প্রকাশ : ০৯ জুন, ২০১৭ ০১:১৪:৩৮
খুলনা থেকে ৬’শ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে আত্মসাৎ করেছে ‘যুবক’!
মোঃ আবদুর রাজ্জাক মোল্যা, পিতা, মোঃ জবেদ আলী মোল্যা, স্থায়ী ঠিকানা-গৌরিঘোনা, কেশবপুর, যশোর। সে খুলনা শহরের নিরালা আবাসিক এলাকা, প্রান্তিকা, বসুপাড়া এবং অন্যান্য স্থানে ঘন ঘন বাসা পরিবর্তন করে বসবাস করে এবং যুবক এর বিভাগীয় সভাপতি হয়ে মানুষ ঠকিয়ে প্রতারনা করে হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা। মার্কেন্টাইল ইসলামী লাইফ ইন্সুরেন্স লিমিটেড (৬ষ্ঠ তলা), রূপসা প্লাজা, ৭৩, কে ডি এ এভিনিউ, খুলনা (শিববাড়ী মোড়ে মার্কেন্টাইল ব্যাংক যে বিল্ডিং এ অবস্থিত সেই বিল্ডিং এর ৬ তলায় ইন্সুরেন্স অফিস) কে যুবক এর অস্থায়ী কার্যালয় বানিয়ে রাজ্জাক যথারীতি মানুষের সাথে প্রতারনার কাজ নির্বিঘেœ চালিয়ে যাচ্ছে। রাজ্জাক মোল্যা ২০০৮ সালে জালিয়াতি মামলায় (যুবক এর গ্রাহকের করা মামলা) জেল ও খেটেছে এবং ২০০৮ সালে আরও মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা রয়েছে কিন্তু সে এখনো ধরা ছোয়ার বাইরে থেকে প্রতারনা করেই যাচ্ছে । রাজ্জাক স্পষ্ট ভাষায ৫/৬/১৭ তারিখ বলেছে যে, দৈনিক নওয়াপাড়ায় সারাজীবন ধরে রাজ্জাক এর বিরুদ্ধে কিছু লিখে তার একটা লোম ও কেউ ছিড়তে পারবে না। গ্রাহকদের টাকা না দিলে কারো বাবার সাধ্য নেই যে টাকা আদায় করতে পারে । আবদুর রাজ্জাক মোল্যা যুবক এর আত্মসাতকৃত টাকায় আজকে অঢেল প্রতিপত্তির মালিক, অবৈধ সম্পদের পাহাড় গড়েছে সেই প্রতারক রাজ্জাক। রাজ্জাক, তার স্ত্রী ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নামে সারা বাংলাদেশে যুবক এর যেখানে জমি ছিল সেখানে রাজ্জাক এর একাধিক প্লট/ জমি রয়েছে, যেমন :- সাতক্ষীরা, কৈয়া বাজার, ডুমুরিয়া, বটিয়াঘাটা, নিজ খামার, মংলা, সাভার, চান্দের চর, ভালুকা, গাজীপুর, উত্তরা, গাবতলী এবং আরও অনেক স্থানে। খুলনাতে যুবক এর নিজস্ব সম্পত্তি (যুবক বিভাগীয় অফিস) ৪নং শামসুর রহমান রোডে (কমার্স কলেজের পাশে) ৩৩ শতাংশ জমির উপর যে দোতলা বাড়িটি রয়েছে সেই বাড়ী সহ উক্ত জমি রাজ্জাক নিজ নামে করে নেয়ার জন্য প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে।
এখনো নামে-বেনামে যুবকের গ্রাহকদের প্রতারিত করে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এবং যারা রাজ্জাক এর কথা মেনে প্রতারনার ফাঁদে পা দিতে চাচ্ছেন না তাদের কে হুমকি-ধামকি, মিথ্যা মামলার ভয় দেখাচ্ছে, যুবক এর পাওনাদারদের হয়রানি করছে, নাজেহাল করছে এবং শারিরীক-মানসিকভাবে নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে অবৈধ টাকা এবং পেশী শক্তির জোরে । জনশ্রুতি রয়েছে যে, রাজ্জাক (০১৭১২-১৭৫৮৮, ০১৬৩১-২১২৯২৯) মাদক ব্যবসা, চোরাচালান ব্যবসার সাথে জড়িত এবং জামাত-শিবির রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত থেকে বর্তমান সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্রের সাথে জড়িত এবং সন্ত্রাস/জঙ্গী অর্থায়নের সাথেও জড়িত ্এবং তার সাথে হাফিজুর রহমান মুকুল (০১৭১৬-২৮৭৩৬৬) (যশোর বাড়ি) সেও সম্পৃক্ত ।
যুবক এ গ্রাহকরা টাকা আমানত করেছে এবং জমির প্লট বুকিং দিয়েছে কিন্তু গ্রাহকরা তাদের টাকা ফেরত পাচ্ছে না বা প্লট কেউ বুঝে পাচ্ছে না । ১০/১১ বছর চেষ্টা করেও কোনভাবে প্রতারিত গ্রাহকরা তাদের আমানত ফেরত না পেয়ে চরম হতাশায় দিনাতিপাত করছে । যুবক হাউজিং এন্ড রিয়েল এস্টেট ডেভ. লিঃ এর খুলনা বিভাগীয় সভাপতি আবদুর রাজ্জাক মোল্যা, পরিচালক মাহফুজ রেজা, ব্যবস্থাপনা পরিচালক লোকমান হোসেন, চেয়ারম্যান হোসাইন-আল-মাসুম, সহকারী পরিচালক মোঃ হাফিজুর রহমান (মুকুল) ইতোমধ্যে আরও বেশী ক্ষিপ্ত হয়ে যুবক এর বহু গ্রাহককে (কম পক্ষে ৩৫০ জন) যারা পাওনা টাকা চাইতে এসেছিলো তাদেরকে সম্প্রতি নিজেদের ঘরবাড়ী ছাড়তে বাধ্য করেছে যেমন ঃ  শাহানারা, আবু সাঈদ মোল্লা, কবিতা খাতুন, মুকুল গাজী, মোশাররফ সরদার, শাহবাজ গাজী, সিরাজুল গাজী, জাকির হোসেন, ইকবাল হোসেন । যুবকে টাকা আমানত করে অনেকে ঘর-বাড়ী/ এলাকা ছেড়েছে, স্ত্রী-সন্তান ছেড়েছে, সংসার ভেঙ্গেছে, মান-সম্মান, সহায়-সম্বল সব হারিয়ে আজ নিঃস্ব-রিক্ত হয়েছে। সর্বশান্ত হয়েছে, অনেকে মারা গেছে, অনেকে আত্মহত্যা করেছে, মানবেতর জীবন-যাপন করতে বাধ্য হচ্ছে। তারপরও প্রতারিত গ্রাহকরা তো তাদের আমানত ফেরত পায়রি বরং নতুন রুপে আবারও সেই যুবক প্রতারনা শুরু করেছে। সুতরাং যুবকের টাকা আত্মসাতকারী এবং বর্তমানে খুলনাতে যুবকের সব চেয়ে বড় প্রতারক আবদুর রাজ্জাক মোল্লা থেকে সকল স্তরের গ্রাহকদের সচেতন হওয়া উচিৎ সেই সাথে সরকারের সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থাকে রাজ্জাক এর প্রতারনা বন্ধ করা, প্রতারনার মাধ্যমে অবৈধ সম্পদের সঠিক হিসাব নেয়া, মাদক ব্যবসা, চোরাচালান, সন্ত্রাস বা জঙ্গী অর্থায়নের সকল বিষয়াদি তদন্তের আওতায় আনার জন্য ভুক্তভোগীদের একান্ত নিবেদন।

  আমাদের কথা : এই লিখার সকল বিষয়বস্তু পাঠকের একান্ত নিজস্ব মতামত মাত্র। লিখার সাথে বাংলাদেশ বাণী কর্তৃপক্ষের কোন সর্ম্পৃক্ততা নেই। পাঠকের নিজস্ব মতামত প্রকাশের বৃহত্তর স্বার্থে আমরা লেখাটি হুবহু পত্রস্থ করলাম। এই লিখাটির কোন রকম দায় বাংলাদেশ বাণী কর্তৃপক্ষ গ্রহণ করনে না। কোন ব্যক্তি-মহলের যে কোন প্রকার আপত্তি গ্রহণযোগ্য হবে না।)
--বার্তা প্রধান।  
সর্বশেষ সংবাদ
  • বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ : বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি, সোমবার শাহবাগে ‘আনন্দ উৎসব ও স্মৃতিচারণ’ আজ বসছে দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন
  • বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করবো : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে : সমাবেশে বক্তারা গেইল-ম্যাককালামের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে রংপুরের পরাজয়রাবির অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার : নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনিআজ নাগরিক সমাবেশে : সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফিরে পাবে একাত্তরের ৭ মার্চের আবহমিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা বন্ধে জাতিসংঘের আহবান‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে’টেকসই অবকাঠামো উন্নয়নে ২৬ কোটি ডলার দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি'র নেতৃত্বাধীন জোটসংসদীয় আসনের সীমানা পুন:নির্ধারণ আইন সংশোধনের খসড়া প্রস্তুত করেছে ইসিজিম্বাবুয়ের সেনা কর্মকর্তারা অভ্যুত্থানের কথা অস্বীকার করেছেনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন বিষয়ে ইসি সিদ্ধান্ত নেয়নি : সিইসিআজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর : স্বজন হারাদের কাঁন্না থামেনি আজও মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিদ্যমান চিনি আইন রহিতের সিদ্ধান্তমহানগরী ঢাকাকে ‘সেফনগরী’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন ১০ কার্য দিবস চলবেস্থানীয় সরকারের অধীন দেশের ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানে ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণবিএনপি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না : খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ : বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি, সোমবার শাহবাগে ‘আনন্দ উৎসব ও স্মৃতিচারণ’ আজ বসছে দশম জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন
উপরে