প্রকাশ : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৮:০৬:৫২
সরিষাবাড়ীতে মানুষের মতো কথা বলে এক শালিক পাখি
বাংলাদেশ বাণী টোয়েন্টিফোর ডটকম, সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি : জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে মানুষের মতো কথা বলে শালিক পাখি। কথাটি শুনতে অদ্ভুত হলেও সত্য। এতো দিন শুনেছি ময়না পাখি কথা বলে, কিন্তু পোষ মানলে যে শালিক পাখিও কথা বলে। শালিক পাখিটি মানুষের মতো অবিকল কথা বলতে পারে, সেটা এই প্রথম দেখলাম।

এই অদ্ভুত ঘটনাটি ঘটেছে জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের বয়ড়া ব্রীজের নিচে আসা ভাসমান বেদে পল্ল¬ীতে। বেদে মো: আব্দুল হকের ছেলে সুলতান মিয়ার (১৫) পোষা শালিক পাখিটির নাম ঝুটি। শালিক পাখিটি এক পায়ে দাঁড়িয়ে থাকে। সে অনরবত মানুষের মত বাংলা ভাষায় কথা বলতে পারে ।

জানা যায়, পোগলদিঘা ইউনিয়নের বয়ড়া ব্রীজের নিচে আসা ভাসমান বেদে পল্ল¬ীতে বেদে সুলতান নামের এক কিশোর প্রায় তিন বছর যাবৎ একটি শালিক পাখি পোষে। ছোট থেকেই কথা বলানো বা কথা শিখানোর জন্য তাকে মরিচ পুড়িয়ে খাওয়ানো হতো।

বুধবার সকালে ঘটনাটি দেখতে গেলে পাখিটি খাঁচা থেকে বের করে দেয় সুলতান। পাখিটি কাকা-কাকা করে উড়ে গিয়ে সুলতানের কাধে বসে। পরে গায়ের বিভিন্ন জায়গায় তাকে বসায় এবং তাকে বিভিন্ন কথা বলতে বললে, সেই পোষা শালিক পাখিটি কাকা সুলতানের বলা কথা গুলো বলেন এবং সুলতানকে কাকা বলে ডাকেন। সুলতান তার কথায় জবাব দিলে পাখিটি সুলতানের ঠোঁটে তার ঠোঁট লাগিয়ে মানুষের মত চুম্বন দেয়। পোষা শালিক পাখিটি শুধু কাকাই নয় বরং সুলতানের ভাবিকে কাকি, ছোট বাচ্চাদের মত কান্না, মুরগি ডাকার মত অ্যাই অ্যাই করা, হাসের মত ডাকা, মানুষের মত কাশি দেওয়া সহ বিভিন্ন প্রকার কথা বা বিভিন্ন প্রাণীর মত ডাকতে পাড়ে বলে দেখা গেছে।

এ ব্যাপারে কিশোর সুলতান জানায়, সে তিন বছর ধরে পাখিটিকে খুব যতœ করে লালন পালন করে আসছে। সে তাকে মানুষের মত কথা, কান্না, হাসি সহ বিভিন্ন কিছু শিখিয়েছেন। পাখিটি কি খায় জানতে চাইলে সে বলে, পাখিটি ভাত, রুটি, বিস্কুট, কলা ছাড়াও কাঁচা-পাঁকা মরিচ খায় খুব সহজেই। আর আমি তা নাম রেখেছি ঝুটি। ক্ষুধা লাগলেই পাখিটি কাকা-কাকা বলে ডাকতে থাকে আমাকে।
 
বাংলাদেশ বাণী/কাসা/ডেস্ক/নি.প্রতি/ফারুক/সরিষাবাড়ী/২২/০২/২০১৬. ০৬:১২ (পিএম) ঘ.  
সর্বশেষ সংবাদ
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
  • জার্মানী, সুইডেন ও ইইউ’র রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি জোরালো সমর্থন রাবি ছাত্রী অপহরণ : সাবেক স্বামীসহ ২ জনকে ১ দিনের রিমান্ড বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া
উপরে