প্রকাশ : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১৯:৩০:৫০
কুড়িগ্রামে পাঁচ শ’ বছরের বিশাল শিমুলগাছটি কালের সাক্ষী হয়ে আছে
বাংলাদেশ বাণী টোয়েন্টিফোর ডটকম, জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম জেলা  প্রতিনিধি : কুড়িগ্রাম জেলার সীমান্ত ঘেঁষা ফুলবাড়ী উপজেলায় পাঁচ শ’বছরের পুরনো দৃষ্টি নন্দিত বিশালাকৃতির একটি শিমুল গাছ রয়েছে। ফুলবাড়ি উপজেলা সদর থেকে ৩ কিলোমিটার উত্তর-পূর্ব দিকে কুটিচন্দ্রখানা গ্রামে এ গাছটির অবস্থান। ৮ শতাংশ জমির উপর দাঁড়িয়ে থাকা আনুমানিক ১৫০ ফুট লম্বা শিমুলগাছটির গোড়ার পরিধি ৮৬ ফুট। গাছটার কাছে গেলেই মনে হবে সৃষ্টি কর্তা যেন বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের স্মৃতি ধরে রাখতে প্রকৃতিতে তৈরি করেছেন, আর একটি স্মৃতিসৌধ। স্মৃতিসৌধের মত দেখতে এ গাছটার গোড়ার পাশে দাঁড়ালে মনে হবে এ যেন পাহাড়ের পাদদেশ। গাছের গোড়ায় দাঁড়িয়ে ছবি ওঠালে ছবিটি দেখে যে কেউ মনে করবে এ ছবি পাহাড়ের পাদদেশের অথবা স্মৃতিসৌধের পাশে। আশ্চর্যজনক এ গাছটা দেখার জন্য প্রতিনিয়ত কুটিচন্দ্রখানা গ্রাম পদচারণায় মুখরিত হচ্ছে হাজারো প্রকৃতি প্রেমি মানুষ। গাছটাকে নিয়ে মিডিয়ায় সম্প্রচার না হওয়ায়, প্রকৃতি প্রেমি মানুষ ও দেশি বিদেশি পর্যটকদের দেখা যাচ্ছে না।
শুধু মুখে শুনে ছুটে আসছেন প্রকৃতি প্রেমি স্থানীয় কিছু মানুষ। মুখে শুনে এ গাছ দেখতে আসা ঢাকার স্টুডেন্ট কেয়ার হাইস্কুলের সিনিয়র শিক্ষক আলমগীর হাসিবুর রহমান জানান, তিনি আশ্চর্যজনক বিশালাকৃতির এ গাছ দেখে অভিভূত হয়েছেন। তিনি বাংলাদেশের অনেক স্থানে বেড়িয়েছেন। কিন্তু এমন দৃষ্টিনন্দন গাছ কোথাও দেখেন নি। একই কথা জানালেন পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলা থেকে আসা যুবক খালেদ মাসুদ, লালমনিরহাট থেকে আসা আসাদুজ্জামান, ভুরুঙ্গামারী থেকে আসা যুবক জহুরুল ইসলামসহ আরও অনেকে। কুটিচন্দ্রখানা গ্রামে লোকজনের কাছে শোনা গেছে, এ গাছের অলৌকিক দৃশ্যপট ও যৌবন কথা। এ গ্রামের তরুণ যুবক বয়োবৃদ্ধ সবাই জানিয়েছেন, গাছটার অলৌকিক ও যৌবনকথার গল্প।
গাছ সম্পর্কে নানান জন নানা কথা বললেও আসলে গাছটার বয়স কত? তা জানাতে পারেননি কেউ। এই গ্রামের ১২০ বছর বয়সী বৃদ্ধ আফছার আলী জামালপুরি, ১১৪ বছরের বৃদ্ধা মোহিনী বালাসহ প্রবীণ আরো অনেকেই জানিয়েছেন, আমরা আগে যেমন শিমুল গাছটা দেখেছি ঠিক তেমন অবস্থায় গাছটা এখনও রয়েছে। ঝড় বাতাসে ডাল পালা না ভাঙ্গায়, গাছটা এখনও অক্ষত অবস্থায় রয়েছে। তাদের ধারণা মতে, শিমুলগাছটার বয়স পাঁচ শ’ বছরেরও বেশি হতে পারে। এ গাছের পাশে বসবাসকারী একাব্বর আলী (৬৪) জানান, শিমুলগাছটা আগের চেয়ে দিন, দিন আরো তাজা হচ্ছে। তিনি জানান, এ গাছে মৌমাছির চাকসহ, অসংখ্য প্রজাতির পাখ-পাখালির বাস। আবার গাছটা টিয়া পাখিদের যেন অভয়াশ্রম। বিকাল হলেই টিয়া পাখিসহ বিভিন্ন পাখির কলরবে যে কেউ মুগ্ধ হবেন। এলাকাবাসীর অনেকে জানিয়েছেন, এ গাছের নিচ থেকে গুপ্ত ধন তুলতে গিয়ে এ গ্রামের নারিয়া মামুদ নামের এক ব্যক্তি অন্ধ হয়েছে। এখানে কথিত নাগনাগিনীর বসবাস বলেও তারা জানান। গাছের প্রকৃত জমির মালিক মৃত কোকন চন্দ্রের স্ত্রী কুসুম বালা ও তার বড় ছেলে কিরণ চন্দ্র জানান, একবার এ গাছটা তারা ১০ হাজার টাকা মূল্যে বিক্রি করে বিপাকে পড়েছিলেন। কোকন চন্দ্র স্বপ্নে গাছটির অলৌকিক ক্ষমতা দেখে, বাধ্য হয়ে গাছের বিক্রিত টাকা ক্রেতাকে ফেরত দেন। ওই সময় গাছের গায়ে কোপ দিলে কর্তনের স্থান দিয়ে রক্ত বের হতো বলে তারা জানান। গাছটা এখন বিক্রি করবেন কিনা? এমন প্রশের জবাবে মালিকরা  জানান, যতদিন গাছটা নিজের থেকে মারে যাবে না ততদিন পর্যন্ত তারা গাছটা বিক্রি কিংবা গাছের ডালপালা কাটবেন না। তারা বিশালাকৃতির দৃষ্টি নন্দিত এ গাছটি সংরক্ষণের জন্য সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার কাছে সহায়তা চেয়েছেন।

বাংলাদেশ বাণী/কাসা/ডেস্ক/নি.প্রতি/জাহাঙ্গীর/কুড়িগ্রাম/২৬/১২/২০১৫. ০৭:৩০ (পিএম) ঘ.
সর্বশেষ সংবাদ
  • ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে টিকে সিরিজে প্রথম জয়ের মুখ দেখলো লংকাআখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা শেষ হয়েছেআজ আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে চলতি বছরের ৫৩ তম বিশ্ব ইজতেমাদক্ষিণ সুুনামগঞ্জে সিরিজ ডাকাতি ॥ জনমনে চরম আতঙ্ক : প্রশাসন নিরবযশোরে পৃথক স্থান থেকে ৪ জনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশটঙ্গীর তুরাগ তীরে চলছে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব : কঠোর নিরাপত্তা বলয়শ্রীলংকাকে ১৬৩ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে স্বাগতিক বাংলাদেশঢাকা উত্তর সিটি'র উপ-নির্বাচনে আদালতের ৩ মাসের স্থগিতাদেশসুন্দরবনের ৩ কুখ্যাত জলদস্যুবাহিনীর প্রধানসহ ৩৮ জনের আত্মসমর্পণজাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণ : ভবিষ্যতে বাংলাদেশে জাতীয় ঐক্যের দাবি প্রধানমন্ত্রী'ররাজধানী'র জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের সফল অভিযান : ৩ মৃতদেহ ও বিস্ফোরক উদ্ধারপদোন্নতি পেলেন বঙ্গবন্ধু'র খুনিদের গ্রেফতারকারী প্রথম পুলিশ অফিসারবিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণীআম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বরাজধানীতে তীব্র গ্যাস সংকট : জনমনে ক্ষোভ জঙ্গি ও অন্যান্য অপরাধ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল হয়েছে : আইজিপিঅর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি'র সভায় ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনপুলিশকে আমি সব সময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই : প্রধানমন্ত্রীফারমার্স ব্যাংক কর্তৃক-জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিলসহ আমানতকারীদের অর্থ ফেরত না দেয়ায় টিআইবি’র উদ্বেগসুন্দরগঞ্জের আসনটি ছিনিয়ে নিয়েছে আওয়ামী লীগ : এইচ. এম. এরশাদ
  • ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে টিকে সিরিজে প্রথম জয়ের মুখ দেখলো লংকাআখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা শেষ হয়েছেআজ আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে চলতি বছরের ৫৩ তম বিশ্ব ইজতেমাদক্ষিণ সুুনামগঞ্জে সিরিজ ডাকাতি ॥ জনমনে চরম আতঙ্ক : প্রশাসন নিরবযশোরে পৃথক স্থান থেকে ৪ জনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশটঙ্গীর তুরাগ তীরে চলছে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব : কঠোর নিরাপত্তা বলয়শ্রীলংকাকে ১৬৩ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে স্বাগতিক বাংলাদেশঢাকা উত্তর সিটি'র উপ-নির্বাচনে আদালতের ৩ মাসের স্থগিতাদেশসুন্দরবনের ৩ কুখ্যাত জলদস্যুবাহিনীর প্রধানসহ ৩৮ জনের আত্মসমর্পণজাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণ : ভবিষ্যতে বাংলাদেশে জাতীয় ঐক্যের দাবি প্রধানমন্ত্রী'ররাজধানী'র জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের সফল অভিযান : ৩ মৃতদেহ ও বিস্ফোরক উদ্ধারপদোন্নতি পেলেন বঙ্গবন্ধু'র খুনিদের গ্রেফতারকারী প্রথম পুলিশ অফিসারবিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণীআম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বরাজধানীতে তীব্র গ্যাস সংকট : জনমনে ক্ষোভ জঙ্গি ও অন্যান্য অপরাধ দমনে পুলিশ বাহিনী সফল হয়েছে : আইজিপিঅর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি'র সভায় ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনপুলিশকে আমি সব সময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই : প্রধানমন্ত্রীফারমার্স ব্যাংক কর্তৃক-জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিলসহ আমানতকারীদের অর্থ ফেরত না দেয়ায় টিআইবি’র উদ্বেগসুন্দরগঞ্জের আসনটি ছিনিয়ে নিয়েছে আওয়ামী লীগ : এইচ. এম. এরশাদ
উপরে