্পনা রয়েছেআগামী ৩০ অক্টোবরের পর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল : ইসি সচিবশেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি আজ ৫'শ মেগা: বিদ্যুৎ সরবরাহের উদ্বোধন করবেনডেঙ্গু বিস্তারের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদেরদশম জাতীয় সংসদের ২২ তম অধিবেশন চলাকালীন ডিএমপি'র নিষেধাজ্ঞাশক্তিশালী পাকিস্তানকে হারিয়ে সেমি-ফাইনালের পথে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ৫১ হজ ফ্লাইটে ১৮ হাজার ৬৯৩ জন হাজী দেশে ফিরেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন চলতি বছরের ডিসেম্বরের শেষে : ইসি সচিবরুট পারমিটবিহীন যান চলাচল বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশসমূদ্র বন্দরগুলোকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছেরোহিঙ্গা গণহত্যার দায়ে মিয়ানমারের সেনাপ্রধানের বিচার আহ্বান জাতিসংঘের তদন্তকারীদলের ঝিকরগাছা পৌর আ'লীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস হোসেনের অন্তিম বিদায় থাইল্যান্ডকে ৩-১ গোলে হারিয়ে ষষ্ঠ স্থান নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশআজ জাতীয় বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুলের ৪২ তম মৃত্যুবার্ষিকী শোলাকিয়া ময়দানে দেশের বৃহত্তম ঐতিহাসিক ঈদ জামাত অনুষ্ঠিতত্যাগের মহিমায় সারাদেশে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিতসন্দেহ নেই গ্রেনেড হামলায় খালেদা-তারেক জড়িত ছিল : প্রধানমন্ত্রী
উপরে