প্রকাশ : ১৪ জানুয়ারি, ২০১৭ ২৩:১৭:২৮
আল্লামা ফুলতলী (রহ.) ছিলেন তরুণদের পথ প্রদর্শক
॥ মুহাম্মদ হাবিলুর রহমান জুয়েল ॥ উপমহাদেশের প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন, যুগের শ্রেষ্ঠ ওলিয়ে কামিল শামসুল উলামা আল্লামা ছাহেব কিবলাহ ফুলতলী (রহ.) ছিলেন দ্বীনের একজন খাদিম। যতদিন পৃথিবীতে ছিলেন ততদিন তিনি দ্বীনের খেদমতে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছিলেন। তার ছেলেবেলা থেকে শুরু করে শেষ বয়সে এসেও দ্বীনের খেদমতে তিনি অক্লান্ত পরিশ্রম করে গিয়েছিলেন। সেই ধারাবাহিকতায় আজোও তার উত্তরসুরিরা বাংলার জমিনে ইসলামের প্রচার প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে আসছেন।

ফুলতলী (রহ.) বিশেষকরে তরুণদের নিয়ে ভাবতেন।  তিনি তরুণদের সঠিক ইসলামী শিক্ষা ও শুদ্ধ কোরআন চর্চার জন্য প্রতিষ্ঠা করেছিলেন দারুল কিরাত মাজিদিয়া ফুলতলী ট্রাস্ট। এর ফলে প্রতি বছর রমজান মাসে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা সহ সকল প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীরা ধর্মীয় শিক্ষা গ্রহণ করতে পারছে। এছাড়াও তিনি এগুলোর পাশাপাশি তরুণ ছাত্রদের ইসলামের সঠিক পথ ও মত অনুস্বরন করে ছাত্রজীবনকে সুন্দরভাবে সাজিয়ে তোলার লক্ষে ১৯৮০ সালের ১৮ ই ফেব্রুয়ারি প্রতিষ্ঠা করেন বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়া নামে একটি ছাত্র সংগঠন। এই সংগঠনটি ছাত্রদের বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) এর আদর্শ অনুসরন করতে সাহায্য করে। যার ফলে ছাত্ররা ইসলামের সঠিক পথ ও মত খুঁজে পায়।

আল্লামা ফুলতলী (রহ.) এর এই অবদানের ফলে সমস্ত বাংলাদেশ সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশী প্রবাসী ছাত্ররা বিভিন্ন ইসলামী কমিউনিটির মাধ্যমে দিন দিন ইসলামী খেদমতের প্রসার বৃদ্ধি করছে।  পাশাপাশি বাংলাদেশী বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটি, মাদরাসা সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্ররা তাদের কর্মদক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন সামাজিক, রাষ্ট্রীয় ও আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে ইসলামী কমিউনিটিকে দৃড়তার সাথে তুলে ধরছেন। এগুলো আল্লামা ফুলতলী (রহ.) অবদানের ফলেই সম্বব হচ্ছে।

আল্লামা ফুলতলী (রহ.) তরুণ ছাত্রদের মেধাবিকাশে ব্যাপক ভুমিকা পালন করেছেন। যার ফলে আমরা দেখতে পাই বিভিন্ন অঞ্চলে তরুণ ছাত্ররা বিভিন্ন যুব সংঘ সৃষ্টি করে ইসলামী কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন।
ফুলতলী ছাহেব কিবলার অনেক গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে সূদুরপ্রসারী অবদান রয়েছে। এজন্য তাকে তরুণদের পথ প্রদর্শক বলা হয়।

লেখক : (বিএ) ৩য় বর্ষ ফেঞ্চুগঞ্জ (অনার্স)ডিগ্রি কলেজ, সাধারণ সম্পাদক, ফেঞ্চুগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ তালামীয।
সর্বশেষ সংবাদ
  • ট্রাম্প হচ্ছেন ‘আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে নবাগত দুষ্টু ব্যক্তি’: ইরানের প্রেসিডেন্টমিয়ানমারের সিত্তুয়েতে রোহিঙ্গাদের জন্য রেডক্রসের ত্রাণবাহী নৌকায় বৌদ্ধদের হামলাজলি আত্মহত্যা প্ররোচণা মামলার চার্জশিট -‘সঠিক জবানবন্দি উপস্থাপন করতে পারেনি পুলিশ’রোহিঙ্গাদের জন্য জরুরী মানবিক সহায়তা ২৬২ কোটি ৩ লাখ টাকা দেবে যুক্তরাষ্ট্র ‌‘রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে আপনাদের ঐক্য প্রদর্শন করুন’ : ওআইসিকে প্রধানমন্ত্রীপৌর অবকাঠামো উন্নয়নে ২০ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ দেবে এডিবিরোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশের পাশে থাকার আশ্বাস ট্রাম্পেররোহিঙ্গা ইস্যুতে মুখ খুললেন : আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহায়তা আহ্বান সুকি'র রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নির্যাতন বন্ধে এটাই সুচি’র শেষ সুযোগ : জাতিসংঘ মহাসচিব দক্ষিণ-পশ্চিম লন্ডনে পাতাল রেলে বিস্ফোরণ : পুলিশের দাবী সন্ত্রাসী হামলাজাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী আজ নিউইয়র্ক যাচ্ছেনমিয়ানমারের আকাশসীমা লংঘনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশমানুষকে খাদ্য নিয়ে কষ্ট পেতে দেব না : সংসদকে প্রধানমন্ত্রীরাখাইন রাজ্যের বর্তমান সংকটে যুক্তরাষ্ট্রের গভীর উদ্বেগ প্রকাশমানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়া হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীএ সমস্যা মিয়ানমার তৈরি করেছে-রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান তাদেরকেই করতে হবে : সংসদকে প্রধানমন্ত্রীমন্ত্রিসভার বৈঠকে জাতিসংঘ পারমাণবিক অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ চুক্তি স্বাক্ষরের অনুমোদনওআইসি সম্মেলনে যোগ দিতে রাষ্ট্রপতি আজ আস্তানার উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেননির্বাচনকে প্রভাবিত করার রাজনীতি বিএনপি'র হাত ধরেই শুরু হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীমিয়ানমারের চলমান সহিংসতায় ১ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছে : জাতিসংঘ
  • ট্রাম্প হচ্ছেন ‘আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে নবাগত দুষ্টু ব্যক্তি’: ইরানের প্রেসিডেন্টমিয়ানমারের সিত্তুয়েতে রোহিঙ্গাদের জন্য রেডক্রসের ত্রাণবাহী নৌকায় বৌদ্ধদের হামলাজলি আত্মহত্যা প্ররোচণা মামলার চার্জশিট -‘সঠিক জবানবন্দি উপস্থাপন করতে পারেনি পুলিশ’রোহিঙ্গাদের জন্য জরুরী মানবিক সহায়তা ২৬২ কোটি ৩ লাখ টাকা দেবে যুক্তরাষ্ট্র ‌‘রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে আপনাদের ঐক্য প্রদর্শন করুন’ : ওআইসিকে প্রধানমন্ত্রীপৌর অবকাঠামো উন্নয়নে ২০ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ দেবে এডিবিরোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশের পাশে থাকার আশ্বাস ট্রাম্পেররোহিঙ্গা ইস্যুতে মুখ খুললেন : আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহায়তা আহ্বান সুকি'র রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নির্যাতন বন্ধে এটাই সুচি’র শেষ সুযোগ : জাতিসংঘ মহাসচিব দক্ষিণ-পশ্চিম লন্ডনে পাতাল রেলে বিস্ফোরণ : পুলিশের দাবী সন্ত্রাসী হামলাজাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী আজ নিউইয়র্ক যাচ্ছেনমিয়ানমারের আকাশসীমা লংঘনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশমানুষকে খাদ্য নিয়ে কষ্ট পেতে দেব না : সংসদকে প্রধানমন্ত্রীরাখাইন রাজ্যের বর্তমান সংকটে যুক্তরাষ্ট্রের গভীর উদ্বেগ প্রকাশমানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়া হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীএ সমস্যা মিয়ানমার তৈরি করেছে-রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান তাদেরকেই করতে হবে : সংসদকে প্রধানমন্ত্রীমন্ত্রিসভার বৈঠকে জাতিসংঘ পারমাণবিক অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ চুক্তি স্বাক্ষরের অনুমোদনওআইসি সম্মেলনে যোগ দিতে রাষ্ট্রপতি আজ আস্তানার উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেননির্বাচনকে প্রভাবিত করার রাজনীতি বিএনপি'র হাত ধরেই শুরু হয়েছে : প্রধানমন্ত্রীমিয়ানমারের চলমান সহিংসতায় ১ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছে : জাতিসংঘ
উপরে