প্রকাশ : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০২:৫৮:০৭
জগন্নাথপুরে কুশিয়ারা নদীতে নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা
বাংলাদেশ বাণী, জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি : কোন মিস্ত্রী নাও বানাইল কেমন দেখা যায়, ঝিলমিল ঝিলমিল করেরে ময়ূর পঙ্কী নায়। লোকসংস্কৃতির রাজধানী খ্যাত হাওর অধু্যুসিত সুনামগঞ্জ জেলার মানুষের অন্যতম বিনোদন মাধ্যম আবহমান বাংলার ঐতিয্যের নৌকা বাইচ। নদী মাতৃক বাংলাদেশে নদীর তরঙ্গের সংঙ্গে যেমন এদেশের মানুষের মিতালী, তেমনি হাওর অধ্যুষিত সুনামগঞ্জের মাটি ও মানুষের সাথে নদী ও হাওরের সম্পর্ক একেকার হয়ে মিশে আছে। এ এলাকায় নৌকা শুধু যোগাযোগের মাধ্যম নয় এখানের মানুষের প্রানোচ্ছল জলক্রীড়া সঙ্গি।

সম্প্রতি বন্যায় সুনামগঞ্জের ফসল হারা মানুষ দুঃখ বেদনা ভূলে ঐতিয্যের অন্যমতম বিনোদন নৌকা বাইচ দেখতে গত কাল জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ ফেরী ঘাটে প্রবাহমান কুশিয়ারা নদীর পাদদেশে জড়ো হয়ে নারী, শিশুসহ সকল শ্রেনী পেশার কয়েক হাজার মানুষ নির্মল আনন্দে মেতে উঠে।

রোমাঞ্চময় এই নৌকা প্রতিযোগীতায় জগন্নাথপুর উপজেলার আলাগদি গ্রামের মানিক মিয়ার রিয়াজ পবন,পাইলগাঁও গ্রামের শাহ দামড়ী (জলপরী), নবীগঞ্জ উপজেলার পূর্ব বড়ভাকৈর ইউনিয়নের বাগাউড়া গ্রামের তাহির মিয়ার শাপলাজল এ প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহন করে। উক্ত প্রতিযোগিতায় আলাগদি গ্রামের রিয়াজ পবন প্রথম স্থান অর্জন করে, বাগাউড়া গ্রামের শাপলাজল দ্বিতীয় ও পাইলগাঁও গ্রামের শাহদামড়ী (জলপরী) তৃতিয় স্থান অর্জন করে।পরে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন, পরিচালনা কমিটির সদস্য বাগময়না গ্রামের মোঃ আজাদ মিয়া, আব্দুল  আলী, মোঃ জবরুল ইসলাম, মোঃ আরজান মিয়া, মোঃ কাপ্তান মিয়া, মোঃ বাতির মিয়া মোঃ ছালেহ হক, সোহেল আহমদ, মোঃ শাহি আহমদ, সাবেক মেম্বার আব্দুল তাহিদ জুয়েল, হালিম মিয়া, সেনুজ মিয়া, আবুল কাসেম, ফেরদীস মিয়া, মোঃ ছোট মিয়া, আখলিছ মিয়া, মোঃ রকিব মিয়া, মোঃ গুলফর মিয়া, মোঃ কাপ্তান মিয়া,মোঃ লিলু মিয়া, মোঃ ইকবাল হোসেন, রানা মিয়া, জালাল মিয়া,আল আমিন,সাজু মিয়া,কন্নাল মিয়া, জাহিদুল ও আলিফ উদ্দিন।

গন্ধর্ব্বপুর গ্রামের হাজী এখলাছুর রহমান আখলই, মোঃ ফখরুল ইসলাম শান্ত, রাজীব তালুকদার, খলিল মিয়া, আল আমিন।
রানীগঞ্জ বাজারের সাংবাদিক গোলাম সারোয়ার, মোঃ আকরাম হোসেন, রজত রায়, রনি রায়, দিবাংশু রায়, মোঃ রাসেল আহমদ, হলদিপুর ইউনিয়নের মেম্বার সুলতান আহমদ।
সর্বশেষ সংবাদ
  • বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ : বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি, সোমবার শাহবাগে ‘আনন্দ উৎসব ও স্মৃতিচারণ’ আজ বসছে দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন
  • বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ : বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি, সোমবার শাহবাগে ‘আনন্দ উৎসব ও স্মৃতিচারণ’ আজ বসছে দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন
উপরে