প্রকাশ : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০২:৪৫:২৫
শেরপুর-২ : নকলা-নালিতাবাড়ী জাতীয় সংসদের নির্বাচনী আমেজে মুখরিত
বাংলাদেশ বাণী, ইউসুফ আলী মন্ডল, নকলা, (শেরপুর) প্রতিনিধি : জাতীয় সংসদের আসন ১৪৪ । শেরপুর-২, নকলা-নালিতাবাড়ী নির্বাচনী আমেজে মুখরিত। এই আসনটি বাংলাদেশ সরকারের প্রভাবশালী মন্ত্রী ও সফল কৃষিমন্ত্রী অগ্নিকন্যা বেগম মতিয়া চৌধুরীর দীর্ঘদিনের ধরে রাখা আসন। স্বাধীনতার পর একেক সময় একেক দল ক্ষমতায় থাকায় তেমন কোন উন্নয়ন হয়নি।

কিন্তু সফল মন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী টানা ৪ বার সংসদ পদ লাভ করায় উন্নয়নের আলো দেখতে শুরু করেছে এলাকাবাসী। শেরপুর-২ নকলা, নালিতাবাড়ী আসনটি ময়মনসিংহের উত্তরে বাংলাদেশ সীমানা ঘেরা গারো পাহাড় এলাকা অদ্যশিত এলাকায় অবস্থিত।

কৃষি ফসল উৎপাদনে রেকড সৃষ্টি করেছে এলাকার মানুষ আর কৃষিতে পরিবর্তন ঘটিয়েছেন বেগম মতিয়া চৌধুরী এ জন্য সাধারণ মানুষের নিকট তার  আস্থা রয়েছে অনেক বেশি। কিন্তু আ'লীগ নেতাদের তুচ্ছতালিন্ন করে কতিপয় ক্ষমতাসীন নেতা দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা করায় দলের মধ্যে রাগে ক্ষোভে ফেটে উঠছে দলের নেতা কর্মীরা।

নালিতাবাড়ী উপজেলায় ১২ টি ইউনিয়ন ১ টি পৌরসভায় মোট লোক সংখ্যা ৩ লাখ ৫৬ হাজার তার মধ্যে ২ লাখ ৬ হাজার ভোটার রয়েছে নকলা উপজেলায় লোক সংখ্যা ২ লাখ ৭০ হাজার তার মধ্যে ১ লাখ ৪৮ হাজার ৪ শ ৮২ জন ভোটার রয়েছে। পুরুষ ভোট ৭৩ হাজার ২শ, নারী ভোট ৭৫ হাজার ৯৮জন। এ আসনে জাতীয় পার্টির এরশাদ আমলে অধ্যাপক আব্দুস ছালাম, স্বরাষ্ট্র উপমন্ত্রী থাকার পরও কোন উন্নয়ন করতে পারেনি।

২০০১এ বিএনপি সরকার ক্ষমতা থাকা অবস্থায় বিএনপির সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জাহেদ আলী চৌধুরী  উন্নয়নের কাজ হাতে নিলেও অনেক অংশ সমাপ্ত করতে পারেনি। বর্তমানে মতিয়া চৌধুরী টানা কয়েকবার ক্ষমতা থাকার সুবাধে উন্নয়নের অনেক ধাব বাস্তবায়ন হয়েছে।

বর্তমানে মতিয়া চৌধুরীর মত সৎ মানুষের পাশেও একাধিক আঃলীগ দলের প্রার্থী নৌকা প্রতিক পাওয়ার জন্য দিন রাত জনগণের সাথে গ্রুপ সৃষ্ঠি করছেন। নিজের পরিচিতি ভোট ব্যাংক হিসাব নিকাশ প্রার্থীতা ঘোষণা সভা সমাবেশ মতবিনিময় গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। আগে শুনেছি মায়ের চেয়ে মাসির দরদ বেশি হয় না এখন দেখি তার উল্টো, আরো শুনেছি একদিন এক আতœীয় বাড়ির আতœীয়ের মৃত্যুর সংবাদে বেদনা জানাতে আসা এক যুবক অনরবল কাঁদচ্ছে তখন যুবককে জিজ্ঞাসা করলাম মৃত ব্যক্তি তোমার কি হয় যুবক বলল আমার ভাইরার ভাই তখন আমি বললাম তোমার পিতা মারা গেলে কত ঘন্টা কেঁদেছিলে। উত্তরে যুবক বলল  মৃত্যুর দিনে ১ ঘন্টা।

নকলা, নালিতাবাড়ী আ’লীগ দলের রাজনীতিতে এমনটাই হয়েছে যে, আসল মায়ের চেয়ে মাসির দরদ বেশি দেখাচ্ছেন নেতা কর্মীরা। যারা মতিয়া চৌধুরীর পিছনে অত্যান্ত নিরলসভাবে শ্রম দিয়ে থাকে দরদ দিয়ে দলের কথা বলে তারা তো অনেকেই অন্য দল থেকে এসেছে। বাংলাদেশ সরকারের সফল কৃষি মন্ত্রী ,সৎ ও নিষ্ঠাবান বেগম মতিয়া চৌধুরী অনেক অংশেই ভালো।

তার নিজের কোন বাড়ি, গাড়ী নাই, ব্যাংক ব্যালেন্স নাই,ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নাই তাই তিনি সৎ। কিন্তু মাঠ কর্মীদের একঘেয়েমী ক্ষমতার দাপট মতিয়া চৌধুরীকে ডুবিয়ে ছাড়বে। নকলা, নালিতাবাড়ীর পরিক্ষীত এবং প্রবিণ আঃলীগদের মূল্যায়ন করেননি আ’লীগ দল। উল্লেখ্য, যারা একসময় ছিল এখানকার নৌকার কান্ডিরী, জাতির পিতার শেখ মুজিবুর রহমানের চিরদিনের ভক্ত। তারা ছিটকে পড়েছেন সড়ে পড়েছে তাদের পরিবার।

নালিতাবাড়ীর দীর্ঘদিনের পরিক্ষিত নেতা আব্দুল হালিম উকিল, সাবেক এমপি মিজানুর রহমান, সাবেক এমপি আব্দুল হাকিমের পরিবার, সাবেক এমপি নাদেরুজ্জামানের পরিবার, কৃষক নেতা বঙ্গবন্ধুর চিরদিনের ভক্ত আলাউদ্দিন তালুকদারের পরিবার, মরহুম মোজাম্মেল হক স্যারের পরিবার দলের কাছে লাপাত্তা হয়েছেন। বর্তমানে নতুন নেতাদের আদর কদর বেড়ে গেছে, উভয় উপজেলাতে কমিটি গঠনের সময় নতুনদের ও দল যাচাই না করে পদে বহাল করা হয়েছে। বাদ পড়েছে দলের একনিষ্ঠ কর্মীরা। বর্তমানে মাঠে শোনা যাচ্ছে আধি আ’লীগ আসল আ’লীগ এই নিয়ে বিরোদ। আলাদা ব্যানারে দলের কার্যক্রম চলে।

নকলা চলে মন্ত্রী সমর্থীত এক গ্রুপের কার্যক্রম আরেক গ্রুপ তার বিরুদীতা করে। নালিতাবাড়ী চলে ৩ গ্রুপের কার্যক্রম। আসন্ন নির্বাচনে আ’লীগের প্রতি সাধারণ লোকের আস্থা থাকলেও অবিশ্বাস বেড়েছে দলের ভিতর যে কারণে একাধিক প্রার্থী নৌকা প্রতিক নিয়ে ভোট যুদ্ধে নামবেন বলে মাঠ গরম করে চলেছেন। তারা হলেন কৃষি মন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, একসময়ের আলোচিত ছাত্র নেতা বদিউজ্জামান বাদশা, নালিতাবাড়ী আ’লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোখলেছুর রহমান লেবু।

বিএনপি থেকে ব্যারিষ্টার এম হায়দার আলী, ফাহিম চৌধুরী, মোখলেছুর রহমান রিপন দানের শীষের মনোনয়ন পেতে চেষ্ঠা করছেন, জাতীয় পার্টির সাবেক স্বরাষ্ট্রউপমন্ত্রী মরহুম আব্দুস ছালামের পুত্র শওকত সাঈদ লাঙ্গল প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন। দু’উপজেলার সচেতন নাগরিকরা বলছেন নকলা, নালিতাবাড়ী আ’লীগের অবস্থা অনেকটা ভালো থাকলেও দলীয় কোন্দলের কারণে নির্বাচনের মাঠে ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অভিমত।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • ঢাকা উত্তর সিটি'র উপ-নির্বাচনে আদালতের ৩ মাসের স্থগিতাদেশসুন্দরবনের ৩ কুখ্যাত জলদস্যুবাহিনীর প্রধানসহ ৩৮ জনের আত্মসমর্পণজাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণ : ভবিষ্যতে বাংলাদেশে জাতীয় ঐক্যের দাবি প্রধানমন্ত্রী'ররাজধানী'র জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের সফল অভিযান : ৩ মৃতদেহ ও বিস্ফোরক উদ্ধারপদোন্নতি পেলেন বঙ্গবন্ধু'র খুনিদের গ্রেফতারকারী প্রথম পুলিশ অফিসারবিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণীআম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বরাজধানীতে তীব্র গ্যাস সংকট : জনমনে ক্ষোভ জঙ্গি ও অন্যান্য অপরাধ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল হয়েছে : আইজিপিঅর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি'র সভায় ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনপুলিশকে আমি সব সময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই : প্রধানমন্ত্রীফারমার্স ব্যাংক কর্তৃক-জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিলসহ আমানতকারীদের অর্থ ফেরত না দেয়ায় টিআইবি’র উদ্বেগসুন্দরগঞ্জের আসনটি ছিনিয়ে নিয়েছে আওয়ামী লীগ : এইচ. এম. এরশাদজঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দমনে পুলিশের সাফল্য দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীমাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ এ মাসেই শুরু হচ্ছেযশোরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী পালসার বাবু নিহতদেশজুড়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ উৎসব২০১৭'র বিদায় : নতুন বছর ২০১৮ কে বরণ করে নিল জাতিঅগ্রগতি ৫০ শতাংশের বেশি ॥ যথা সময়ে শেষ হবে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ : কাদেররাবির স্নাতক প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু ২১ জানুয়ারি
  • ঢাকা উত্তর সিটি'র উপ-নির্বাচনে আদালতের ৩ মাসের স্থগিতাদেশসুন্দরবনের ৩ কুখ্যাত জলদস্যুবাহিনীর প্রধানসহ ৩৮ জনের আত্মসমর্পণজাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণ : ভবিষ্যতে বাংলাদেশে জাতীয় ঐক্যের দাবি প্রধানমন্ত্রী'ররাজধানী'র জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের সফল অভিযান : ৩ মৃতদেহ ও বিস্ফোরক উদ্ধারপদোন্নতি পেলেন বঙ্গবন্ধু'র খুনিদের গ্রেফতারকারী প্রথম পুলিশ অফিসারবিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণীআম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বরাজধানীতে তীব্র গ্যাস সংকট : জনমনে ক্ষোভ জঙ্গি ও অন্যান্য অপরাধ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল হয়েছে : আইজিপিঅর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি'র সভায় ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনপুলিশকে আমি সব সময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই : প্রধানমন্ত্রীফারমার্স ব্যাংক কর্তৃক-জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিলসহ আমানতকারীদের অর্থ ফেরত না দেয়ায় টিআইবি’র উদ্বেগসুন্দরগঞ্জের আসনটি ছিনিয়ে নিয়েছে আওয়ামী লীগ : এইচ. এম. এরশাদজঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দমনে পুলিশের সাফল্য দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীমাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ এ মাসেই শুরু হচ্ছেযশোরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী পালসার বাবু নিহতদেশজুড়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ উৎসব২০১৭'র বিদায় : নতুন বছর ২০১৮ কে বরণ করে নিল জাতিঅগ্রগতি ৫০ শতাংশের বেশি ॥ যথা সময়ে শেষ হবে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ : কাদেররাবির স্নাতক প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু ২১ জানুয়ারি
উপরে