প্রকাশ : ২৩ নভেম্বর, ২০১৮ ০৩:৫০:৫৫
নদী খনন, ড্রেজিং ও সংরক্ষণের অভাব-
সুন্দরগঞ্জে তিস্তায় একাধিক শাখা নদী পারাপারে জনদুর্ভোগ চরমে
বাংলাদেশ বাণী, মোঃ হযরত বেল্লাল, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি : নদী খনন, ড্রেজিং, শাসন ও সংরক্ষণের অভাবে তিস্তার গতিপথ পরিবর্তন হয়ে একাধিক শাখা নদীতে পরিনত হয়েছে। শাখা নদীগুলোতে নৌকা চলাচলের অনুপযোগি হওয়ায় পারাপারে চরম দুর্ভোগে পড়েছে তিস্তার দুই পারের মানুষজন।
ধু-ধু বালুচর ও একাধিক শাখানদীর হাঁটু এবং কমর পানি পাড়ি দিয়ে পায়ে হেঁটে প্রতিদিন চলাচল করতে হচ্ছে চরাঞ্চলের মানুষজনকে। অনেক শাখানদীর উপর নড়বড়ে বাঁশের ও কাঁঠের সাঁকো থাকলেও তা ব্যবহারের অনুপযোগি হয়ে গেছে। বিশেষ করে স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীও দুর পথের যাত্রীদের বিপাকে পড়তে হচ্ছে। শাখানদী পার হতে গিয়ে পরণের প্যান্ট, স্যালোয়ার, লুঙি, শাড়ি ও পায়জামা ভিজে যাচ্ছে পথচারিদের।

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বেলকা, তারাপুর, হরিপুর, চন্ডিপুর, শ্রীপুর ও কাপাসিয়া ইউনিয়নের উপর দিয়ে  প্রবাহিত রাক্ষুসি তিস্তানদী দীর্ঘদিনেও খনন, ড্রেজিং, শাসন ও সংরক্ষণ না করায় উজান থেকে নেমে আসা পলিজমে ধু-ধু বালু চরে পরিনত হয়েছে। নদী ভরাট হয়ে যাওয়ার কারনে গতিপথ পরিবর্তন হয়ে একাধিক শাখানদীতে রুপ নিয়েছে তিস্তা।

প্রতিদিন হাজারও মানুষজন ও শিক্ষার্থী কুড়িগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা হতে লালচামার, পাচঁপীর, হরিপুর, বেলকা, রামডাকুয়া ও চরখোদ্দা রুট হয়ে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জসহ বিভিন্ন উপজেলায় পড়া লেখা এবং কর্মসংস্থানের জন্য যাওয়া আসা করতে হচ্ছে। যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হওয়ায় প্রতিনিয়ত অসহনীয় দুর্ভোগ পোয়াতে হচ্ছে তাদেরকে।

নদী ভরাট ও গতিপথ পরিবর্তন হওয়ায় হাজার নৌ-শ্রমিক বেকার হয়ে পড়েছে। এখন তিস্তায় চলাচলের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে ঘোড়ার গাড়ী। তাছাড়া মোটর সাইকেল ও বাইসাইকেলে চড়ে অনেকে পারাপার হচ্ছে। তবে বন্যার সময় ২ হতে ৩ মাস তেমন দুর্ভোগ পোয়াতে হয়না।

উপজেলার বেলকা ইউনিয়নের তালুক বেলকা চরের স্মৃতি বেগম জানান তিনি গাইবান্ধা সরকারি কলেজের একজন শিক্ষার্থী। সপ্তাহে ২ হতে ৩ দিন  তাকে কলেজে যেতে হয়। তিনি বলেন বর্ন্যার সময় ছাড়া শুকনা মৌসুমে তার বাড়ি হতে উপজেলা শহরে পৌছঁতে তাকে ২টি শাখানদী পায়ে হেটে এবং একটি শাখানদী বাশেঁর সাঁকোর উপর দিয়ে পার হতে হয়।

সে কারণে তাকে অনেক কষ্ট করতে হয় প্রতিনিয়ত। উপজেলার জরমনদী গ্রামের চাকরিজীবি সালাম মিয়া জানান প্রতিদিন তাকে তিস্তার ৮ হতে ৯টি শাখানদী পার হয়ে কুড়িগ্রামের উলিপুর শিক্ষা অফিসে গিয়ে চাকরি করতে হয়। এতে করে তাকে চরম দুর্ভোগ পোয়াতে হয়।

হরিপুর ইউপি চেয়ারম্যান নাফিউল ইসলাম জানান, পরিবেশকে বাচাঁতে হলে নদী খনন, ড্রেজিং, ও সংরক্ষণ করা একান্ত প্রয়োজন। তা না হলে অল্প সময়ের মধ্যে উপজেলার উপর দিয়ে প্রবাহিত তিস্তানদীর চরাঞ্চল মরুভুমিতে পরিনত হবে। নষ্ট হয়ে যাবে জীব বৈচিত্র ও পরিবেশের বিচিত্ররুপ।

গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোখলেছুর রহমান জানান, নদী খনন, ড্রেজিং, সংরক্ষন করা একটি দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনা। সে কারনে এটি সরকারের উপর মহলের সিদ্ধান্তের ব্যাপার। তবে নদী সংরক্ষণে গাইবান্ধার জন্য একটি বরাদ্দ পাস হয়েছে।

 
সর্বশেষ সংবাদ
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
উপরে