প্রকাশ : ১৫ জুন, ২০১৭ ০২:২৪:৪৯
রমজানে সেহরি খাওয়া কেন গুরুত্বপূর্ণ
বাংলাদেশ বাণী, লাইফস্টাইল ডেস্ক : রোজার সময় সেহরি একটি গুরুত্বপূর্ণ খাবারের সময়। ভোরের সূর্য উদিত হওয়ার আগের এই সময়টায় পৃথিবীর সব মানুষ ঘুমিয়ে থাকলেও যারা রোজা রাখেন তারা জেগে ওঠেন এবং রোজার রাখার প্রস্তুতি হিসেবে খাওয়া দাওয়া করেন। কিন্তু অনেকেই দেরিতে ঘুমান বলে সেহরি খাওয়া এড়িয়ে যান, যা করা ঠিক নয়। সেহরি খাওয়া কেন গুরুত্বপূর্ণ এবং সেহরিতে কী ধরনের খাবার খাওয়া উচিৎ তা জেনে আসি চলুন।  

১। এটি আপনার সারাদিনের কর্ম শক্তি যোগায় এবং রোজা রাখাকে সহজ ও সহনীয় করে তুলে।

২। এটি বমি বমিভাব ও মাথাব্যথা প্রতিরোধ করে রক্তের চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে।

৩। সারাদিনে তৃষ্ণা কমায়

৪। হজমকে সহজ ও কার্যকরী করে

৫। পুষ্টির চাহিদা পূরণ করে

স্বাস্থ্যকর সেহরির জন্য কিছু টিপস :

১। শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় সকল খাদ্য উপাদান (যেমন- প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, ভিটামিন এবং মিনারেল) থাকা উচিৎ সেহরির খাবারে। তাছাড়া সহজে হজম হয় এবং পাকস্থলীর সমস্যা সৃষ্টি করেনা এমন খাবার খাওয়া উচিৎ সেহরিতে।

২। রোজার সময় যাতে তৃষ্ণাকে এড়িয়ে যাওয়া যায় এজন্য সেহরিতে পর্যাপ্ত পানি, অন্তত ২ গ্লাস পানি পান করুন।

৩। আচার বা লবণাক্ত বাদাম খাওয়া এড়িয়ে যান। চর্বিযুক্ত ও ভাঁজাপোড়া খাবার ও এড়িয়ে যাওয়া উচিৎ যা তৃষ্ণা বৃদ্ধি করতে পারে।

৪। পুডিং এর মত হালকা মিষ্টি খাবার খেতে পারেন, যা আপনাকে শক্তি যোগাবে।   

সেহরিতে কী খাবেন?   ১। জটিল কার্বোহাইড্রেট যেমন-১ কাপ ভাত বা স্পেগেটি, ২ টুকরো পাউরুট, বা ১ বল হোল  গ্রেইন সিরিয়াল খেতে পারেন। উচ্চমাত্রার ফাইবারযুক্ত খাবার যেমন-বাদামী চাল বা আস্ত শস্যের রুটি হজম হতে সময় লাগে এবং দীর্ঘ সময় যাবৎ শক্তির মাত্রা ঠিক রাখে।

২। প্রোটিন যেমন-৪ টুকরো পনির, ৬০ গ্রাম মাংস, ২ টা ডিম বা ১ কাপ লিগিউম জাতীয় খাবার (মটরশুঁটি) গ্রহণ করুন। প্রোটিন দেহের কোষ কলার মেরামতে সাহায্য করে এবং ইমিউন সিস্টেম গঠনে সাহায্য করে।  

৩। সালাদ বা সবজির মিশ্রণ খান।

৪। তাজা ফল খান। কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধে সাহায্য করে ফাইবারযুক্ত ফল ও সবজি।

৫। ১ গ্লাস দুধ বা ১ কাপ দই খান। উচ্চমাত্রার ক্যালসিয়ামযুক্ত দুগ্ধ পণ্য হাড়কে শক্তিশালী হতে সাহায্য করে।

সেহরিতে শিশুদের কী খেতে দেবেন?  

যে শিশুরা রোজা রাখে তাদের ডিম, পনির, রুটি, খেজুর, ১ চা চামচ মধু এবং দুধ খেতে দেয়া উচিৎ। এই খাবারগুলোতে বি ভিটামিন, ক্যালসিয়াম, প্রোটিন এবং কার্বোহাইড্রেট থাকে যা হজমকে সক্রিয় করে তুলে এবং রোজা রাখার জন্য শিশুর যে শক্তি প্রয়োজন তা সরবরাহ করে।   

মধ্যরাতে সেহরি খেয়ে ফেলা কী ভালো?

সেহরি খাওয়ার সবচেয়ে উপযুক্ত সময় হচ্ছে সূর্যোদয়ের পূর্বে। যদিও এর জন্য আপনাকে খুব ভোরে জাগতে হয়। কিন্তু যথা সময়ে সেহরি খেলে আপনার শরীর উপকৃত হয়। কারণ সেহরিতে আপনি যে খাবার গ্রহণ করবেন তা থেকেই আপনি রোজা রাখার জন্য পর্যাপ্ত শক্তি ও পুষ্টি পাবেন।

তথ্যসূত্র : নেস্টলে ফ্যামিলি
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
উপরে