প্রকাশ : ১৯ এপ্রিল, ২০১৮ ০৩:১৮:০৭
দু’স্প্রাপ্য হয়ে উঠছে মিঠা পানির মাছ : সংরক্ষণ অপরিহার্য
বাংলাদেশ বাণী, মীর ইমরান মাহমুদ, তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : মাছে ভাতে বাঙ্গালী, চিরায়ত এই প্রবাদটির সাথে সব বাঙ্গালীই পরিচিত। অতি পরিচিত বাস্তবধর্মী আর শরীর উপযোগী আমীষ এর অভাব দিনে দিনে প্রকট হচ্ছে। বিশেষ করে দেশী মাছের অকাল এবং সংকট আমীষের অভাবের পাশাপাশি মিঠা পানির মাছের দীনতা দিনে দিনে স্পষ্ট হচ্ছে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বাজার ব্যবস্থা এবং দেশের খাল-বিল, পুকুর, জলাশয়সহ মৎস্যের আবাস্থল পর্যালোচনা, গবেষণা, করে দেখা গেছে মিঠা পানির মাছের শুন্যতা প্রকট আকার ধারন করেছে। যতই দিন যাচ্ছে ততোই মিঠা পানির অভাব দেখা দিচ্ছে। বোয়াল, শোল, কই, মাগুর, জেল, পুটি, মায়া, ছায়া, শিং, চ্যাং, বেতলাসহ বিভিন্ন ধরনের মিঠা পানির মাছ দুষ্প্যাপ্য হয়ে উঠেছে, বাংলাদেশ নদী মাতৃক দেশ এদেশের আর্থসামাজিক বাস্তবতায় নদ-নদী গুলোতে পূর্বের ন্যায় মৎস্যের অস্তিত্ব অনুভূত হয় না।

দেশের জনসাধারনের একটি বড় অংশ বরাবরই নদ-নদীতে মৎস্য শিকারের মাধ্যমে জীবন জীবিক নির্বাহ করে আসছে। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়গুলোতে নদ নদীতে চাহিদানুযায়ী মাছের সন্ধান না পাওয়া দীর্ঘদিনের পেশা ত্যাগ করতে বাধ্য হচ্ছে অনেকে।

তথ্যানুসন্ধানে দেখা গেছে, নদ-নদীতে মৎস্য আরোহন কারীদের একটি অংশ সবধরনের মৎস্য আরোহন করে আর এ ক্ষেত্রে বংশ বিস্তারের সম্ভাবনা বিনাশ হয় বিশেষ করে খাওয়ার অযোগ্য অর্থাৎ রেনু জাতীয় মৎস্য বিনাশ হয়। এখনেই শেষ নয় সাতক্ষীরার উপজেলা তালার কিছু কিছু এলাকাতে লোনা পানির উপস্থিতির কারনে এবং লবনাক্ততার প্রসারের জন্য মিঠা পানির মৎস্যের অস্তিত্ব অনেকটা হুমকির মুখে।

গত কয়েক বছর যাবৎ বিভিন্ন হাট-বাজারগুলোতে দেশীয় মাছ তথা মিঠা পানির মাছের দেখা মেলে না। এক সময় হাট বাজার গুলোতে কই, মাগুর, জেল, শিং, চ্যাং, বেতলার সরব উপস্থিতি ছিল বিশেষ লক্ষনীয় কিন্তু বর্তমানের চিত্র সম্পূর্ণভাবে ভিন্ন মৎস্য বিশেষজ্ঞদের সাথে আলাপ কালে জানা গেছে, লবনাক্ততার পাশাপাশি সাম্প্রতিক বছর গুলোতে আমাদের দেশের অভ্যন্তর ভাগের জলাশয়গুলো যেমন আগাম শুকিয়ে যাচ্ছে অনুরুপভাবে দীর্ঘ খরার আবরনের ফলশ্রুতিতে জলাশয়ের নি¤œস্তরে থাকা দেশীয় মিঠার পানির মৎস্যের বংশ বিস্তারের ক্ষেত্র বিনষ্ট হচ্ছে।

উল্লেখ্য চ্যাং, শোল, বোয়াল, মাগুর, কৈ বিভিন্ন ধরনের মৎস্য প্রজাতির ডিম জলাশয়ের নি¤œস্তরে থাকে পরবর্তিতে বর্ষার আগমনী বর্তায় উক্ত ডিম অবমুক্ত হয় এবং রেনু পোনার উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। কিন্তু দীর্ঘ খরার কারনে সেই সাথে জলাশয় গুলোতে মৎস্য শিকারের নামে বিষ প্রয়োগের ঘটনাও ঘটে যে কারনে মিঠা পানির মৎস্যের অকাল দেখা যাচ্ছে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে অবশ্য রুই, কাতলা, মৃগেল, চিতল, মিনার কাপ, জাপানি পুটিসহ এই সকল মৎস্যের অস্তিত্ব বিদ্যমান, কারন চিংড়ী ঘেরগুলোতে উল্লেখিত মিঠা পানির মৎস্যের ব্যাপক উৎপাদন লক্ষনীয়।

এ ক্ষেত্রে চিংড়ী ঘেরের লবনাক্ত পানিতে বোরিং, পানির মাধ্যমে দুধ নোনতা করনের মাধ্যমে সাম্প্রতিক বছর গুলোতে ব্যাপক ভিত্তিক রুই, কাতলা, মৃগেল, জাতীয় মাছের চাষ হচ্ছে, দেশী এবং মিঠা পানির মাছের সংরক্ষন প্রবাহমান অবস্থান এবং অস্তিত্ব বিনাশ হতে দেওয়া যাবে না। মিঠা পানি মৎস্যের দুষ্প্যাপ্যতা রোধ করতে হবে, নতুব আগামী প্রজন্ম ভুলেই যাবে দেশী তথা মিঠা পানির হরেক রকম মৎস্যের নাম।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • দু'দিনের সরকারি সফরে শুক্রবার কলকাতা যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীআজ থেকে সিয়াম-সাধনার মাস পবিত্র মাহে রমজান শুরুবাংলার লাল-সবুজের কন্যা শেখ হাসিনার ৩৮ তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালনপ্রাকৃতিক দুর্যোগে আঘাতপ্রাপ্তদের বেশি সহায়তা প্রদানের পরামর্শ সায়মা ওয়াজেদেরআগামীকাল শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে পবিত্র মাহে রমজানআবারও খুলনার নগরপিতা হলেন তালুকদার আব্দুল খালেক২৬ জুন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের নতুন তারিখ ঘোষণা জাতীয় সংসদের স্পিকার সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরেছেনঐতিহাসিক স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’ উৎক্ষেপণ করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ : বাংলাদেশের ৫৭ তম দেশের মর্যাদা অর্জনযথাযোগ্য মর্যাদার সাথে বিশ্বকবি রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী পালিতব্যয় ধরা হয়েছে ১৩ হাজার ২৮৮ কোটি টাকা-একনেকে'র সভায় খুলনা-দর্শনা ডাবল লাইন রেলওয়েসহ ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনআজ প্রকাশিত হবে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল নাটকে প্রতিফলিত হতে থাকে ঐতিহাসিক ও সমসাময়িক ঘটনাবলি : স্পিকারআজ ঢাকায় শুরু হচ্ছে ওআইসি পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের ৪৫ তম সম্মেলনভারতে চলতি সপ্তাহে একের পর এক শক্তিশালী ঝড়ের আঘাত : নিহত ১৫০আজকের আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ ও শিলাবৃষ্টি হতে পারে।আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্ত ভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।তাজিকিস্তান রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশকে সব রকম সহযোগিতা দেবেসাম্প্রদায়িক ও অশুভ শক্তিকে রুখে দেবার অঙ্গীকার নিয়ে বাংলা বর্ষ বরণ
  • দু'দিনের সরকারি সফরে শুক্রবার কলকাতা যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীআজ থেকে সিয়াম-সাধনার মাস পবিত্র মাহে রমজান শুরুবাংলার লাল-সবুজের কন্যা শেখ হাসিনার ৩৮ তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালনপ্রাকৃতিক দুর্যোগে আঘাতপ্রাপ্তদের বেশি সহায়তা প্রদানের পরামর্শ সায়মা ওয়াজেদেরআগামীকাল শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে পবিত্র মাহে রমজানআবারও খুলনার নগরপিতা হলেন তালুকদার আব্দুল খালেক২৬ জুন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের নতুন তারিখ ঘোষণা জাতীয় সংসদের স্পিকার সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরেছেনঐতিহাসিক স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’ উৎক্ষেপণ করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ : বাংলাদেশের ৫৭ তম দেশের মর্যাদা অর্জনযথাযোগ্য মর্যাদার সাথে বিশ্বকবি রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী পালিতব্যয় ধরা হয়েছে ১৩ হাজার ২৮৮ কোটি টাকা-একনেকে'র সভায় খুলনা-দর্শনা ডাবল লাইন রেলওয়েসহ ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনআজ প্রকাশিত হবে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল নাটকে প্রতিফলিত হতে থাকে ঐতিহাসিক ও সমসাময়িক ঘটনাবলি : স্পিকারআজ ঢাকায় শুরু হচ্ছে ওআইসি পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের ৪৫ তম সম্মেলনভারতে চলতি সপ্তাহে একের পর এক শক্তিশালী ঝড়ের আঘাত : নিহত ১৫০আজকের আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ ও শিলাবৃষ্টি হতে পারে।আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্ত ভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।তাজিকিস্তান রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশকে সব রকম সহযোগিতা দেবেসাম্প্রদায়িক ও অশুভ শক্তিকে রুখে দেবার অঙ্গীকার নিয়ে বাংলা বর্ষ বরণ
উপরে